ঢাকা শুক্রবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০২০, ৪ মাঘ ১৪২৬

পরিচ্ছন্ন রাজনীতির এক অনন্য উদাহরণ যুবলীগ নেতা শামীম


গো নিউজ২৪ | শামসুল ইসলাম সহিদ,মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৯, ২০১৯, ০৫:২৮ পিএম
পরিচ্ছন্ন রাজনীতির এক অনন্য উদাহরণ যুবলীগ নেতা শামীম

পরিচ্ছন্ন রাজনীতির এক অনন্য উদাহরণ যুবসমাজের আস্থা বিশ্বস্ততার প্রতীক তরুন নেতা শামীম আল মামুন। তার নেতৃত্বে অতীতের যেকোন সময়ের চেয়ে অধিক চাঙ্গা হয়ে উঠেছে উপজেলা যুবলীগ। সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শামীম আল মামুন উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক নির্বাচিত হওয়ার পর উপজেলার ১৩৫টি ওয়ার্ডে পর্যায়ক্রমে সফর করে সাংগঠনিক তৎপরতা বৃদ্ধি করেন। এতে চাঙ্গা হয়ে উঠে যুবলীগের নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা। একের পর এক ব্যতিক্রমী রাজনৈতিক কর্মসূচি হাতে নেয়ায় নেতাকর্মীরা চাঙ্গা হয়ে উঠেছে বলে জানা গেছে।

গত জাতীয় সংসদ ও উপজেলা নির্বাচনে যুবলীগের এই নেতা শামীম সর্বোচ্চ ভুমিকা নিয়ে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের ্এক কাতারে এনে নির্বাচন পরিচালনা ও দলীয় প্রার্থীর বিজয়ে বলিষ্ঠ ভুমিকা রেখে সর্ব মহলে প্রশংসিত হয়েছেন। যুবলীগের নেতা হলেও শামিমের গ্রহনযোগ্যতা দলমত নির্বিশেষে সকল মহলেই রয়েছে।

শামীম আল মামুন স্কুল জীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত। তার দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে সব সময় সেকরিফাইজ মানষিকতা নিয়ে কাজ করেছেন। নিজে ত্যাগ স্বীকার করে অন্যকে সুজোগ করে দেওয়া শামীমের রাজনৈতিক জীবনের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ঠ। যার উদাহরণ হচ্ছে মির্জাপুর কলেজ ছাত্রসংসদের ভিপি, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির মত লোভনীয় পদ ছেড়ে দিয়ে সহকর্মীকে লাইম লাইটে আনার সুজোগ করে দিয়েছেন।অন্যক সুজোগ দিয়ে নিজে দীর্ঘদিন পদ বঞ্চিত থেকেও শামীম রাজনীতি থেকে একটু পিছপা হননি। তার সততা ও বিশ্বস্থতার ওপর ভিত্তি করে স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ মো. ্একাব্বর হোসেন দুইদুইবার তাকে তাঁর সহকারী একান্ত সচিব নিযুক্ত করেছেন। যার ফলশ্রুতীতে শামীম এমপি একাব্বর হোসেনের সমস্ত উন্নয়ন কাজের সাথে নিজেকে সব সময় ব্যস্ত রেখেছেন।

২০১৭ সালের জুলাই মাসে মির্জাপুর সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক শামীম আল মামুনকে আহবায়ক করে উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় য্বুলীগ। এতে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের বর্তমান ভাইস  চেয়ারম্যান আজাহারুল ইসলাম এবং সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও মির্জাপুর উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি লিমিটেড এর ভাইস চেয়ারম্যান আবিদ হোসেন শান্তকে যুগ্ম আহবায়ক রাখা হয়।

শামীম আল মামুন জানান, তার নেতৃত্বে উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি অনুমোদন হওয়ার পর দুই যুগ্ম আহবায়কসহ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার ১৩৫টি ওয়ার্ডে যুবলীগকে শক্তিশালী করতে একের পর এক রাজনৈতিক উদ্যোগ নেন তারা।তিনি জানান, প্রতিটি ওয়ার্ডে আহবায়ক পদের জন্যে আগ্রহী প্রার্থীদের কাছ থেকে বায়োডাটা চাওয়া হয়। বায়োডাটায় শিক্ষাগত যোগ্যতা, বিগত ও বর্তমান রাজনৈতক পরিচয়, পারিবারিক রাজনৈতিক পরিচিতি ও ভবিষৎ পরিকল্পনা ইত্যাদি উল্লেখ করতে বলা হয়। মূলত ত্যাগী, দক্ষ ও যোগ্য নেতা বাছাই করতে এ পদ্ধতি অনুসরন করা হচ্ছে।এ পদ্ধতি গ্রহণ করায় ওয়ার্ডে নেতাকর্মীদের মধ্যে বেশ সাড়া জাগিয়েছে। ১৩৫টি ওয়ার্ডের সহাস্রাধিক বায়োডাটা পাওয়া গেছে বলে তিনি জানান।যেখানে সম্মেলন হয় সেখানে বায়োডাটা দেখে যোগ্যদের বাছাই করা হচ্ছে।। তিনি জানান, শিক্ষিত, দক্ষ ও ত্যাগীদের নিয়ে প্রতিটি ইউনিটে কমিটি গঠনের লক্ষে কাজ করা হচ্ছে। এতে ব্যাপক সাড়াও পাওয়া যাচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
আহবায়ক কমিটির যুগ্ম আহবায়ক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আজাহারুল ইসলাম জানান, ত্যাগী হলেও চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, নেশাগ্রস্থ এবং ভূমি দস্যুদের কমিটিতে রাখা হচ্ছে না।তিনি বলেন, মির্জাপুর উপজেলা যুবলীগকে যে কোন মূল্যে বিতর্কের উর্ধে রাখাতে তারা সর্বোচ্চ সজাগ রয়েছেন।

