ঢাকা রবিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৮, ৪ ভাদ্র ১৪২৫
Beta Version
Sharp AC

আ’লীগ সরকার বাকস্বাধীনতায় বিশ্বাসী   


গো নিউজ২৪ | সজীব ওয়াজেদ জয় প্রকাশিত: আগস্ট ৯, ২০১৮, ১০:০৮ এএম
আ’লীগ সরকার বাকস্বাধীনতায় বিশ্বাসী   
Sharp AC

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন এখন শেষ। এই আন্দোলনের শুরুর দিকেই আমাদের আওয়ামী লীগ সরকার সব দাবি মেনে নেয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দাবিগুলো বাস্তবায়নের জন্য যথাযথ নির্দেশনা দেন ও শিক্ষার্থীদের অনুরোধ করেন ঘরে ফেরার। কারণ তাদের আন্দোলন সফল হয়েছে।

বুধবার মধ্যরাতে নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসে এমনটিই বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

জয়ের স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন এখন শেষ। এই আন্দোলনের শুরুর দিকেই আমাদের আওয়ামী লীগ সরকার সব দাবি মেনে নেয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দাবিগুলো বাস্তবায়নের জন্য যথাযথ নির্দেশনা দেন ও শিক্ষার্থীদের অনুরোধ করেন ঘরে ফেরার। কারণ তাদের আন্দোলন সফল হয়েছে।

দুর্ভাগ্যবশত, সরকার সব দাবি মেনে নিলেও বিএনপিসহ ১/১১’র মিলিটারি ক্যু’র কুশীলব, কিছু চিহ্নিত সুশীল সমাজের এই আন্দোলনের দিকে কুনজর পরে। তারা শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যমূলকভাবে উস্কে দিতে থাকেন আন্দোলন চালিয়ে যেতে। ক্রমশই আন্দোলনটি সহিংসতার দিকে যেতে থাকে। প্রাইভেট গাড়ি ভাঙা হয়, পোড়ানো হয় বাস এমনকি মোটরসাইকেলও জ্বালানো হয়।

পর্দার পেছনে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোকে ব্যবহার করে অপপ্রচার চালাতে থাকে বিরোধী দলগুলো। তাদের উদ্দেশ্য ছিল শিক্ষার্থীদের সহিংসতার দিকে ঠেলে দেয়া। পুলিশ এর উপর আঘাত আসে, আক্রমণ করা হয় বর্ডার গার্ডদেরও।

আমরা সবাই অভিনেত্রী নওশাবার ভিডিওটি দেখেছি, যেটি উনি নিজেই ভুয়া হিসেবে মিডিয়ার কাছে স্বীকার করেছেন। শহিদুল আলম শুধু এমন গুজবই ছড়াননি, ছড়িয়েছেন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের কাছে। ৭১ এর রাজাকারদের মতোই এখনও নিজ স্বার্থে দেশের স্বার্থ বিসর্জন দেয়ার মতন অনেক মানুষই আছে।

আমাদের আওয়ামী লীগ সরকার বাকস্বাধীনতায় বিশ্বাসী। কিন্তু সহিংসতা উস্কে দেয়া ও অন্যের ক্ষতি করা বাকস্বাধীনতা না। এর জবাবদিহিতা ও বিচার থাকতে হবে, না হলে বার বার একই কাণ্ড ঘটতেই থাকবে। তাই, যারা গত কয়েকদিন সহিংসতায় অংশ নিয়েছে, তাদের বিচার হবেই।

আমাদের মনে আছে ২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াতের অগ্নিসন্ত্রাসের কথা, যখন ১০০ এর অধিক নিরীহ মানুষ প্রাণ হারান ও হাজার হাজার মানুষ আহত হন।

জনগণের স্বার্থেই অরাজকতা ও সহিংসতার জবাব দিতে হয়।

গো নিউজ২৪/এমআর

 

মতামত বিভাগের আরো খবর
তসলিমা নাসরিনের ফেসবুক স্ট্যাটাসে অটল বিহারী

তসলিমা নাসরিনের ফেসবুক স্ট্যাটাসে অটল বিহারী

জনপ্রিয় বলে কি শহিদুল আলম আইনের ঊর্ধ্বে?

জনপ্রিয় বলে কি শহিদুল আলম আইনের ঊর্ধ্বে?

সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারী হেলমেটধারীরা কারা?

সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারী হেলমেটধারীরা কারা?

সাকিবের দোষ ধরবো, নাকি সাকিবের কাছ থেকে কিছু শিখবো?

সাকিবের দোষ ধরবো, নাকি সাকিবের কাছ থেকে কিছু শিখবো?

‘শহিদুল আলম আমাকে প্রাণে বাঁচিয়েছিলেন’ 

‘শহিদুল আলম আমাকে প্রাণে বাঁচিয়েছিলেন’ 

আ’লীগ সরকার বাকস্বাধীনতায় বিশ্বাসী   

আ’লীগ সরকার বাকস্বাধীনতায় বিশ্বাসী   

Best Electronics AC mela