ঢাকা বুধবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৮, ২ কার্তিক ১৪২৫
Sharp AC

চালের বাজার আবারও অস্থির


গো নিউজ২৪ প্রকাশিত: জুন ১০, ২০১৮, ০১:২১ পিএম আপডেট: জুন ১০, ২০১৮, ০৭:২১ এএম
চালের বাজার আবারও অস্থির
Sharp AC

প্রস্তাবিত বাজেটে চালের আমদানি শুল্ক ২৮ শতাংশ পুনর্বহাল করার দুই দিনের মাথায় বাজারে কারসাজি শুরু হয়ে গেছে। এতে দুই দিনের ব্যবধানে প্রতি কেজি চালের দাম বেড়েছে ২ টাকা থেকে ৫ টাকা পর্যন্ত।

দেশের ব্যবসায়ীদের কাছে যে চাল মজুত আছে, তার পুরোটাই শূন্য শুল্কের সুযোগ নিয়ে আমদানি করা। গত দুই দিনে দেশে নতুন করে কোনো চালও আমদানি হয়নি। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবর, বাংলাদেশে চালের সবচেয়ে বড় রপ্তানিকারক দেশ ভারতে চালের দাম প্রতিদিন কমছে। অন্যান্য দেশেও চালের দাম স্থির আছে। ফলে চালের দাম বেড়ে যাওয়ার কোনো যৌক্তিকতা নেই বলে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরাই জানিয়েছেন।

অর্থনীতিবিদ ও চালের বাজার পর্যবেক্ষণকারী বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চালের বাজারে সরকারের নিয়ন্ত্রণ না থাকায় ব্যবসায়ীরা অযৌক্তিকভাবে দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। ব্যবসায়ীদের এই সুযোগসন্ধানী আচরণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

এইদিকে ক্রেতারা বলছেন, বাজেট প্রস্তাব করা হলো বৃহস্পতিবার। কিন্তু চালের দাম বেড়েছে মঙ্গলবার থেকে। বাজেটের আগে কীভাবে তারা জানে কোন কোন জিনিসের দাম বাড়বে?

একই প্রশ্ন বিক্রেতাদের মধ্যে। মোহাম্মদপুরের পাইকারি বাজার কৃষি মার্কেটের চাল বিক্রেতা আব্দুল মুতালিব বলেন, দাম তো বাড়া শুরু করছে বাজেটের আগে থেকে। এখন আবার শুনলাম বিদেশ থেকে আনা চালের দাম বাড়বে। দাম তো বাইড়াই আছে। আর কত বাড়বে সেটা এই সপ্তাহ গেলে বোঝা যাবে।

গত এক মাসে রশিদ মিনিকেট চালে প্রতি বস্তায় কমেছিল ৫০ টাকা। রমজানের মাঝামাঝি দাম কমলেও বাজেটের দুদিন আগে দাম দাঁড়িয়েছে আগের জায়গায়। প্রতি বস্তা চাল পাইকারি বিক্রি হচ্ছে ২৫০০ টাকায়।

মোটা ও মাঝারি চাল স্বর্ণা ও পাইজামের দাম বেড়েছে কেজিতে এক থেকে দুই টাকা। গত সপ্তাহে ৩৯ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া চাল এখন বিক্রি হচ্ছে ৪১ টাকায়।

মূল্য বৃদ্ধিতে সবচেয়ে এগিয়ে আছে ভারতীয় চাল। ভারত থেকে আমদানিকৃত নুরজাহান চাল প্রতি কেজিতে বেড়েছে ৩ টাকা। ৩৭ টাকার চাল এখন বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা কেজি দরে।

দাম বাড়তে পারে উল্লেখ করে ব্যবসায়ীরা জানান, কেজিতে ৩ টাকা বাড়ছে। এখনি চাল পাওয়া যাচ্ছে না। আর চালের যখন ঘটতি দেখা দেয়, তখনি দাম বাড়ে। বাজেটে যেহেতু আমদানি করা চালের দাম বাড়ানো হয়েছে, তাহলে তো অবশ্যই চালের দাম বাড়বে।

এখন পর্যন্ত প্রায় চালে দুই-তিন টাকা করে কেজিতে বেড়েছে। এখন আরো বাড়ার সম্ভাবনা আছে। আর সেটা ঈদের পর ছাড়া বলা যাচ্ছে না।

গো নিউজ২৪/এমআর

 

অর্থনীতি বিভাগের আরো খবর
মজুরি বাড়ায় রক্তক্ষরণ হচ্ছে: বিজিএমইএ

মজুরি বাড়ায় রক্তক্ষরণ হচ্ছে: বিজিএমইএ

৯ মাসেই ২০১৭ সালের চেয়ে বেশি ফ্রিজ বিক্রি হয়েছে মার্সেলের  

৯ মাসেই ২০১৭ সালের চেয়ে বেশি ফ্রিজ বিক্রি হয়েছে মার্সেলের  

নিত্যপণ্যের বাজার হঠাৎ অস্থির

নিত্যপণ্যের বাজার হঠাৎ অস্থির

রবিকে ৫০ কোটি টাকা জরিমানা

রবিকে ৫০ কোটি টাকা জরিমানা

আফ্রিকায় ওয়ালটনের নতুন রপ্তানি বাজার

আফ্রিকায় ওয়ালটনের নতুন রপ্তানি বাজার

আমি বললাম সরে যান, উনি চাইলেন চেয়ারম্যান পদ!

আমি বললাম সরে যান, উনি চাইলেন চেয়ারম্যান পদ!

Best Electronics AC mela