ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫

‘কী নিয়ে গর্ব করবে যদি তার বইমেলাই না থাকে?’


গো নিউজ২৪ | নিউজ ডেস্ক: প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৯, ১০:০৫ এএম
‘কী নিয়ে গর্ব করবে যদি তার বইমেলাই না থাকে?’

নিউজ ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় শুরু হয়েছে ৪৩তম আন্তর্জাতিক বইমেলা।  গত ৩১ জানুয়ারি মেলার উদ্বোধন করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তবে এবারও এ বইমেলার স্থান হয়নি কলকাতা শহরে। ঐতিহাসিক এ মেলা সরিয়ে নেয়া হয়েছে সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্কে। কলকাতার ময়দান থেকে বইমেলাকে সরিয়ে দেয়ায় এর তীব্র সমালোচনা করেছেন অনেকেই।

এ ব্যাপারে সরব হয়েছেন বাংলাদেশের বিতর্কিত ও ভারতে নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনও। শুক্রবার রাতে এ নিয়ে তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি।

তসলিমা নাসরিনের ফেসবুক স্ট্যাটাস

স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন, ‘কলকাতার ময়দান থেকে বইমেলাকে সরিয়ে দিয়ে বইমেলার সর্বনাশ করা হয়েছে। মানুষ আজকাল বই পড়ছে না, বাংলা বই তো আরও পড়ছে না, এমন সময় বইমেলাকে চোখের আড়াল করে দেয়া মানে সামান্য যেটুকু পড়ার উৎসাহ মানুষের ছিল, সেটুকুকেও কফিনে ঢুকিয়ে দেয়া।’

তিনি আরো লিখেছেন, ‘ময়দান আর্মিদের। আর্মিরা নাকি মনে করে বইমেলায় দূষণ হয় খুব, সে কারণে ময়দানে বইমেলা বন্ধ। আর্মিদের যা কিছু মনে করার অধিকার আছে। কিন্তু যারা আর্মি নয়, তাদের তো আর্মিদের জানিয়ে দিতে হবে যে, বইমেলা ময়দানেই হবে, কারণ বইমেলা ময়দানের। ময়দান কী নিয়ে গর্ব করবে যদি তার বইমেলাই না থাকে?’

গো নিউজ২৪/এমআর

 

 

সাহিত্য ও সংষ্কৃতি বিভাগের আরো খবর
নিজ গ্রামে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন কবি আল মাহমুদ

নিজ গ্রামে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন কবি আল মাহমুদ

ভালোবাসা দিবসে সঙ্গীকে খুশি করার গোপন টিপস

ভালোবাসা দিবসে সঙ্গীকে খুশি করার গোপন টিপস

আজ যে বসন্ত...

আজ যে বসন্ত...

বইমেলায় জাহিদ আকবরের ‘শিকার’

বইমেলায় জাহিদ আকবরের ‘শিকার’

বইমেলায় মাহতাব হোসেনের ‘শর্মিলা’ এবং ‘রৌদ্র বসন্ত’

বইমেলায় মাহতাব হোসেনের ‘শর্মিলা’ এবং ‘রৌদ্র বসন্ত’

‘কী নিয়ে গর্ব করবে যদি তার বইমেলাই না থাকে?’

‘কী নিয়ে গর্ব করবে যদি তার বইমেলাই না থাকে?’