ঢাকা শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলেন ওবায়দুল কাদের


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রকাশিত: মে ১৫, ২০১৯, ০৯:৩২ পিএম আপডেট: মে ১৫, ২০১৯, ০৯:৩৫ পিএম
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলেন ওবায়দুল কাদের

চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরে গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বুধবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে ওবায়দুল কাদের বিমানবন্দরে নেমে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেওয়ার পর গণভবনের উদ্দেশে রওনা দেন। ইফতারের পরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা হয় তার। এসময় তার শরীরের খোঁজ-খবর নেন এবং পর্যাপ্ত বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর ওবায়দুল কাদের নিজ বাসায় চলে যান।

এর আগে বিকেল ৫ টা ৫২ মিনিটে ওবায়দুল কাদেরকে বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের বিজি ৮৫ ফ্লাইটটি ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। সেখানে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফসহ দলীয় নেতারা তাকে অভ্যর্থনা জানান।

দেশে ফিরে বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি আবেগ ভরা কণ্ঠে তার চিকিৎসার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে অশেষ কৃতজ্ঞতা জানান। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ তাকে (প্রধানমন্ত্রী) বলা হয় মাদার অব হিউম্যানিটি। সেই তার কাছে আমি অশেষ ঋণে বাধা পড়ে গেলাম।’

কাদের বলেন, দুই মাস ১১ দিন আগে আমার জীবন ছিল চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে। বাঁচব কি-না এ নিয়ে সংশয় ছিল। সেই জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে পরম করুণাময় আল্লাহ তাআলার ইচ্ছায় এবং আমাদের প্রিয় নেত্রী- যিনি চরম সঙ্কটে মা তার সন্তানের জন্য যা করেন তিনি আমার জন্য তা-ই করেছেন, তার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশের ভাষা আমার জানা নেই। তিনি মমতাময়ী মা, সত্যিই তার কাছে আমার ঋণের বোঝা বেড়ে গেল।

তার খোঁজ খবর রাখায় এবং তার সুস্থতা কামনায় কোরান শরিফ পড়ে মোনাজাত করায় বঙ্গবন্ধুর অপর কন্যা শেখ রেহানার কাছেও অশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ওবায়দুল কাদের।

এছাড়াও দলের সব নেতা-কর্মীসহ যারা তার খোঁজ খবর রেখেছেন, সুস্থতা কামনা করে দোয়া করেছেন সবার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা জানান সেতুমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, গত ০৩ মার্চ ভোরে ঢাকার নিজ বাসায় শ্বাসকষ্ট শুরু হলে ওবায়দুল কাদেরকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের (বিএসএমএমইউ) ইনসেনটিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়। 

এরপর ভারতের বিখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠীর পরামর্শে ৪ মার্চ এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে ২০ মার্চ ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি হয়। পরে সুস্থ হওয়ার পর গত ০৫ এপ্রিল মাউন্ট এলিজাবেথ থেকে ছাড়পত্র পান ওবায়দুল কাদের। তবে ওই হাসপাতালের কাছেই ভাড়া বাসায় থেকে যান তিনি।

গো নিউজ২৪/আই

রাজনীতি বিভাগের আরো খবর
জি কে শামীমকে নিয়ে যা বলছে আ.লীগ

জি কে শামীমকে নিয়ে যা বলছে আ.লীগ

কারো সহযোগিতা ছাড়া উঠতে-বসতে পারেন না বেগম জিয়া

কারো সহযোগিতা ছাড়া উঠতে-বসতে পারেন না বেগম জিয়া

যে ধরা পড়বে তাকেই বহিস্কার: যুবলীগ চেয়ারম্যান

যে ধরা পড়বে তাকেই বহিস্কার: যুবলীগ চেয়ারম্যান

জি কে শামীমকে নিয়ে যা বললেন যুবলীগ চেয়ারম্যান

জি কে শামীমকে নিয়ে যা বললেন যুবলীগ চেয়ারম্যান

ঢাকাকে ক্যাসিনোর শহর বানিয়েছিলো বিএনপি: কাদের

ঢাকাকে ক্যাসিনোর শহর বানিয়েছিলো বিএনপি: কাদের

নিউইয়র্কের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রী

নিউইয়র্কের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রী