ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭

সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিনিধি প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০, ০৬:০২ পিএম আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০, ১২:০২ পিএম
সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের উদ্দেশে বলেছেন, জনগণের সেবা করাটাই আমাদের মূল লক্ষ্য। এছাড়া সরকারি প্রতিষ্ঠানে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা, অফিসিয়াল কাজের গতিশীলতা নিয়ে আসার জন‌্যই কর্মসম্পাদন চুক্তি করা হয়।

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) গণভবন থেকে মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর ২০২০-২১ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) সই এবং এপিএ ও শুদ্ধাচার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলনে। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভার্চুয়াল মাধ্যমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়রে সম্মলেন কক্ষে যুক্ত হয়ে এ অনুষ্ঠানে অংশ দেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “কর্মসম্পাদন চুক্তির মাধ‌্যমে আমরা কী করলাম, তার ফলাফল কী আছে সেটা দেখা। কতটুকু অর্জন করলাম, যে কাজ আমরা হাতে নিলাম সেটা কতটুকু করতে পারলাম। বঙ্গবন্ধু তার এক ভাষণে বলেছিলেন, ‘সরকারি কর্মচারীদের বেতন, সুযোগ-সুবিধা ও আরাম-আয়েশ সবকিছুই হয় সাধারণ মানুষের টাকায়’। যাদের টাকায় বেতন দেয়া হয় তাদেরকে কী দিলাম, কী দিতে পারলাম সেটাই মূল বিষয়।”

তিনি বলেন, ‘আমরা নির্বাচনের যে ওয়াদা দিই, ইশতেহারে যে কর্মসূচি ঘোষণা করি, তা কিন্তু আমরা ভুলে যাই না। প্রতিবছর বাজেট করার সময় আমরা আমাদের কর্মসূচিকে সামনে রেখে বাজেট করি। কিন্তু সময় তো আমাদের খুব কম। মাত্র পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচিত হয়ে আসি। এই ৫ বছরে কত দ্রুত উন্নতি করা যায় সেটাই আমাদের চিন্তায় থাকে। দ্বিতীয়বার যখন ক্ষমতায় আসি তখন আমরা চিন্তা করলাম, বার্ষিক কর্মসূচি সম্পাদনের মাধ্যমে আমাদের কী কী কাজ করতে হবে। আমরা সরকারি কর্মচারীদের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার জন্য এই কর্মসম্পাদন চুক্তি করি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মিলিটারি ডিক্টেটর ক্ষমতায় থাকলে তারা কখনও জবাবদিহি করে না। ডিক্টেটর অ্যাটিচিউডের (মনোভাব) কারণেই তারা মনে করে, তারা যাই করবে তাই ভালো। কিন্তু তাদের সেই কর্মের কুফল উপভোগ করে সাধারণ মানুষ। আর তাদের ক্ষমতার সুফল ভোগ করে তাদের আশেপাশে থেকে গড়ে ওঠা কিছু লোক। দেশের মানুষ অবহেলিত থাকে। সেই অবহেলা থেকে দেশের মানুষকে মুক্ত করা, জনগণের সেবা করা সেটাই আমাদের লক্ষ্য। সরকারি প্রতিষ্ঠানে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা, অফিসিয়াল কাজের গতিশীলতা নিয়ে আসা, সরকারি কর্মসম্পাদন ফলাফল নির্ভর করা, অর্থাৎ আমরা কী করলাম তার ফলাফল কী আছে, সেটা দেখা কতটুকু অর্জন করলাম।

জাতীয় বিভাগের আরো খবর
মাস্ক ব্যবহারে বাধ্য করতে আইন প্রয়োগ করবে সরকার

মাস্ক ব্যবহারে বাধ্য করতে আইন প্রয়োগ করবে সরকার

পদোন্নতির যৌক্তিক দাবি ৭ বছর ধরে ফাইলবন্দি

পদোন্নতির যৌক্তিক দাবি ৭ বছর ধরে ফাইলবন্দি

ঝুলন্ত তার আপাতত অপসারণ করা হচ্ছে না

ঝুলন্ত তার আপাতত অপসারণ করা হচ্ছে না

একটি ফুল কুঁড়িতেই শেষ হয়ে গেল, রাসেল আর ফুটতে পারেনি

একটি ফুল কুঁড়িতেই শেষ হয়ে গেল, রাসেল আর ফুটতে পারেনি

পুলিশের নতুন কৌশল

পুলিশের নতুন কৌশল

নির্বাচনে কোথাও কোনো অসুবিধার সৃষ্টি হয়নি: সিইসি

নির্বাচনে কোথাও কোনো অসুবিধার সৃষ্টি হয়নি: সিইসি