ঢাকা সোমবার, ২৫ মে, ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

খুলনায় ডেঙ্গুতে স্কুলছাত্রসহ দুইজনের মৃত্যু


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: আগস্ট ৪, ২০১৯, ১১:৪৯ এএম
খুলনায় ডেঙ্গুতে স্কুলছাত্রসহ দুইজনের মৃত্যু

খুলনায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে স্কুলছাত্র ও এক বৃদ্ধা মারা গেছেন। রোববার সকাল ও শনিবার রাতে তারা মারা যান। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে খুলনায় এটাই প্রথম মৃত্যুর ঘটনা।

রোববার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে খুলনার একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মো. মঞ্জুর শেখ (১৫) নামে ওই স্কুলছাত্র মারা যায়।

অপরদিকে, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাত ১২টার দিকে মর্জিনা বেগম (৭০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়।

মঞ্জুর খুলনার রূপসা উপজেলার কাজদিয়া সরকারি কলেজিয়েট স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র। সে উপজেলার টিএসবি ইউনিয়নের উত্তর খাজাডাঙ্গা গ্রামের সবজি বিক্রেতা মো. বাবুল শেখের ছেলে।

মর্জিনা বেগম খুলনার দীঘলিয়া উপজেলার ব্রম্মগাতি গ্রামের ইসরাইল সরদারের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বেশ কয়েক দিন ধরে মঞ্জুর প্রচণ্ড জ্বরে ভুগছিল। সাধারণ জ্বর ভেবে পরিবারের সদস্যরা স্থানীয় চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন। কিন্তু কোনো উন্নতি না হওয়ায় শনিবার তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখান থেকে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় নিতে বলেন। কিন্তু অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় পরবর্তী সময় সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে সেখান থেকে ফেরত দেয়া হয়।

সেখান থেকে নেয়া হয় গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে ভর্তি করে কয়েক ব্যাগ রক্তও দেয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসাধীন রোববার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

অন্যদিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মর্জিনা বেগম (৬৫) মারা গেছেন। শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে তিনি মারা যান।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন মেডিসিন বিভাগের সহকারী রেজিস্টার ডা. পার্থ প্রতীম দেবনাথ।

গো নিউজ২৪/এমআর

জাতীয় বিভাগের আরো খবর
বঙ্গোপসাগরে জলোচ্ছ্বাসের সম্ভাবনা

বঙ্গোপসাগরে জলোচ্ছ্বাসের সম্ভাবনা

ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল রাজধানী

ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল রাজধানী

২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ১৯৭৫, মৃত্যু ছাড়াল ৫০০

২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ১৯৭৫, মৃত্যু ছাড়াল ৫০০

করোনাকালের ব্যতিক্রম ঈদ আজ

করোনাকালের ব্যতিক্রম ঈদ আজ

দেশবাসীকে ঘরে বসে ঈদ উদযাপনের আহ্বান

দেশবাসীকে ঘরে বসে ঈদ উদযাপনের আহ্বান

সাধারণ ছুটি আর বাড়ছে না!

সাধারণ ছুটি আর বাড়ছে না!