অপর যুগ্ম আহবায়ক ও মির্জাপুর উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি লিমিটেডে এর ভাইস চেয়ারম্যান আবিদ হোসেন শান্ত বলেন, আহবায়ক শামীম আল মামুনের দিক নির্দেশনায় উপজেলা যুবলীগের প্রতিটি ইউনিটে যোগ্য নেতৃত্ব বাছাই করতে উৎসব মুখর পরিবেশে সম্মেলনের আয়োজন করা হচ্ছে। এখন চলছে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে আহবায়ক কমিটি গঠন। উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার ১৩৫টি ওয়ার্ডের অধিকাংশে আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। বাকী ওয়ার্ড গুলোতে আহবায়ক কমিটি গঠনের কাজ চুড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে জানান এ নেতা। 

রাজনীতির পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথেও শামীম যুক্ত থেকেছেন। মির্জাপুরের বহুল আলোচিত সাংস্কৃতিক সংগঠন কিংশুকের সাথে দীর্ঘদিন যুক্ত থেকে শামীম মির্জাপুরে একজন সাংস্কৃতিক কর্মী হিসেবে নিজেকে পরিচিত করে তুলেছেন। এছাড়া মির্জাপুর এসকে পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির দুইবার সভাপতি থেকে শিক্ষার্থী শিক্ষক এবং অভিভাবকেদের কাছে প্রশংসিত হয়েছেন তিনি।

শামীমের গ্রহযোগ্যতার বড় প্রমাণ মেলে গত উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে। উপজেলা নির্বাচনে শামীম তার প্রার্থীতা ঘোষনা দেয়ার পর পুরো উপজেলায় সারা জাগে। আওয়ামী লীগের একটি বড় অংশ এবং সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সমর্থনে শামীম এগিয়ে যেতে থাকেন।গোড়াই ইউপির পাঁচবারের চেয়ারম্যান এবং পরপর দুইবারের উপজেলা চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাতি মীরএনায়েত হোসেন মন্টু শামীমের সাথে দলীয় কাউন্সিলিং ভোটে অবতীর্ন হন। সেই ভেটে মীর এনায়েত হোসেন মন্টু মাত্র ৩২ ভোট বেশি পেয়ে ঘাম ঝরানো জয় নিয়ে দলীয় মনোনয়নের জন্য বিবেচিত হন।

এর পরও শামীম থেমে থাকেননি। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে দেশের অনেক স্থানে অনেক নেতাই দলের সাথে বিদ্রোহ করেছেন। শামীম হচ্ছেন ব্যতিক্রম। ঘরে বসে না থেকে দলীয় পাথৃীর সাথে কাজ করে বিজয়ে বলিষ্ঠ ভুমিকা রেখেছেন।

আহবায়ক শামীম আল মামুন জানান,  বিগত জাতীয় সংসদ ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা যুবলীগের প্রতিটি নেতাকর্মী বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রার্থনা করেছে।ফলে দুইটি নির্বাচনেই আমাদের প্রার্থীরা বিপুল ভোটের ব্যবধানে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি জানান, অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় মির্জাপুর উপজেলা যুবলীগ এখন বেশ চাঙ্গা। তিনি আরো বলেন একজন মুক্তিযোদ্দার সন্তান হয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারন করে জীবনের শেষ মুহর্ত পর্যন্ত সকলের ভালবাসা নিয়ে কাজ করে যেতে চাই।

গোনিউজ২৪/এমএএস

দেশজুড়ে বিভাগের আরো খবর
জুট মিলের শ্রমিকের পায়ুপথে হাওয়া ঢুকিয়ে নির্যাতন

জুট মিলের শ্রমিকের পায়ুপথে হাওয়া ঢুকিয়ে নির্যাতন

স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ করল ৭ চোর

স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ করল ৭ চোর

গাইবান্ধায় মেয়রপুত্র হত্যা মামলায় ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

গাইবান্ধায় মেয়রপুত্র হত্যা মামলায় ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

সালাম না দেওয়ায় শিশুকে মারধর, ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে

সালাম না দেওয়ায় শিশুকে মারধর, ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে

নামাজরত অবস্থায় বৃদ্ধাকে কুপিয়ে হত্যা

নামাজরত অবস্থায় বৃদ্ধাকে কুপিয়ে হত্যা

পিতা যদি হয় সৎ

পিতা যদি হয় সৎ