ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২০, ৯ মাঘ ১৪২৬

সৌদিতে নারীকর্মী পাঠানো বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়নি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রকাশিত: নভেম্বর ১৪, ২০১৯, ০৬:১৫ পিএম আপডেট: নভেম্বর ১৪, ২০১৯, ১২:১৫ পিএম
সৌদিতে নারীকর্মী পাঠানো বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়নি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সৌদি আরবে নারীকর্মী পাঠানো বন্ধের বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেন।বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংযুক্ত আরব আমিরাত সফর নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। 

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন বলেন, সৌদি আরবে নারীকর্মী পাঠানো বন্ধের বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এটা নিয়ে আমরা একটা ঝামেলার মধ্যে আছি।

তিনি বলেন, সৌদি আরবে ২ লাখ ৭০ হাজার বাংলাদেশি নারী কর্মরত রয়েছেন। এর মধ্যে ৮ হাজার নারী ফিরে এসেছেন। আর ৫৩ জন নারীকর্মীর মরদেহ দেশে এসেছে। তবে তাদের মধ্যে কে কে আত্মহত্যা করেছেন তা আমরা জানি না।

ড. মোমেন বলেন, সৌদি আরবে নারীকর্মীদের জন্য ২৪ ঘণ্টার হটলাইন খোলা রয়েছে। তারা যে কোনো সময় অভিযোগ জানাতে পারেন। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে নির্যাতনের শিকার হওয়া নারীরা অভিযোগ করেন না বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী। 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, সৌদি আরবে নারীরা যাক, সেটা রিক্রুটিং এজেন্সি চায় না। কেননা নারীরা গেলে তাদের মাধ্যমেই নিকটাত্মীয়রা সৌদি আরব যেতে পারেন। এর ফলে রিক্রুটিং এজেন্সির ব্যবসা হয় না। তাই তারা নারীদের যাওয়ার বিপক্ষে।

গো নিউজ২৪/আই

রাজনীতি বিভাগের আরো খবর
খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৯৬ হাজার ৯৮৬ কোটি টাকা

খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৯৬ হাজার ৯৮৬ কোটি টাকা

বাউল গান যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয়: প্রধানমন্ত্রী

বাউল গান যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয়: প্রধানমন্ত্রী

দেশটা সবার, কারও জমিদারিত্ব মানব না: ইশরাক

দেশটা সবার, কারও জমিদারিত্ব মানব না: ইশরাক

মুজিববর্ষে ই-পাসপোর্ট জাতির জন্য একটি উপহার: প্রধানমন্ত্রী

মুজিববর্ষে ই-পাসপোর্ট জাতির জন্য একটি উপহার: প্রধানমন্ত্রী

তাবিথের ওপর হামলার ঘটনায় গুরুত্ব দেয়া উচিত ইসির: কাদের

তাবিথের ওপর হামলার ঘটনায় গুরুত্ব দেয়া উচিত ইসির: কাদের

বিশ্বসেরা দুজন প্রধানমন্ত্রীর একজন শেখ হাসিনা: কাদের

বিশ্বসেরা দুজন প্রধানমন্ত্রীর একজন শেখ হাসিনা: কাদের