ঢাকা শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬

১১ বছরেও চালু হলো না সরকারি স্যালাইন ফ্যাক্টরিটি


গো নিউজ২৪ | জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহঃ প্রকাশিত: আগস্ট ২০, ২০১৯, ০৮:৪৫ পিএম আপডেট: আগস্ট ২০, ২০১৯, ০৮:৪৬ পিএম
১১ বছরেও চালু হলো না সরকারি স্যালাইন ফ্যাক্টরিটি

দীর্ঘ ১১ বছর পেরিয়ে গেলেও চালু করা গেল না কোটি টাকা ব্যয়ে ঝিনাইদহে নির্মিত সরকারি স্যালাইন তৈরি ফ্যাক্টরি। বছরের পর বছর অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে থেকে অবকাঠামো নষ্ট হচ্ছে। এমনকি ভবনটি পাহারা দেবার মতোও কেই নেই।

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, ঝিনাইদহ ওআরএস স্যালাইন ফ্যাক্টরি নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ফ্যাক্টরিটি নির্মাণ করে স্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তর। ২০০৫ সালের ২২ অক্টোবর নির্মাণ কাজ শুরু হয়ে শেষ হয় ২০০৮ সালের ২১ আগস্ট। মোট ব্যয় হয় ৯৮ লাখ ৩৪ হাজার ১৮৯ টাকা। নির্মাণের পর এভাবেই পড়ে আছে। যন্ত্রপাতি সরবরাহ ও লোকবল নিয়োগ করা হয়নি। ১১ বছরেও সৃষ্টি করা হয়নি পদ। কবে এটি চালু হবে তা কেউ বলতে পারে না। 

প্রায় কোটি টাকা ব্যায় করে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। কিন্তু চালু করার জন্য কারও কোন মাথা ব্যাথা নেই। এ স্যালাইন ফ্যাক্টরি নির্মাণের উদ্দেশ্য ছিল, উৎপাদিত স্যালাইন ঝিনাইদহ জেলাসহ আশে পাশের জেলায় সরকারি হাসপাতাল এবং স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে সরবরাহ করা। এতে অত্র এলাকার দরিদ্র মানুষ উপকৃত হতো। বর্তমানে অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে থেকে অবকাঠামো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। 

সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম জানান, তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পর স্যালাইন ফ্যাক্টরিটি চালুর জন্য পদ সৃষ্টি, লোকবল নিয়োগ ও যন্ত্রপাতি সরবরাহের জন্য ঢাকার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে চিঠি লিখেছেন। আগের দায়িত্ব থাকা সিভিল সার্জনরাও ফ্যাক্টরিটি চালু করার জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে চিঠি লিখেছেন। কিন্তু এত দিনেও কাজের কাজ কিছু হয়নি।

গো নিউজ২৪/আই

এক্সক্লুসিভ বিভাগের আরো খবর
আতঙ্কে ভিনদেশি ‘ক্যাসিনো গার্লরা

আতঙ্কে ভিনদেশি ‘ক্যাসিনো গার্লরা

ভিসির একদিনের চায়ের বিল ৪০ হাজার টাকা!

ভিসির একদিনের চায়ের বিল ৪০ হাজার টাকা!

৫০ রাঘব বোয়ালের নাম বলেছেন ‘ক্যাসিনো খালেদ’

৫০ রাঘব বোয়ালের নাম বলেছেন ‘ক্যাসিনো খালেদ’

র‌্যাব হেডকোয়ার্টারের ৫০০ কোটি টাকার কাজ পেয়েছেন শামীম!

র‌্যাব হেডকোয়ার্টারের ৫০০ কোটি টাকার কাজ পেয়েছেন শামীম!

ধন্যবাদ জানাতে ঢাকায় আসছেন মিন্নি

ধন্যবাদ জানাতে ঢাকায় আসছেন মিন্নি

বালিশকাণ্ডের ‘হেড মাস্টার’ জি কে শামীম

বালিশকাণ্ডের ‘হেড মাস্টার’ জি কে শামীম