ঢাকা শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২১, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৮

জাতীয় পতাকার মাপ ও উত্তোলনের সঠিক নিয়ম


গো নিউজ২৪ | নিউজ ডেস্ক প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১১, ২০২০, ০৯:৪০ এএম আপডেট: ডিসেম্বর ১১, ২০২০, ০৯:৪৪ এএম
জাতীয় পতাকার মাপ ও উত্তোলনের সঠিক নিয়ম

জাতীয় পতাকার মাপ ও উত্তোলনে অনেক প্রতিষ্ঠান নিয়ম অনুসরণ করে না। এজন্য জাতীয় পতাকা মাপ ও উত্তোলনে সঠিক নিয়ম অনুসরণের আহ্বান জানানো হয়েছে।

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উদযাপন কর্মসূচির অংশ হিসেবে সব সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি ভবন, বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশের কূটনৈতিক মিশন এবং কনস্যুলার অফিসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে।

সরকারি বিবরণীতে বলা হয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা বিধিমালা, ১৯৭২ (সংশোধিত ২০১০)’ এর বিধি ৩ অনুযায়ী ‘জাতীয় পতাকা’ গাঢ় সবুজ রঙের হবে এবং ১০:৬ দৈর্ঘ্য ও প্রস্থের আয়তক্ষেত্রাকার সবুজ রঙের মাঝখানে একটি লাল বৃত্ত থাকবে। লাল বৃত্তটি পতাকার দৈঘ্যের এক-পঞ্চমাংশ ব্যাসার্ধ বিশিষ্ট হবে। পতাকার দৈঘ্যের নয়-বিংশতিতম অংশ হতে অঙ্কিত উল্লম্ব রেখা এবং পতাকার প্রস্থের মধ্যবর্তী বিন্দু হতে অঙ্কিত আনুভূমিক রেখার পরস্পর ছেদ বিন্দুতে বৃত্তের কেন্দ্র বিন্দু হবে।

তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, জাতীয় পতাকার সঠিক মাপ ও যথাযথ নিয়ম অনুসরণ না করে অনেকে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে থাকেন, যা জাতীয় পতাকার অবমাননার সামিল।

আসুন জেনে নেই জাতীয় পতাকার সঠিক মাপ এবং ব্যবহারের নিয়ম।

১. বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার গাঢ় সবুজ বর্ণের আয়তক্ষেত্রের মাঝখানে একটা ভরাট রক্তিম বৃত্ত নিয়ে এটা তৈরি। এর দৈর্ঘ্য ও প্রস্থের অনুপাত ১০:৬। পতাকার মাঝখানের লাল বৃত্তটির ব্যাসার্ধ হবে পতাকার দৈর্ঘ্যরে ৫ ভাগের একভাগ।

২. পতাকা টানানোর ক্ষেত্রে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যাতে এটি এমন জায়গায় টানানো না হয় যাতে এর মান অক্ষুণ্ণ হয়।

৩. পতাকা দিয়ে মোটরযান, রেলগাড়ি অথবা নৌযানের খোল, সম্মুখভাগ অথবা পেছনের অংশ কোনো অবস্থাতেই ঢেকে দেয়া যাবে না

৪. যেসব ক্ষেত্রে কেবলমাত্র দুটি পতাকা অথবা রঙিন পতাকা উত্তোলন করা হয়, সেক্ষেত্রে ‘বাংলাদেশের পতাকা’ ভবনের ডানদিকে উত্তোলন করা হবে।

৫. বাংলাদেশের পতাকা’র উপরে অন্য কোনো পতাকা বা রঙিন পতাকা উত্তোলন করা যাবে না।

৬. যে ক্ষেত্রে অন্য কোনো দেশের সহিত ‘বাংলাদেশের পতাকা’ একত্রে উত্তোলন করা হয়, সেক্ষেত্রে ‘বাংলাদেশের পতাকা’ প্রথমে উত্তোলন করতে হবে এবং নামানোর সময় সবশেষে নামাতে হবে।

৭. যে ক্ষেত্রে ‘বাংলাদেশের পতাকা’ অর্ধনমিত থাকে, সেক্ষেত্রে প্রথমে সর্বোচ্চ চূড়া পর্যন্ত উত্তোলন করা হবে এবং অতঃপর নামিয়ে অর্ধনমিত অবস্থায় আনা হবে। ওই দিবসে পতাকা নামানোর সময় পুনরায় উপরিভাগ পর্যন্ত উত্তোলন করা হবে, অতঃপর নামাতে হবে।

৮. ‘পতাকা’ কোনো ব্যক্তি বা জড় বস্তুর দিকে নিম্নমুখী করা যাবে না।

৯. তাকা’ কখনই তার নিচের কোনো বস্তু যেমন- পানি বা কোনো পণ্যদ্রব্য স্পর্শ করবে না।

১০. ‘পতাকা’ কখনই আনুভূমিকভাবে বা সমতলে বহন করা যাবে না, সর্বদাই ঊর্ধ্বে এবং মুক্তভাবে থাকবে।

১১. পতাকাকে কখনও পদদলিত করা যাবে না।

১২. কোনো কিছু গ্রহণ, ধারণ, বহন বা বিলি করার জন্য ‘পতাকা’ ব্যবহার করা যাবে না।

১৩. ‘পতাকা’ দ্রুত উত্তোলন করতে হবে এবং সসম্মানের সঙ্গে নামাতে হবে।

১৪. পতাকার অবস্থা যদি এমন হয় যে, তা আর ব্যবহার করা যাবে না, নষ্ট হয়ে গেছে, সেক্ষেত্রে তা মর্যাদাপূর্ণভাবে, বিশেষ করে সমাধিস্থ করে নিষ্পত্তি করতে হবে।

ফিচার বিভাগের আরো খবর
গবেষণা বলছে মোটা ছেলেরাই মেয়েদের পছন্দের শীর্ষে

গবেষণা বলছে মোটা ছেলেরাই মেয়েদের পছন্দের শীর্ষে

আসল ও নকল পণ্যের পার্থক্য বুঝবেন যেভাবে

আসল ও নকল পণ্যের পার্থক্য বুঝবেন যেভাবে

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট সিরিয়াল কিলার

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট সিরিয়াল কিলার

চালানোর সময় ঘুমিয়ে গেলেও গাড়ি চলবে!

চালানোর সময় ঘুমিয়ে গেলেও গাড়ি চলবে!

১৯৭১ আর ২০২১ সালের ক্যালেন্ডার হুবহু এক!

১৯৭১ আর ২০২১ সালের ক্যালেন্ডার হুবহু এক!

নতুন নিয়মে এনআইডির ভূল সংশোধন করবেন যেভাবে

নতুন নিয়মে এনআইডির ভূল সংশোধন করবেন যেভাবে