ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭

যার লক্ষণ-উপসর্গ নেই তাকে করোনা আক্রান্ত ধরছি না: ফ্লোরা


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিনিধি প্রকাশিত: অক্টোবর ১৩, ২০২০, ০৯:০৭ এএম
যার লক্ষণ-উপসর্গ নেই তাকে করোনা আক্রান্ত ধরছি না: ফ্লোরা

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেছেন, করোনার সংক্রমণ থেকে রেহাই পেতে চাইলে সবাইকে মাস্ক পরতে হবে। তিনি বলেন, যখন কারও লক্ষণ উপসর্গ থাকে, তাকেই কেবল শনাক্ত করে আমরা আইসোলেশনে নিচ্ছি। কিন্তু যার লক্ষণ ও উপসর্গ নেই, তাকে আক্রান্ত বলে ধরছি না। তাই কে আক্রান্ত আর কে আক্রান্ত নন, সেটা না ধরে প্রত্যেকের মাস্ক পরা উচিত এবং সঠিকভাবে পরা উচিত।

সোমবার ( ১২ অক্টোবর) ‘করোনার সংক্রমণ পরিস্থিতি ও এর জিন রূপান্তর’ শীর্ষক রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) এবং আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র বাংলাদেশ (আইসিডিডিআর,বি)-এর এক যৌথ গবেষণার ফলাফল অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

অধ্যাপক মীরজাদী সেব্রিনা বলেন,  আমাদের দেশে সব বয়সের মানুষই কমবেশি আক্রান্ত হয়েছেন। করোনায় আমাদের দেশে বৃদ্ধ বয়সের মানুষের মৃত্যুও ইউরোপিয়ান দেশগুলোর তুলনায় কম। যে কারণে মৃত্যুহারও কিছুটা কম। যদিও বয়স হিসেবে বাংলাদেশেও বৃদ্ধরাই মারা গেছেন বেশি।

এই গবেষণায় বস্তি এলাকা পরে যুক্ত করা হয়েছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, কারণ, অনেকেরই ধারণা ছিল বস্তি এলাকায় কম সংক্রমণ হয়েছে বা নেই। কিন্তু পরে যুক্ত করে দেখা গেছে, বস্তি এলাকাতেও আক্রান্ত রয়েছেন। তবে সেটা তুলনামূলকভাবে কম হতে পারে— এই গবেষণার নমুনার হিসেবে। কিন্তু সেটা হলেও এটাকে কেয়ারফুলি নেওয়া উচিত।’ তবে যেটা বলতে চাই, ‘নো ওয়ান ইজ প্রটেক্টেড।

তিনি বলেন, কারও মধ্যেই আগে থেকে কোনও প্রটেকশন নেই। যারা আক্রান্ত হননি তার একটা কারণ হতে পারে, তারা এক্সপোজড হননি। অথবা তার আশেপাশে কোনও আক্রান্ত ব্যক্তি ছিল না, অথবা যেসব স্বাস্থ্যবিধির কথা বলা হচ্ছে সেগুলো মেনে চলেছেন।

এখনও পর্যন্ত ভ্যাকসিন কোথাও তৈরি হয়নি। কোথাও কোথাও তৃতীয় ধাপে রয়েছে জানিয়ে অধ্যাপক সেব্রিনা বলেন, সেগুলো কবে ভ্যাকসিন হিসেবে আসবে সেটাও সময়সাপেক্ষ বিষয়। তাই নিজেকে রক্ষার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে মাস্ক ও সামাজিক দূরত্ব।কারণ, গবেষণায় পাওয়া গেছে যারা পজিটিভ হয়েছেন, তাদের মধ্যে শতকরা ৮০ ভাগেরই কোনও লক্ষণ-উপসর্গ নেই। তাই কেউই জানি না, কে আক্রান্ত আর কে আক্রান্ত নন।

