ঢাকা রবিবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১৩ মাঘ ১৪২৬

সাবেক প্রতিমন্ত্রী কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৪, ২০২০, ১০:৩৭ এএম
সাবেক প্রতিমন্ত্রী কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় সাবেক কৃষি প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

মঙ্গলবার সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের দণ্ড থেকে খালাস চেয়ে করা আপিল আবেদনের ওপর শুনানি শেষে আপিল বিভাগ এই রায় দেন।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগের বিচারপতির বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন।

বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন-বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আসা এটি নবম মামলা। আজ রায়ের মাধ্যমে এর চূড়ান্ত নিষ্পত্তি হলো।

এর আগে গত ৩ ডিসেম্বর খালাস চেয়ে কায়সারের করা আপিলের ওপর রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে ১৪ জানুয়ারি মামলার রায় ঘোষণার তারিখ নির্ধারণ করেছেন আদালত।

সেদিন আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তাকে সহযোগিতা করেন ডেপুর্টি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেব নাথ।

কায়সারের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এস এম মো. শাহজাহান। তার সঙ্গে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন ও ব্যারিস্টার তানভীর আহমেদ আল আমিন।

এর আগে গত ৩০ অক্টোবর প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে আপিল বিভাগের একই বেঞ্চে আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়।

২০১৫ সালের ১৯ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় সৈয়দ কায়সারের মৃত্যুদণ্ড থেকে খালাস চেয়ে আপিল আবেদন করা হয়। সৈয়দ কায়সারের পক্ষে অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন তুহিন আপিল আবেদনটি করেন। আপিলে খালাসের আরজিতে ৫৬টি যুক্তি তুলে ধরা হয়েছে। ৫০ পৃষ্ঠার মূল আপিলের সঙ্গে প্রয়োজনীয় নথি সংযুক্ত রয়েছে।

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর কায়সারকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল-২ এ রায় দেন।

তার বিরুদ্ধে একাত্তরে ১৫২ জনকে হত্যা-গণহত্যা, দুই নারীকে ধর্ষণ, পাঁচজনকে আটক, অপহরণ, নির্যাতন ও মুক্তিপণ আদায় এবং দুই শতাধিক বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগ, লুণ্ঠন ও ষড়যন্ত্রের ১৬টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়।

তার বিরুদ্ধে আনা ১৪টি অভিযোগেই প্রমাণিত হয়েছে। এরশাদ সরকারের কৃষি প্রতিমন্ত্রী কায়সার ২০১৩ সালের ২১ মে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন।

গো নিউজ২৪/আই

জাতীয় বিভাগের আরো খবর
নারী কাউন্সিলর প্রার্থীর অফিসে হামলা, পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি

নারী কাউন্সিলর প্রার্থীর অফিসে হামলা, পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি

‘বাংলাদেশ-চীন ভ্রমণ’ সাময়িক স্থগিত করার কথা ভাবছে সরকার

‘বাংলাদেশ-চীন ভ্রমণ’ সাময়িক স্থগিত করার কথা ভাবছে সরকার

নির্বাচনী প্রতিযোগিতায় সংঘর্ষ প্রত্যাশিত নয়: ব্রিটিশ হাইকমিশনার

নির্বাচনী প্রতিযোগিতায় সংঘর্ষ প্রত্যাশিত নয়: ব্রিটিশ হাইকমিশনার

ভোটকক্ষ থেকে সরাসরি সংবাদ সম্প্রচার করা যাবে না: ইসি সচিব

ভোটকক্ষ থেকে সরাসরি সংবাদ সম্প্রচার করা যাবে না: ইসি সচিব

শাহজালালে ২ হাজার যাত্রীর পরীক্ষা, মেলেনি করোনা ভাইরাস

শাহজালালে ২ হাজার যাত্রীর পরীক্ষা, মেলেনি করোনা ভাইরাস

পাচারের জন্য আনা ১৩ রোহিঙ্গা নারীকে রাজধানী থেকে উদ্ধার

পাচারের জন্য আনা ১৩ রোহিঙ্গা নারীকে রাজধানী থেকে উদ্ধার