ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬

প্রতিহিংসার রাজনীতি করলে বিএনপির অস্তিত্ব থাকত না: প্রধানমন্ত্রী


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯, ০৫:২৬ পিএম আপডেট: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯, ০৬:৪১ পিএম
প্রতিহিংসার রাজনীতি করলে বিএনপির অস্তিত্ব থাকত না: প্রধানমন্ত্রী

আওয়ামী লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতিতেও বিশ্বাসী নয়। আমরা যদি তাই বিশ্বাস করতাম তাহলে এ দেশে বিএনপির অস্তিত্ব থাকত না।বুধবার জাতীয় সংসদে বিএনপির সাংসদ রুমিন ফারহানার প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সভাপতিত্ব সংসদের বৈঠক শুরু হয়।

বিএনপির এমপি রুমিন ফারহানার এক প্রশ্নের জাবাবে প্রধানমন্ত্রী সংসদে আরো বলেন, কোনো প্রতিষ্ঠানকে অকার্যকর করার জন্য নয়, সব প্রতিষ্ঠানকে আরও সক্রিয় রাখার জন্য আমি সদা-সর্বদা সচেষ্ট থাকি। তা না হলে সংসদ সদস্যের নেত্রীর খালেদা জিয়ার মতো বারোটা পর্যন্ত ঘুমিয়ে কাটালে কি প্রশ্ন করে খুশি হতেন?

এদিন সংসদে রুমিন ফারহানা প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন রাখেন- ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনুগ্রহ করে বলবেন কী, দেশে বর্তমানে মানুষ হত্যা হতে মশা মারা পর্যন্ত সব ক্ষেত্রেই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা প্রয়োজন হয়, যাহা রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর ভাঙিয়া পড়া, অকার্যকর হওয়ার ইঙ্গিত বহন করে। প্রাতিষ্ঠানিক সফলতা একটি কার্যকর রাষ্ট্রের পূর্বশর্ত। এই অকার্যকর প্রতিষ্ঠানগুলো কি রাষ্ট্রপরিচালনায় সরকারের সার্বিক ব্যর্থতা চিত্র তুলে ধরে না?

এর জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, সংসদীয় সরকারব্যবস্থায় প্রধানমন্ত্রী সরকারপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সরকার প্রধানের দায়িত্ব হলো- সব মন্ত্রণালয়ের কাজের সমন্বয় করা। মন্ত্রীদের কাজের তদারকি করা। জনগণ প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়েছেন তাদের কল্যাণ নিশ্চিত করার জন্য। আরাম আয়াসের জন্য আমি প্রধানমন্ত্রীত্ব গ্রহণ করিনি। আমি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা। যিনি তার জীবনটায় উৎসর্গ করেছিলেন এই দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য। তার কন্যা হিসেবে জনগণের প্রতি আমার দায়বদ্ধতা একটা আলাদা জায়গা রয়েছে। আমি সেটাই প্রতি পালনের চেষ্টা করি। সে জন্যই দিনরাত পরিশ্রম করি। কোনো প্রতিষ্ঠানকে অকার্যকর করার জন্য নয়, সব প্রতিষ্ঠানকে আরও সক্রিয় রাখার জন্য আমি সদা-সর্বদা সচেষ্ট থাকি।

গো নিউজ২৪/আই

রাজনীতি বিভাগের আরো খবর
ছাত্রলীগের পর এবার যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রী

ছাত্রলীগের পর এবার যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রী

ছাত্রদলের সভাপতি খোকন, সা. সম্পাদক শ্যামল

ছাত্রদলের সভাপতি খোকন, সা. সম্পাদক শ্যামল

খালেদের গ্রেফতার নিয়ে যা বললেন যুবলীগ চেয়ারম্যান

খালেদের গ্রেফতার নিয়ে যা বললেন যুবলীগ চেয়ারম্যান

মিয়ানমার অত্যন্ত রক্ষণশীল, কারো কথা শোনে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মিয়ানমার অত্যন্ত রক্ষণশীল, কারো কথা শোনে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মানুষের সেবা করার মতো আনন্দ আর কি হতে পারে: প্রধানমন্ত্রী

মানুষের সেবা করার মতো আনন্দ আর কি হতে পারে: প্রধানমন্ত্রী

কাউন্সিলে প্রার্থী হবেন না কাদের, আসছে নতুন চমক!

কাউন্সিলে প্রার্থী হবেন না কাদের, আসছে নতুন চমক!