ঢাকা রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৪
Beta Version

চুল দ্রুত লম্বা করার ৫ পন্থা


গো নিউজ২৪ | লাইফস্টাইল প্রতিবেদক প্রকাশিত: মার্চ ১৯, ২০১৭, ০৭:২৮ পিএম
চুল দ্রুত লম্বা করার ৫ পন্থা

নারীর সৌন্দর্যের প্রতীক হল চুল। মেয়েদের লম্বা, সুন্দর ও ঘন চুল সকলকে আকৃষ্ট করে তা ছেলে বা মেয়ে যেই হোক। কিন্তু আবহাওয়ার কারণে বা শারীরিক বিভিন্ন সমস্যার কারণে অনেকের চুল লম্বা ও ঘন হয় না। আপনার যদি চুল পড়ার সমস্যা থেকে থাকে, আর আপনি যদি এ থেকে মুক্তির উপায় খুঁজে থাকেন। তাহলে নিম্নলিখিত উপায়গুলো অবলম্বন করতে পারেন।

(ক) চুল ছাঁটুন: 
চার থেকে আট মাস পরপর অবশ্যই আপনার চুল ছাঁটুন। এতে একটি আদর্শ উপায়ে আপনার চুল দ্রুত বৃদ্ধি পাবে। যেহেতু আপনার চুল শিকড় থেকে বৃদ্ধি পায়, কিন্তু আপনার চুলের শেষ প্রান্ত বিভক্ত হবার কারনে চুল রুক্ষ ও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। চুল ছাঁটার কারনে চুলের শেষ প্রান্তের ফাটা অংশ কেটে ফেলা যায়। এর ফলে আপনার চুল ভালভাবে অক্সিজেন নিয়ে শ্বাস-প্রশ্বাস চালাতে পারে। এতে চুল সুস্থ থাকে ও চুলের বৃদ্ধি নিশ্চিত করে।

(খ) গরম তেলের ম্যাসেজ: 
প্রতি সপ্তাহে অন্তত একবার চুলে গরম তেলের ম্যাসেজ করা অত্যন্ত উপকারী। গরম তেলের ম্যাসেজ চুলের স্বাস্থ্যের জন্য ভাল। এর ফলে চুল খুব দ্রুত বৃদ্ধি পায়। চুল পড়ার সমস্যা দূর করে। মাথার স্ক্যাল্পে জলপাই এর তেল, নারিকেলের তেল, ল্যাভেন্ডার এর তেল ও জজবার তেল গরম করে ম্যাসেজ করতে হবে। এসকল তেল চুলের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে এবং চুলে ভলিউমের সৃষ্টি হয়।

(গ) চুলের জন্য ভিটামিন ও প্রোটিন: 
শুধুমাত্র একটি ভিটামিন ক্যাপসুল আপনার মাথায় ম্যাসেজ করলে বা একটি ডিম মাথায় মেখে রাখলে চুলের স্বাস্থ্যের অনেক উপকার হয়। ডিমের কুসুমের ফলে চুলের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়। এছাড়াও এর ফলে চুলের কোন ক্ষতি হয়ে থাকলে তা থেকে আরোগ্য লাভ করা যায়। ভিটামিন ও প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার ফলে চুলের শিকড় আরও শক্ত ও মজবুত হয়।

(ঘ) ঘুমানোর আগে চুল ব্রাশ করুন:
রাতে ঘুমাতে যাবার পূর্বে অবশ্যই চুল ব্রাশ করুন। আর চুল যেন কমপক্ষে ৫০ বার ব্রাশ করা হয় তা নিশ্চিত করুন। চুল ব্রাশ করার ফলে চুলের ময়লা দূর হয় এবং চুলের গোঁড়া শক্তিশালী হয়। চুল পড়ার নানাবিধ সমস্যাও দূর হয়।

(ঙ) ডিমের মাক্স: 
একটা ডিমের সাদা অংশের সঙ্গে এক চা চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। এক সঙ্গে ঘন করে ফেটিয়ে নিন। স্ক্যাল্প ও চুলে ভাল করে লাগিয়ে নিন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট পর প্রথমে ঠান্ডা জলে ধুয়ে তারপর শ্যাম্পু করে নিন এতে চুল ঘন হবে। একটা ডিমের কুসুমের সঙ্গে এক টেবিল চামচ মধু, এক টেবিল চামচ দই, আধ চা চামচ নারকেল তেল বা আমন্ড তেল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাক চুলে ভাল করে লাগান। দু’ ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক লাগালে চুল নরম হবে।  তথ্যসূত্র: টাইমস অফ ইন্ডিয়া।

গোনিউজ২৪/এম

লাইফস্টাইল বিভাগের আরো খবর
বন্ধ্যতা নিয়ে কিছু কথা

বন্ধ্যতা নিয়ে কিছু কথা

যে কারণে ছেলেরা ডিমের কুসুম খাবেন

যে কারণে ছেলেরা ডিমের কুসুম খাবেন

প্রাকৃতিক উপায়ে দূর করুন উকুন

প্রাকৃতিক উপায়ে দূর করুন উকুন

আপনার প্রেমের ভাগ্য ঠিক করবে গোলাপের রং!

আপনার প্রেমের ভাগ্য ঠিক করবে গোলাপের রং!

গোসলের সেরা সময় কখন!

গোসলের সেরা সময় কখন!

লজ্জার কিছু নেই, আপনাকে এগুলো জানতেই হবে

লজ্জার কিছু নেই, আপনাকে এগুলো জানতেই হবে

Hitachi Festival