ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫
Sharp AC

ফেসবুক আইডি হ্যাক হলে কি করবেন জেনে নিন


গো নিউজ২৪ | নিউজ ডেস্ক প্রকাশিত: নভেম্বর ৩, ২০১৮, ০৫:৫৫ পিএম আপডেট: নভেম্বর ৩, ২০১৮, ১১:৫৫ এএম
ফেসবুক আইডি হ্যাক হলে কি করবেন জেনে নিন
Sharp AC

ফেসবুক আমাদের আধুনিক জীবনের এক গুরুত্বপূর্ণ অংশ।ফেসবুক নাই এমন মানুষ খুজে বের করাই কঠিন।ফেসবুকে অনেকের গোপন তথ্যও লোকানো থাকে তাই ফেসবুক আইডি হ্যাক হলে পড়তে হয় মহা বিপদে।আসুন জেনে নিন আপনার ফেসবুক আইডি হ্যাক হলে কি করবেন
 
আপনার যদি কখনো সন্দেহ হয় যে আপনার অ্যাকাউন্টটি হ্যাক হয়েছে কিনা, আপনি প্রথমেই আপনার ফেসবুকের অ্যাক্টিভিটি লগ চেক করুন। অ্যাক্টিভিটি লগ হচ্ছে ফেসবুকের একটি ফিচার যেখানে আপনি আপনার অ্যাকাউন্টের বিগত যতরকম অ্যাক্টিভিটি আছে সবগুলোর লিস্ট পাবেন। অ্যাক্টিভিটি লগ দেখতে চলে যান আপনার ফেসবুক অ্যাপে, এরপর আপনার প্রোফাইলে ঢুকে আপনার প্রোফাইল পিকচারের নিচে বাম দিকের সবার প্রথমেই পাবেন Activity Log। এখানে ক্লিক করে ঢুকলেই দেখতে পাবেন যে আপনার অ্যাকাউন্টে কি কি অ্যাক্টিভিটি রয়েছে।

এরপর চেক করুন আপনার টাইমলাইন। দেখুন যে এমন কোন পোস্ট বা শেয়ার করা পোস্ট আছে কিনা যেগুলো আপনি নিজেই কখনোই করেননি। এরপর এটাও চেক করুন যে আপনার আইডি থেকে অন্য কারো কাছে এমন কোন টেক্সট সেন্ড হয়েছে কিনা যেগুলো আপনি নিজে করেননি। এরপর আপনার ফেসবুক অ্যাপের সেটিংস অপশন থেকে আপনার Account Settings অপশনে চলে যান। এখানে আপনি অনেকগুলো সাবক্যাটাগরি দেখতে পাবেন। এখান থেকে Security and Login অপশনে চলে যান। এখানে স্ক্রিনের মাঝখানের দিকে আপনাকে দেখানো হবে যে আপনি কোন কোন ডিভাইসে আপনার আইডি লগ ইন করেছেন। সেখানে যদি এমন কোন ডিভাইস দেখতে পান যেটা ব্যবহার করে আপনি কখনোই লগিন করেননি বা এই ধরনের কোন সন্দেহজনক ডিভাইস দেখতে পান, তাহলেি আপনি ধরে নিতে পারেন আপনার আইডিটি হ্যাক হয়েছে।

কি করবেন আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলে?

১. আপনার ফেসবুক আইডি হ্যাক হয়েছে এই ব্যাপারে নিশ্চিত হলে প্রথমেই আপনাকে যা চেক করতে হবে তা হচ্ছে আপনার অ্যাকাউন্টের অ্যাক্টিভ সেশনস (Active Sessions)। এই অপশনটিতে দেখানো হয় যে আপনার ফেসবুক আইডিটি ঐ মুহূর্তে আর কোন কোন ডিভাইসে লগ ইন করা আছে। আপনার ফেসবুক অ্যাপের সেটিংস অপশন থেকে আপনার Account Settings অপশনে চলে যান। এখানে আপনি অনেকগুলো সাবক্যাটাগরি দেখতে পাবেন। এখান থেকে Security and Login অপশনে চলে যান। এখানে স্ক্রিনের মাঝখানের দিকে আপনাকে দেখানো হবে যে আপনি কোন কোন ডিভাইসে আপনার আইডি লগ ইন করেছেন। শুধুমাত্র কোন কোন ডিভাইস না, আপনি কথায় কতবার লগিন করেছেন, অর্থাৎ কথায় কয়টি সেশন তৈরি হয়েছে সেটাও দেখানো হবে। এখানে কোন সন্দেহজনক ডিভাইস দেখলেই রিমুভ করে দিন। দরকার হলে আপনার কারেন্ট ডিভাইসটি লগিন রেখে বাকি সবগুলোই রিমুভ করে দিন।

