ঢাকা মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট, ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭

প্রকাশ্যে নতুন ভিডিও, সন্দেহের তীর মিন্নির দিকে


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: জুলাই ৭, ২০১৯, ০৩:৫৭ পিএম আপডেট: জুলাই ৮, ২০১৯, ১০:১৭ পিএম
প্রকাশ্যে নতুন ভিডিও, সন্দেহের তীর মিন্নির দিকে

নতুন একটি সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, বরগুনায় শাহনেওয়াজ রিফাত শরীফকে কলেজ থেকে ধরে নিয়ে যাওয়ার সময় বেশ স্বাভাবিকভাবে খুনিদের পেছনে পেছনে হেটে যাচ্ছেন আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি।

ভিডিওটি প্রকাশের পর বেশ আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে এবং বিষয়টি নিয়ে মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে পুলিশ। মিন্নি রিফাত হত্যা মামলার এক নম্বর সাক্ষী।

মিন্নি বর্তমানে পুলিশি নিরাপত্তায় বরগুনায় তার বাবার বাসায় অবস্থান করছেন।

শনিবার বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে একটি সিসিটিভি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেখা গেছে। ভিডিওটি ৯ মিনিট ৩ সেকেন্ডের। ভিডিও ফুটেজটির ৫ মিনিট ৩৬ সেকেন্ডে দেখা গেছে, নয়ন বন্ড, রিফাত ফরাজীসহ ১০-১২ জন রিফাতকে মারধর করতে করতে বরগুনা সরকারি কলেজ থেকে বের হচ্ছে। এদের মধ্যে একজন পেছন থেকে রিফাতকে ধরে রেখেছে। বাকি দুজন দুই হাত ধরেছে। ৫ মিনিট ৪৩ সেকেন্ডের ফুটেজে মিন্নিকে দেখা যায়, তার বাম হাতে একটি পার্স ছিল। সে পারস হাতে স্বাভাবিকভাবে হাঁটছিল। একবার ডানেও তাকিয়েছেন কলেজের দিকে।

৫ মিনিট ৪৯ সেকেন্ডে যখন নয়নের সঙ্গীরা রিফাতের মাথায় হাত দিয়ে আঘাত করেন তখনও স্বাভাবিক ছিলেন মিন্নি। ৫ মিনিট ৫৫ সেকেন্ডে যখন সব বন্ধুরা একসঙ্গে রিফাতের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন তখন প্রথমবারের মতো দৌড়ে যান মিন্নি। প্রতিরোধের চেষ্টা করেন। তখন দা বের করে কোপানো শুরু হয়। পেছন থেকে মিন্নিকে প্রতিরোধ করতে দেখা যায়।

এ ঘটনার পর নয়নরা যখন পালিয়ে যায় তখন একজন মিন্নিকে তার পার্সটি মাটি থেকে হাতে তুলে দেন। মিন্নি স্বাভাবিকভাবে সামনের দিকে হাঁটতে থাকেন। এ ঘটনার ৮ মিনিট পর একটি মোটরসাইকেলে ঘটনাস্থলে আসেন পুলিশের দুই কর্মকর্তা।

ভিডিওটির পর নতুন করে আসে মিন্নির সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি। মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে জানতে চাইলে বরগুনার পুলিশ সুপার (এসপি) মারুফ হোসেন বলেন, তদন্ত স্বচ্ছ ও সাবলীল করতে যা যা প্রয়োজন তাই করা হবে। সে এ মামলার একজন সাক্ষী, তদন্তের স্বার্থে একবার নয় প্রয়োজনে ১০ বার তার সঙ্গে কথা বলা হবে।

পুলিশের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, হত্যাকাণ্ডের পরদিন থেকে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বললেও পুলিশের কোনো কর্মকর্তার সঙ্গে ‘কো-অপারেট’ করছেন না মিন্নি। তার বাড়িতে গেলে সে ‘স্বামীর দুঃখে কাতর’ বলে পুলিশের সঙ্গে খুব বেশি কথা বলেনি। তবে তাকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

গো নিউজ২৪/আই
এক্সক্লুসিভ বিভাগের আরো খবর
করোনার ভ্যাকসিন প্রথমে যারা পাবেন

করোনার ভ্যাকসিন প্রথমে যারা পাবেন

দ্বিতীয়বার করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি যাদের

দ্বিতীয়বার করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি যাদের

পানি দিয়ে করোনাভাইরাস সম্পূর্ণভাবে নিশ্চিহ্ন করে দেয়া যায়

পানি দিয়ে করোনাভাইরাস সম্পূর্ণভাবে নিশ্চিহ্ন করে দেয়া যায়

প্লিজ কেউ আমার আম্মুকে বাঁচান, অতপর...

প্লিজ কেউ আমার আম্মুকে বাঁচান, অতপর...

দেশে করোনার স্থিতিশীল, আগস্টেই আসছে দ্বিতীয় ঢেউ!

দেশে করোনার স্থিতিশীল, আগস্টেই আসছে দ্বিতীয় ঢেউ!

পশ্চিমা গণমাধ্যমে বাংলাদেশি পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের প্রশংসা

পশ্চিমা গণমাধ্যমে বাংলাদেশি পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের প্রশংসা