ঢাকা রবিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৮, ৬ কার্তিক ১৪২৫
Sharp AC

এখনও রংপুর সিটি মেয়র ঝন্টু!


গো নিউজ২৪ | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রংপুর প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৪, ২০১৮, ০৯:৩৩ এএম
এখনও রংপুর সিটি মেয়র ঝন্টু!
Sharp AC

দেশ ও বিদেশের সবাই জানে রংপুর সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। অথচ সরকারি ওয়েভ সাইড বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন জানাচ্ছেন অন্যকথা। ডিজিটাল তথ্য বাতায়ন প্রযুক্তির দাবি এখনও রংপুর সিটি মেয়র আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থী ও সাবেক সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টুই। যার সত্যতা মিলেছে রংপুর জেলা তথ্য বাতায়নে। সেখানে রংপুর সিটির মেয়র হিসেবে সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টুর নাম ও ছবি এখনো বহাল রয়েছে।

এদিকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার কাছে শোচনীয়ভাবে পরাজয় বরণকারী সরফুদ্দীন আহম্মেদ ঝন্টুর নামের আগে ইতোমধ্যে ‘সাবেক মেয়র’ তকমা যুক্ত হলেও জেলা তথ্য বাতায়নে (সরকারী ওয়েভ সাইট) হালনাগাদ হয়নি কোনো তথ্য। 

অথচ গেল বছরের ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় রংপুর সিটির নির্বাচনের ১ মাস পূর্বে ২১ নভেম্বর মেয়র পদ থেকে পদত্যাগ করেন সরফুদ্দীন আহাম্মেদ ঝন্টু। এরপর থেকে রংপুর সিটি করপোরেশনের দায়িত্বে রয়েছেন এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রুহুল আমিন খান। 

সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টুর মেয়র পদ ছাড়ার ১ মাস ১২ দিন অতিবাহিত হলেও জেলা তথ্য বাতায়ন থেকে এখনও তার ও ছবি বাদ না দেয়ার ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে সচেতন মহলে। ডিজিটাল প্রযুক্তির এই যুগে এমন ভুল বা তথ্য হালনাগাদ না করাকে তথ্য বিভ্রান্তি হিসেবেও দেখছেন অনেকেই।

এ বিষয়ে রংপুর মহানগর জাতীয় ছাত্রসমাজের সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আল-আমিন বলেন, দেশের সরকার যখন সবখানেই তথ্য প্রযুক্তির ছোয়াকে কাজে লাগিয়ে মানুষকে সহজেই সব খবরাখবর জানাচ্ছেন। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন পূরণে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন সেখানে সরকারী ওয়েভ সাইটে এ ধরণের তথ্য বিভ্রান্তি দুঃখজনক। তথ্য প্রদানে অসচেতনতা এবং দায়িত্বে ফাঁকিবাজ কর্তারাই এর জন্য দায়ী। এসময় তিনি এই সব তথ্য হালনাগাদের দায়িত্বে যারা রয়েছেন তাদের আরও সচেতন হয়ে কাজ করার পরামর্শ দেন।
এ বিষয়ে জানতে রংপুরের জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামানের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলেও তিনি মোবাইল রিসিভ করেননি।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২১ ডিসেম্বর রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রায় লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধানে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। ওই নির্বাচনে লাঙ্গল প্রতীকে ১ লাখ ৬০ হাজার ৪৮৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন মোস্তফা। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু পেয়েছিলো মাত্র ৬২ হাজার ৪০০ ভোট। 

গো নিউজ২৪/এবি

রাজনীতি বিভাগের আরো খবর
আ.লীগের সঙ্গে নির্বাচনের অংক কষছেন কর্নেল অলি      

আ.লীগের সঙ্গে নির্বাচনের অংক কষছেন কর্নেল অলি      

রিজভীর নেতৃত্বে কালো পতাকা মিছিল

রিজভীর নেতৃত্বে কালো পতাকা মিছিল

দাবি পূরণের কোনো আভাস নেই

দাবি পূরণের কোনো আভাস নেই

নভেম্বর থেকে সামাজিক মাধ্যম নিয়ন্ত্রণ : তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী

নভেম্বর থেকে সামাজিক মাধ্যম নিয়ন্ত্রণ : তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী

প্রশ্নফাঁসের প্রতিবাদে ঢাবিতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল

প্রশ্নফাঁসের প্রতিবাদে ঢাবিতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল

জাতীয় আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের আত্মপ্রকাশ

জাতীয় আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের আত্মপ্রকাশ

Best Electronics AC mela