ডা. সেব্রিনা বলেন, আর যখন কারও লক্ষণ-উপসর্গ থাকে তাকেই কেবল শনাক্ত করে আমরা আইসোলেশনে নিচ্ছি। কিন্তু যার লক্ষণ-উপসর্গ নেই, তাকে আক্রান্ত বলে ধরছি না। তাই কে আক্রান্ত আর কে আক্রান্ত নন—সেটা না ধরে প্রত্যেকের মাস্ক পরা উচিত এবং সঠিকভাবে পরা উচিত।

তিনি আরও বলেন,কেউ যদি করোনায় আক্রান্ত না হতে চাই, তাহলে একমাত্র প্রটেকশন দিচ্ছে এবং সংক্রমণের আশঙ্কা কমাবে, যদি এর সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব এবং বারবার হাত ধোয়ার অভ্যাস করে নেই, তাহলেই মাস্ক প্রটেক্ট করতে পারে।

হার্ড ইমিনিউটি হবে বা হয়েছে, এখনও আমাদের অনেক কিছু জানতে হবে। অনেক প্রশ্নের উত্তর অজানা। আমরা এখনও কোভিড-১৯ সম্পর্কে কিছুই জানি না’, বলেন অধ্যাপক সেব্রিনা। উদাহরণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন, এতদিন জানতাম লক্ষণ-উপসর্গহীন আক্রান্ত ব্যক্তি থেকে করোনা ছড়ায় না। কিন্তু এখন জানা যাচ্ছে, তাদের থেকেও করোনা ছড়ায়। নতুন নতুন তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। গবেষণা থেকে নতুন বিষয় জানতে পারছি। তাই অত্যাবশ্যকীয় হলেই কেবল বাড়ি থেকে বেরুতে হবে। জনসমাগমে ভিড় করা যাবে না। কিন্তু সম্প্রতি করোনা নিয়ে মানুষের ভয় এবং প্রস্তুতি হারিয়ে যাবার মতো বিষয় দেখছি। আমি অনুরোধ করছি, সবাইকে মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে। কারন, এগুলোই কেবলমাত্র দ্বিতীয় পর্যায়ের সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে পারে। দ্বিতীয় পর্যায়ের সংক্রমণ আসবে কী আসবে না, তার আগে প্রয়োজন দ্বিতীয় পর্যায়ের সংক্রমণ যেন না আসে, সে বিষয়ে প্রস্তুতি নেওয়া। তাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার প্রতি জোর দিতে হবে।

তিনি বলেন, জনগণের অংশগ্রহণ ছাড়া কখনোই কোনও রোগ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব নয়। সুতরাং, বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের যদি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কার্যক্রম নিশ্চিত করতে না পারি, তাহলে কোভিড নিয়ন্ত্রণ আমাদের জন্য কষ্টসাধ্য হবে।

এক্সক্লুসিভ বিভাগের আরো খবর
বিশ্বসেরা ১০ বিশ্ববিদ্যালয়

বিশ্বসেরা ১০ বিশ্ববিদ্যালয়

শেখ হাসিনার ৫ ম্যাজিকে দক্ষিণ এশিয়ায় সেরা বাংলাদেশ

শেখ হাসিনার ৫ ম্যাজিকে দক্ষিণ এশিয়ায় সেরা বাংলাদেশ

এক বিরল সম্মাননা, কোমায় থেকেই পেলেন পদোন্নতি

এক বিরল সম্মাননা, কোমায় থেকেই পেলেন পদোন্নতি

যার লক্ষণ-উপসর্গ নেই তাকে করোনা আক্রান্ত ধরছি না: ফ্লোরা

যার লক্ষণ-উপসর্গ নেই তাকে করোনা আক্রান্ত ধরছি না: ফ্লোরা

টাকা-মোবাইলের স্ক্রিনে করোনা ভাইরাস জীবিত থাকে ২৮ দিন

টাকা-মোবাইলের স্ক্রিনে করোনা ভাইরাস জীবিত থাকে ২৮ দিন

শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেল ডব্লিউএফপি

শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেল ডব্লিউএফপি