ঢাকা বুধবার, ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

উৎফুল্ল ভারতীয় যুবকরা, গুগল সার্চে শীর্ষে ‘কাশ্মীরি তরুণী’


গো নিউজ২৪ | নিউজ ডেস্ক: প্রকাশিত: আগস্ট ৮, ২০১৯, ০৩:৪৯ পিএম আপডেট: আগস্ট ৮, ২০১৯, ০৯:৪৯ এএম
উৎফুল্ল ভারতীয় যুবকরা, গুগল সার্চে শীর্ষে ‘কাশ্মীরি তরুণী’

কাশ্মীরিদের বিশেষ অধিকার সংবলিত সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের পর গুগল সার্চে এক নম্বরে উঠে এসেছে কাশ্মীরের তরুণীরা।  মূলত দুটি কি-ওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করা হচ্ছে। সেখানে রয়েছে ‘কাশ্মীরি গার্ল’ ও ‘ম্যারি কাশ্মীরি গার্ল’।

৩৭০ ধারা বিলোপের সুবিধা সম্পর্কে বলতে গিয়ে উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক বিক্রম সিং বলেছিলেন, দলের কর্মীরা উৎফুল্ল, বিশেষ করে যারা অবিবাহিত। এবার ফর্সা কাশ্মীরি মেয়েদের সঙ্গে তাদের বিয়ে দেওয়া যাবে।

এই মন্তব্যের জন্য রীতিমতো সমালোচিত হতে হয়েছে বিক্রম সিংকে। কিন্তু গুগল বলছে, একা বিক্রমকে দোষ দিয়ে লাভ নেই। গোটা দেশেই এখন সবচেয়ে বেশি আলোচনা হচ্ছে কাশ্মীরি মেয়েদের নিয়েই। দেশের বিভিন্ন প্রান্তের অবিবাহিত পুরুষরা কাশ্মীরি মেয়েদেরই নিজেদের জীবনসঙ্গী হিসেবে পাওয়ার স্বপ্ন দেখছেন।

গুগল সার্চের এই প্রবণতা বলছে, ৩৭০ ধারা বিলোপের পর কাশ্মীরি মেয়েদের সহজলভ্য ভাবতে শুরু করেছেন অনেকেই। তাদের ধারণা, ৩৭০ ধারা চালু থাকার জন্য কাশ্মীরি মেয়েদের অন্য রাজ্যের পুরুষদের বিয়ে করার অধিকার ছিল না। সেটা আদতে সত্যি নয়, আগেও কাশ্মীরি মেয়েরা অন্য রাজ্যের পুরুষদের বিয়ে করতে পারত। কিন্তু সেক্ষেত্রে মুশকিল ছিল, অন্য রাজ্যে বিয়ে করলে কাশ্মীরি মেয়েদের নাগরিকত্ব হারাতে হত, একই সঙ্গে বাবা-মায়ের সম্পত্তির ওপর তাদের অধিকারও থাকত না। কিন্তু, এখন আর সেসব বাধা নেই। একবার কাশ্মীরি মেয়েকে বিয়ে করতে পারলেই রাজত্বসহ রাজকন্যার হাতছানি। আর তাতেই মজেছেন নেটিজেনরা।

গো নিউজ২৪/আই

এক্সক্লুসিভ বিভাগের আরো খবর
১১ বছরেও চালু হলো না সরকারি স্যালাইন ফ্যাক্টরিটি

১১ বছরেও চালু হলো না সরকারি স্যালাইন ফ্যাক্টরিটি

মিস্টার ওয়াল্ড হতে ভোট চাইলেন বাংলাদেশের ফাহিম

মিস্টার ওয়াল্ড হতে ভোট চাইলেন বাংলাদেশের ফাহিম

এমপি না হয়েও ৩ শর্তে শুল্কমুক্ত গাড়ির সুবিধা পেলেন মুহিত

এমপি না হয়েও ৩ শর্তে শুল্কমুক্ত গাড়ির সুবিধা পেলেন মুহিত

নবজাতককে নিয়ে টানাটানি করছিল তিনটি কুকুর

নবজাতককে নিয়ে টানাটানি করছিল তিনটি কুকুর

আদালতে ক্ষমা চাইলেন ভোলার এসপি

আদালতে ক্ষমা চাইলেন ভোলার এসপি

‘বন্ধুর সাথে বন্ধুর পথ, পাড়ি দেব হোক শপথ’

‘বন্ধুর সাথে বন্ধুর পথ, পাড়ি দেব হোক শপথ’