২. এরপর আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট সেটিংস থেকেই Apps অপশনটিতে চলে যান। এখানে সবার প্রথমে আপনি দেখতে পাবেন একটি অপশন যেটার নাম Logged in with Facebook। এই অপশনটিতে ক্লিক করলে আপনাকে সেই সকল অ্যাপসগুলোর লিস্ট দেখানো হবে যেগুলোকে আপনি পারমিশন দিয়েছেন আপনার আইডির কিছু কিছু ডেটা অ্যাক্সেস করার জন্য। এখানে অধিকাংশ অ্যাপই সেফ হতে পারে। তবে আমরা বাংলাদেশিরা অধিকাংশ সময়ই কোন অ্যাপকে ফেসবুকের অ্যাক্সেস দেওয়ার সময় এটা লক্ষ্য করিনা যে অ্যাপটি কি কি ডেটা অ্যাক্সেস করতে চাচ্ছে। এটা কখনোই করা উচিত না। যাইহোক, সেখানে দেখুন কোন সন্দেহজনক অ্যাপ আছে কিনা। যদি এমন কোন সন্দেহজনক অ্যাপ পান, তাহলে সেটিকে রিমুভ করে দিন বা ডিলিট করে দিন। সন্দেহজনক কিভাবে বুঝবেন? প্রথমত অ্যাপটির নাম দেখে এবং অ্যাপটিতে ক্লিক করে অ্যাপটি কি কি পারমিশন নিয়েছে সেগুলো দেখলেই বুঝবেন। এখানে আপনার কমন সেন্স ব্যবহার করুন।

৩. এরপর সরাসরি আপনার অ্যাকাউন্ট সেটিংস থেকে আপনার পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করে দিন। পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করার সম্য অবশ্যই একটি স্ট্রং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন। আপারকেস, লোয়ারকেস লেটার এবং সিম্বলস ব্যবহার করে আপনার পাসওয়ার্ড তৈরি করুন। অবশ্যই কমপক্ষে ১০-১২ ক্যারেক্টার পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন। এবগ পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করার পরে অবশ্যই Log me out from all other Devices অপশনে টিকমার্ক দিয়ে রাখবেন। আশা করি পাসওয়ার্ড কিভাবে চেঞ্জ করতে হবে এটা সবাই ভালোভাবেই জানেন। এরপর হয়তো আপনাকে প্রাইভেসি চেকআপ অফার করতে পারে ফেসবুক। যদি প্রাইভেসি চেকআপ অফার করে তাহলে অবশ্যই অবশ্যই অ্যাক্সেপ্ট করুন। দরকার হলে পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করার পরে আপনার অ্যাকাউন্টে যে প্রাইমারি ইমেইল অ্যাড্রেস আছে অর্থাৎ যেটি ব্যবহার করে আপনি লগিন করেন ফেসবুকে, সেউই প্রাইমারি ইমেইল অ্যাড্রেসটি চেঞ্জ করে দিন।

৪. আপনার ফেসবুক আইডিতে টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন অ্যাক্টিভ করে নিন। যদিও এটা সবার আগেই করা উচিত। কারণ, টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন আপনাকে প্রথমেই আপনার আইডি হ্যাক হওয়ার থেকে প্রায় ৯৫% পর্যন্ত সুরক্ষা দেবে। যদি না জেনে থাকেন যে টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন কি, তাহলে শুনুন, এটা অন করে রাখলে যতবারই আপনার অ্যাকাউন্টটি কোন অচেনা ডিভাইস থেকে লগিন করার চেষ্টা করা হবে, ততবার আপনার সিলেক্ট করা মোবাইল ফোনে একটি সিক্রেট কোড সেন্ড করবে ফেসবুক যেই কোডটি ওই ডিভাইসে ইন্টার না করা পর্যন্ত আপনার আইডিতে লগিন করা সম্ভব হবেনা। তাহলে বুঝতেই পারছেন এটা অন করা থাকলে কারোর জন্য কতটা কঠিন হয়ে পড়বে আপনার আইডিতে লগিন করা। যদি আগে থেকেই এটা অন না করে থাকেন, তাহলে যত দ্রুত সম্ভব টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন অন করে নিবেন ফেসবুকের সেটিংস পেজ থেকে।

গোনিউজ২৪/এমএএস

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের আরো খবর
আসছে উড়ন্ত বাইসাইকেল(ভিডিও)

আসছে উড়ন্ত বাইসাইকেল(ভিডিও)

ফেসবুক আইডি হ্যাক হলে কি করবেন জেনে নিন

ফেসবুক আইডি হ্যাক হলে কি করবেন জেনে নিন

পৃথিবী ছিল বেগুনি রঙের!

পৃথিবী ছিল বেগুনি রঙের!

ফেসবুকে আপনার গোপন তথ্য চুরি

ফেসবুকে আপনার গোপন তথ্য চুরি

চুলের চেয়েও সরু বিজ্ঞাপন দিয়ে বিশ্ব রেকর্ড

চুলের চেয়েও সরু বিজ্ঞাপন দিয়ে বিশ্ব রেকর্ড

২৪ ঘণ্টার বিশেষ অফার, ১১ টাকায় স্মার্টফোন মিলবে দারাজে

২৪ ঘণ্টার বিশেষ অফার, ১১ টাকায় স্মার্টফোন মিলবে দারাজে

Best Electronics AC mela