ঢাকা শুক্রবার, ০৫ মার্চ, ২০২১, ২১ ফাল্গুন ১৪২৭

এইচএসসির ফল যেভাবে জানা যাবে


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৯, ২০২১, ০২:৫২ পিএম আপডেট: জানুয়ারি ২৯, ২০২১, ০৮:৫২ এএম
এইচএসসির ফল যেভাবে জানা যাবে

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বাতিল হওয়া ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল আগামী শনিবার (৩০ জানুয়ারি) প্রকাশ করা হবে। রাজধানী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে সকাল সাড়ে ১০টায় ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে।

বিশেষ পদ্ধতিতে মূল্যায়নে তৈরি হওয়ার এবারের ফলাফল অন্যান্য বছরের মতো পরীক্ষার কেন্দ্র বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠানো হবে না। যারা ইতোমধ্যে প্রি-রেজিস্ট্রেশন করেছেন তাদের মোবাইলে ফলাফল পাঠিয়ে দেওয়া হবে। এখনও যারা করেনি, ফল প্রকাশের আগ পর্যন্ত তারাও প্রি-রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে। এছাড়াও টেলিটকসহ ১১টি শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে একসঙ্গে প্রকাশ করা হবে এ ফল।

এদিকে ফল প্রকাশের দিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বা পরীক্ষার কেন্দ্রে না যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে শিক্ষাবোর্ড। বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) শিক্ষা বোর্ড থেকে এ ধরনের নির্দেশনা জারি করা হয়।

ফল পেতে যা করতে হবে

ফল ঘরে বসে পেতে গত ৭ জানুয়ারি টেলিটক এক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানায়, ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষার ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। যারা প্রি-রেজিস্ট্রেশন করবে তারা ফল প্রকাশের দিন ঘরে বসেই তা সংগ্রহ করতে পারবে। এজন্য রেজিস্ট্রেশন করতে হবে মোবাইলের ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে HSC লিখে স্পেস দিয়ে শিক্ষা বোর্ডের নাম, রোল নাম্বার স্পেস দিয়ে ২০২০ লিখে 16222 নম্বরে পাঠিয়ে দিতে হবে। যেমন HSC< >Board name (DHK) <> Roll<>2020 টাইপ করে 16222 নম্বরে পাঠাতে হবে।

ফলাফল প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই প্রি-রেজিস্ট্রেশন করা পরীক্ষার্থীদের মোবাইল নম্বরে তাদের ফলাফল পৌঁছে যাবে। যারা এখনও প্রি-রেজিস্ট্রেশন করেনি তারা ফল প্রকাশের আগ পর্যন্ত এ রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে।

এছাড়াও টেলিটক ওয়েবসাইটসহ (www.educationboardresults.gov.bd) সংশ্লিষ্ট শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকেও থেকে ফলাফল দেখা যাবে।

করোনার মধ্যে সর্বশেষ এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ও ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রকাশ করা হয়। ওই পরীক্ষার পর যারা প্রি-রেজিস্ট্রেশন করেছিল তাদের ফলাফল মোবাইল এবং শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়।

এদিকে, ফল প্রকাশের শেষ মুহূর্তে এসে ফলপ্রার্থীদের জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষাবোর্ড থেকে ৪টি অতীব জরুরি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফলাফল সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে।

২০২০ সালে ৯টি সাধারণ, কারিগর ও মাদ্রাসা মোট ১১টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ১৩ লাখ ৬৫ হাজার ৭৮৯ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল। পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল গত বছরের ১ এপ্রিল। কিন্তু করোনাভাইসের প্রকোপ বাড়তে শুরু করলে ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়। এর মধ্যে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হয়নি।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে এবার পরীক্ষা ছাড়া এসএসসি, জেএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের গড় মূল্যায়ন করা হচ্ছে। বিশেষ পদ্ধতিতে মূল্যায়নের এই ফল প্রকাশের জন্য শিক্ষাবোর্ডকে ক্ষমতা দিয়ে ইতোমধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ওই প্রজ্ঞাপনের মধ্যে দিয়েই এই ফল প্রকাশের আইনি জটিলতা কেটেছে।

গত বছরের অক্টোবরে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, ২০২০ সালে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার না নিয়ে জেএসসি এবং এসএসসি ফলাফলের গড়ের ভিত্তিতে এইচএসসির ফল দেওয়া হবে।  জেএসসিতে ২৫% এবং এসএসসিতে ৭৫% ধরে এ ফল তৈরি করা হবে।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) ৩০ ও ৩১ জানুয়ারি এইচএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে সময় চাওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শনিবার সময় দেওয়ায় এইদিন এ ফল প্রকাশ হচ্ছে।

শিক্ষা বিভাগের আরো খবর
ফের বাড়ল প্রাথমিকের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রির সময়

ফের বাড়ল প্রাথমিকের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রির সময়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললে কোন শ্রেণির কতদিন ক্লাস?

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললে কোন শ্রেণির কতদিন ক্লাস?

প্রাক প্রাথমিক ছাড়া সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩০ মার্চ খোলা

প্রাক প্রাথমিক ছাড়া সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩০ মার্চ খোলা

১২ মার্চ ডাফসের পিকনিক, চলছে রেজিস্ট্রেশন

১২ মার্চ ডাফসের পিকনিক, চলছে রেজিস্ট্রেশন

পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের জন্য সুখবর

পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের জন্য সুখবর

সাত কলেজের পরীক্ষা ১৭ মে পর্যন্ত স্থগিত

সাত কলেজের পরীক্ষা ১৭ মে পর্যন্ত স্থগিত