ঢাকা বুধবার, ০৩ জুন, ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বর্ণবিদ্বেষের শিকার লুকাকু


গো নিউজ২৪ | স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯, ০২:৩৫ পিএম আপডেট: সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯, ০৮:৩৫ এএম
বর্ণবিদ্বেষের শিকার লুকাকু

ম্যাচটি ছিল ক্যাগিলারির হোম ম্যাচ। ২৭ মিনিটে লুয়াতারো মার্টিনেজের গোলে এগিয়ে যায় ইন্টার। দ্বিতীয়ার্ধ শুরুর পাঁচ মিনিটের মধ্যে সেই গোল শোধ করে দেন জোয়াও পেদ্রো। ৭২ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি পায় ইন্টার। লুকাকুর গোলে ইন্টার এগিয়ে যেতেই গোল পোস্টের পেছন থেকে তার উদ্দেশে বাঁদরের আওয়াজ তুলেন ক্যাগিলারি দলের সমর্থকরা। যা অপমানজনক ভাবে নেন লুকাকু। তিনি খেলা শেষে বলেন, ‘আমরা পেছনের দিকে হাঁটছি।’ তার সতীর্থ ডিফেন্ডার মিলান স্ক্রিনিয়ারকে দেখা যায় ঠোঁটে আঙ্গুল দিয়ে চুপ করার ইঙ্গিত দিচ্ছেন সমর্থকদের।

বাঁদরের আওয়াজ করা বা বাঁদর বলা বর্ণবিদ্বেষী বলেই মনে করা হয়। ক্রিকেটে হরভজন সিং এবং অস্ট্রেলিয়ার অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের সেই ‘মাঙ্কিগেট’ নিশ্চয়ই ভুলে যাননি ক্রীড়াপ্রেমীরা। খেলার মধ্যে বর্ণবিদ্বেষী কোনরকম ইঙ্গিত বা কথাকে কঠোর হাতেই প্রতিরোধ করে ফিফা বা আইসিসির মতো ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থাগুলো।

কিন্তু লুকাকুর বিরুদ্ধে এই আওয়াজকে বর্ণবিদ্বেষী বলে মানতে রাজি নয় ইতালির ফুটবল সমর্থকরা। সোশ্যাল মিডিয়াতে লুকাকুর উদ্দেশে একটি খোলা চিঠি লেখেন ইন্টারেরই এক সমর্থক। সেই চিঠিতে বলা হয়েছে, লুকাকু যেন এই আওয়াজকে অপমানসূচক না মনে করেন। এই আওয়াজ করা হয়েছে ‘সম্মান দেখিয়ে’। ক্যাগিলারি সমর্থকরা লুকাকুকে ভয় পেয়েই এই আওয়াজ করা হয়েছে বলেও দাবি করা হয়েছে সেই চিঠিতে। এর মধ্যে কোনও রকম বর্ণবিদ্বেষী বা অপমানজনক কিছু নাকি ছিল না। সেই চিঠিতে আরও বলা হয় যে, ইতালির ফুটবল সমর্থকরা বর্ণবিদ্বেষী নয়। তারা কোনদিন বর্ণবিদ্বেষকে সমর্থন করে না।

গত মৌসুমে এভারটনের ইতালিয়ান ফুটবলার ময়েজ কিনওক্যাগিলারি সমর্থকদের থেকে এই একই ব্যবহার পেয়েছিলেন। জুভেন্টাসের মাতুইদির সঙ্গেও একই ব্যবহার করেন এই সমর্থকরা। যদিও কোনও বারই এই সমর্থকদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি। ম্যাচ রেফারিরা কোনো অভিযোগই দায়ের করেননি তাদের বিরুদ্ধে।

২০১৭ সালে পেস্কারা ক্লাবের ফুটবলার সুলে মুন্তারি ক্যাগিলারি সমর্থকদের এই বাঁদরের আওয়াজের প্রতিবাদে মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যান খেলার মাঝপথেই। সেই জন্য শাস্তি হয় মুন্তারিরই। অতীতে লুকাকুর পুরনো সতীর্থ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পল পগবা, র‌্যাশফোর্ড, চেলসির স্ট্রাইকার ট্যামি আব্রাহামের মতো ফুটবলারদের সোশ্যাল মিডিয়াতেই বর্ণবিদ্বেষী আক্রমণ করা হয়েছিল। লক্ষ্যণীয়, এই সব তারকা ফুটবলারদের সবাই কৃষ্ণাঙ্গ।

বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ করেছেন চেলসি ম্যানেজার ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ড থেকে শুরু করে ইংরেজ মহিলা দলের ম্যানেজার ফিল নেভিল। যদিও তাদের ব্যবহারের ভুল মানে তার কাছে পৌঁছানোর জন্য লুকাকুর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন ক্যাগিলারি সমর্থকরা। তবে ম্যাচ রেফারি বিষয়টি নিয়ে কোনও রিপোর্ট না দেওয়ায় ফিফা এই নিয়ে কোনও মন্তব্য করেনি।

গোনিউজ২৪/এআর
 

খেলা বিভাগের আরো খবর
লা লিগা শুরু ১১ জুন থেকে

লা লিগা শুরু ১১ জুন থেকে

সানিয়া-সোয়েব সুখী দাম্পত্যের রহস্য

সানিয়া-সোয়েব সুখী দাম্পত্যের রহস্য

৪২ লাখ টাকায় বিক্রি হলো মাশরাফির ব্রেসলেট

৪২ লাখ টাকায় বিক্রি হলো মাশরাফির ব্রেসলেট

২ দিন বাকি থাকতেই মুশফিকের ব্যাটের দাম ২২ লাখ!

২ দিন বাকি থাকতেই মুশফিকের ব্যাটের দাম ২২ লাখ!

মুন্না ও তৈয়বের জার্সি বিক্রি হলো ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকায়

মুন্না ও তৈয়বের জার্সি বিক্রি হলো ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকায়

করোনাভাইরাসমুক্ত বার্সার সব তারকা

করোনাভাইরাসমুক্ত বার্সার সব তারকা