ঢাকা রবিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৮, ৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫
Sharp AC

খেললো আর্জেন্টিনা আর ফ্রান্স, কিন্তু বিজয়ী দল ব্রাজিল!


গো নিউজ২৪ | ফারজানা আক্তার প্রকাশিত: জুলাই ১, ২০১৮, ১০:৩১ এএম
খেললো আর্জেন্টিনা আর ফ্রান্স, কিন্তু বিজয়ী দল ব্রাজিল!
Sharp AC

হেডলাইন দেখে ভাবছেন কি সব আবোল তাবোল বকছি, তাই না? আর্জেন্টিনা আর ফ্রান্সের মধ্যে খেলা হলে ব্রাজিল কিভাবে জয়ী হয়? খুব কমন এবং সহজ একটি প্রশ্ন। এবং এর উত্তর আরো অনেক সহজ। অনেকে হয়তো বুঝেও গিয়েছেন আমি কি বলতে চাচ্ছি। আর্জেন্টিনা হেরে যাওয়া মানেই ব্রাজিল জিতে যাওয়া এবং একইভাবে ব্রাজিল হেরে যাওয়া মানেই আর্জেন্টিনা জিতে যাওয়া।

হেরে যেতে কেউ পছন্দ করে না। হোক সেটা জীবনে চলার পথে, হোক সেটা খেলার মধ্যে। কিন্তু প্রতিযোগিতা শব্দটা যেখানে থাকবে সেখানে কাউকে না কাউকে হেরে যেতেই হবে। এবং এই হেরে যাওয়াটা শুধুমাত্র সেই প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রেই, এই হেরে যাওয়াটা কারো পুরো জীবনের জন্য নয়। আমি আবারো বলছি একটি প্রতিযোগিতায় হেরে যাওয়া মানেই পুরো জীবনের সকল প্রতিযোগিতায় হেরে যাওয়া নয়।

আমি পার্সোনালি ফুটবল খেলা দেখি না। এক ক্রিকেট খেলা ছাড়া আমি অন্য কোন খেলা দেখি না। ফুটবলে আমি কোন দলও সাপোর্ট করি না। কয়েকজন ফুটবলারকে চিনি এবং তাদের সম্পর্কে টুকটাক জানি।  যতদূর জানি তারা তাদের জায়গায় সেরা এবং তাদের সেরাটা দিয়েই মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছে। এবং তারা নিজেকে প্রমাণ করতে পেরেছে বলেই আজকে তারা বিশ্বকাপ খেলছে, আজকে আপনি তাদের চিনেন এবং জানেন। আপনি ব্রাজিল সাপোর্ট করেন তাই বলে আর্জেন্টিনার কোন খেলোয়াড়কে আপনি তুচ্ছ করে দেখতে পারেন না। আর্জেন্টিনার কোন খেলোয়াড়কে আপনি আপনার মূর্খতা দিয়ে ট্রল করতে পারেন না।  একই কথা আর্জেন্টিনার সাপোর্টারদের ক্ষেত্রেও। আপনি আর্জেন্টিনা সাপোর্ট করেন বলেই আর্জেন্টিনার সকল খেলোয়াড় সেরা, আর ব্রাজিলের খেলোয়াড়রা সব ঠুনকো এটা ভাবার কোন কারণ নেই।

এই বিশ্বকাপ আসার পর থেকে বিশেষ করে যেদিন ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার খেলা থাকে সেদিন ফেসবুকের টাইমলাইনে ঢুকা যায় না। ট্রল করা খারাপ কিছু নয়। ট্রল তখনই খারাপ কিছু হয়ে দাঁড়ায় যখন আপনার করা একটি মাত্র ট্রল একইসাথে আপনার অজ্ঞতার পরিচয় দেয় এবং আপনার প্রতিপক্ষকে আঘাত করে। ট্রল হবে এমন যা দেখে বিজয়ী দল এবং হেরে যাওয়া দল একইসাথে মজা পাবে, একইসাথে হেসে উঠবে। বিজয়ী দলের আনন্দ বেড়ে যাবে, আর হেরে যাওয়া দলের কষ্ট অনেকটা কমে যাবে।

আমরা বাঙ্গালীরা কোন কিছুই সহজভাবে নিতে পারি না। খেলাকে খেলা হিসেবে নিতে পারি না, পরাজয় মেনে নিতে পারি না, কারো বিজয় সহ্য করতে পারি না। আমাদের দেশে এক মেসি আর নেইমারকে নিয়ে যত গালাগালি আর মারামারি হয়, সেটা নেইমারের দেশে মেসিকে নিয়ে আর মেসির দেশে নেইমারকে নিয়ে তার অর্ধেক হয় কিনা সন্দেহ। আমরা যেই দল করি না কেন মেসির অর্জন, নেইমারের অর্জন, রোনালদোর অর্জন কি অস্বীকার করার মতো? তাহলে কেন আমরা তাদের নিয়ে নোংরা ট্রল করে ফেসবুক ভরিয়ে ফেলছি! কেন আমরা চারপাশে এতো বিদ্বেষ ছড়াচ্ছি !কেন আমরা একজন আরেকজনের মাথা ফাটিয়ে দিচ্ছি! কেন নিজের সাপোর্ট করা দলের পরাজয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিচ্ছি! কেন?

খেলা নিয়ে চারপাশে সবার উত্তেজনা দেখতে ভালো লাগে। কিন্তু ঐ যে! অতিরিক্ত কোন কিছুই ভালো না। হোক সেটা উত্তেজনা, হোক সেটা ভালোবাসা, হোক সেটা ঘৃণা, হোক সেটা ট্রল! সবার মানসিকতা এক নয়।কেউ মজাটাকে মজা হিসেবে নিতে পারে, কেউ মজাটাকে মজা হিসেবে নিতে না পারলেও হজম করতে পারে আর কেউ খুব সামান্যতেই ভেঙ্গে পড়ে।  আপনার করা কোন ট্রল দেখে যদি প্রতিপক্ষ দলের কোন আবেগী সাপোর্টার আত্মহত্যার মতো পথ বেছে নেয়, তখন আপনি পারবেন নিজেকে ক্ষমা করতে? আপনি কোন রকমে সামলে নিলেও আপনার বিবেক কখনো এই দুর্ঘটনা মুছে ফেলতে পারবে? তাহলে কেন এতো নোংরা ট্রল? কেন শুধু ট্রল নয়!

গো নিউজ২৪/এমআর

মতামত বিভাগের আরো খবর
মেয়ে ও অবৈধ সম্পর্কের ব্যাখ্যা দিলেন তসলিমা নাসরিন

মেয়ে ও অবৈধ সম্পর্কের ব্যাখ্যা দিলেন তসলিমা নাসরিন

নির্বাচনের আগে পরে

নির্বাচনের আগে পরে

তসলিমা নাসরিন বনাম মাসুদা ভাট্টি

তসলিমা নাসরিন বনাম মাসুদা ভাট্টি

মাসুদা ভাট্টি চরিত্রহীন না হয়, দুনিয়াতে চরিত্রহীন কে?

মাসুদা ভাট্টি চরিত্রহীন না হয়, দুনিয়াতে চরিত্রহীন কে?

একজন ব্যক্তি, একটি পদক্ষেপ, ক্ষমতা বিএনপির!

একজন ব্যক্তি, একটি পদক্ষেপ, ক্ষমতা বিএনপির!

সফল রাজনৈতিক নেতার প্রতিচ্ছবি ড. আব্দুস শহীদ এমপি

সফল রাজনৈতিক নেতার প্রতিচ্ছবি ড. আব্দুস শহীদ এমপি

Best Electronics AC mela