ঢাকা রবিবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭

মাস্ক পরলে লোকজন এখন অন্য দৃষ্টিতে তাকায়


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিনিধি প্রকাশিত: অক্টোবর ১৬, ২০২০, ০২:৪৬ পিএম আপডেট: অক্টোবর ১৬, ২০২০, ০৮:৪৬ এএম
মাস্ক পরলে লোকজন এখন অন্য দৃষ্টিতে তাকায়

দেশে করোনার প্রকোপ আছে এমনটি মনে হবে না গোপালগঞ্জের রাস্তা-ঘাট, হাট-বাজার এমনকি হাসপাতালগুলোয়ও। এখন এমন অবস্থা দাঁড়িয়েছে মাস্ক পরলে লোকজন তার দিকে একটু অন্য দৃষ্টিতে তাকায়। সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে না কোথাও। মাস্ক পরছে না ১০ ভাগ মানুষও।জেলার সর্বত্রই আগের মতো চলছে।

গোপালগঞ্জ আদালত চত্বর ও হাসপাতাল এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, মানুষের মধ্যে কোনও সচেতনতা নেই। গাদাগাদি করে দাঁড়ানো বা বসে রয়েছেন লোকজন। হাসপাতালের চিত্র আরও খারাপ। রোগীরা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়ানো গা ঘেঁষাঘেঁষি করে। কেউবা বসে রয়েছেন মাস্ক না পরে। বেশ কয়েকজন রোগী জানান, মাস্ক আনতে ভুলে গেছেন। কেউ বা লজ্জায় কিছু না বলে হেঁটে চলে যান। 

হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে দেখা গেছে, নার্সরা আগের মতোই সব ধরনের রোগীদেরকে সেবা দিচ্ছেন। আগে মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস এবং পিপিই পরতেন। এখন শুধু মাস্ক পরে রোগীদের সেবা প্রদান করছেন নার্সরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নার্স বলেন, সরকারি পিপি, মাস্ক পরেও অনেক স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাছাড়া পিপি পরে যে গরম অনুভূত হয় তাতে কাজে আরও ব্যাঘাত ঘটে।

গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. অসিত মল্লিক জানান, চিকিৎসক ও নার্সরা এখন আর পিপি পরে সেবা দিচ্ছেন না। তারা শুধু মাস্ক পরছেন। শুধু করোনা ওয়ার্ডে বা আইসোলেশন ওয়ার্ডে পিপি ও আনুষাঙ্গিক পোশাক পরে চিকিৎসকেরা ও নার্সরা কাজ করছেন। তবে এই মুহূর্তে তাদের কাছে পর্যাপ্ত মাস্ক সরবরাহ নেই।
এ বিষয়ে সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদের সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, চিকিৎসকরা কোভিড ও নন-কোভিড উভয় রোগীদেরকে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। হাসপাতালগুলোতে পিপি বা মাস্কের কোন সংকট নাই বলে তিনি জানান। তিনি বলেন, দ্বিতীয় ধাপের করোনা সংক্রমণের বিষয়টি মাথায রেখে তারা জেলার সব হাসপাতালগুলোয় প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা বলেন, সাহসিকতার সঙ্গে প্রথম ধাপের সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেছেন।  প্রতিনিয়তই সবাইকে করোনা প্রতিরোধে বাইরে বের হলে মাস্ক পরার পরামর্শ দিয়ে মাইকিং করা হয়ে থাকে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে মানুষকে সচেতন করতে সব ধরনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জরিমানা না করেই জনগণকে সচেতন করার কাজ চালাচ্ছি।

দেশজুড়ে বিভাগের আরো খবর
নানীশাশুড়ির কুলখানীর মিষ্টি নিয়ে ২ ভায়রার ‍‍`তুলকালাম‍‍`

নানীশাশুড়ির কুলখানীর মিষ্টি নিয়ে ২ ভায়রার ‍‍`তুলকালাম‍‍`

দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে প্রাণ গেল প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষিকার

দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে প্রাণ গেল প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষিকার

টাকাভর্তি ব্যাগ নিয়ে ঘুরছেন আ.লীগ নেতার ছেলে!

টাকাভর্তি ব্যাগ নিয়ে ঘুরছেন আ.লীগ নেতার ছেলে!

পাঁচ কেজি ইলিশের দাম ১৫০০ টাকা!

পাঁচ কেজি ইলিশের দাম ১৫০০ টাকা!

জুয়া থামাতে আইপিএল খেলার সময় বন্ধ থাকবে ক্যাবল লাইন

জুয়া থামাতে আইপিএল খেলার সময় বন্ধ থাকবে ক্যাবল লাইন

বরের বয়স ১০৫, কনের ৮০

বরের বয়স ১০৫, কনের ৮০