ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

মুন্না ও তৈয়বের জার্সি বিক্রি হলো ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকায়


গো নিউজ২৪ | স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশিত: মে ১০, ২০২০, ০৮:২৪ এএম
মুন্না ও তৈয়বের জার্সি বিক্রি হলো ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকায়

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্দেশ্যে নিলামে তোলা হয়েছিল বাংলাদেশের ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা তারকা মোনেম মুন্নার জার্সি। নিলামে সেই জার্সি ৩ লাখ টাকায় বিক্রি হয়েছে। 

মোনেম মুন্না এই জার্সি পরেই ১৯৮৯ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট গোল্ডকাপে খেলেছিলেন। ওই আসরের চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। সেই ঐতিহাসিক ম্যাচে পরা মুন্নার জার্সিটির ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছিল ২ লাখ টাকা। 

নিলামকারী প্রতিষ্ঠান অকশন ফর অ্যাকশন কর্তৃক অনুষ্ঠিত নিলাম থেকে সেই বিখ্যাত ‘২’ নম্বর জার্সিটি ৩ লাখ টাকায় কিনে নেয় কার্নিভাল ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠান। 

এছাড়া মোনেম মুন্নার আবাহনী লিমিটেডের একটি জার্সি বিক্রি হয়েছে ২ লাখ ১০ হাজার টাকায়। শুরুতে নিলামে তোলা না হলেও সরাসরি যোগাযোগ করে এটি কিনে নেন এইচএসবিসি ব্যাংকের সিইও মাহবুবুর রহমান।

অন্যদিকে বাংলাদেশের সাবেক ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসানের জার্সিও নিলামে তোলা হয়েছিল। এই জার্সি পরে ২০১৩ সালে কাঠমুন্ডুতে অনুষ্ঠিত সাফ ফুটবলের ফাইনাল পরিচালনা করেছিলেন তৈয়ব। সেবারই প্রথম দক্ষিণ এশিয়ার কোনো রেফারি সাফ ফুটবলের ফাইনাল পরিচালনা করেন। 

নিলামে তৈয়বের জার্সি বিক্রি হয়েছে ৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকায়। নিলাম থেকে জার্সিটি কিনেছেন সাতক্ষীরা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি নাছিম ফারুক খান। এর ভিত্তিমূল্য ছিল ২ লাখ টাকা।

মোনেম মুন্না ও তৈয়বের জার্সি বিক্রি থেকে প্রাপ্ত মোট ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকা করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যার্থে ব্যয় করা হবে।

গোনিউজ২৪/এন

খেলা বিভাগের আরো খবর
সানিয়া-সোয়েব সুখী দাম্পত্যের রহস্য

সানিয়া-সোয়েব সুখী দাম্পত্যের রহস্য

৪২ লাখ টাকায় বিক্রি হলো মাশরাফির ব্রেসলেট

৪২ লাখ টাকায় বিক্রি হলো মাশরাফির ব্রেসলেট

২ দিন বাকি থাকতেই মুশফিকের ব্যাটের দাম ২২ লাখ!

২ দিন বাকি থাকতেই মুশফিকের ব্যাটের দাম ২২ লাখ!

মুন্না ও তৈয়বের জার্সি বিক্রি হলো ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকায়

মুন্না ও তৈয়বের জার্সি বিক্রি হলো ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকায়

করোনাভাইরাসমুক্ত বার্সার সব তারকা

করোনাভাইরাসমুক্ত বার্সার সব তারকা

উমর আকমল তিন বছরের জন্য নিষিদ্ধ

উমর আকমল তিন বছরের জন্য নিষিদ্ধ