ঢাকা মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা: জয়পুরহাটে ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রকাশিত: অক্টোবর ২২, ২০১৯, ০৪:২৯ পিএম আপডেট: অক্টোবর ২২, ২০১৯, ১০:২৯ এএম
গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা: জয়পুরহাটে ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার আরতি রাণী নামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে সাতজনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। এছাড়া দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে দুইজনের পাঁচ লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড এবং পাঁচজনের এক লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে ট্রাইব্যুনালের বিচারক ড এ বি এম মাহমুদুল হক এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- আক্কেলপুর উপজেলার মারমা গ্রামের সোহেল তালুকদার, দেওড়া সোনারপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেন, দেওড়া গুচ্ছগ্রামের রাহিন, দেওড়া সাখিদার পাড়ার ফেরদৌস আলী, দেওড়া সোনারপাড়ার মজিবর রহমান, জগতি গ্রামের রুহুল আমীন এবং দেওড়া গুচ্ছগ্রামের আজিজার রহমান। 

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ৮ অক্টোবর রাতে দেওড়া আশ্রয়ন কেন্দ্রের উজ্জল মহন্তের স্ত্রী আরতী রাণীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে আসামিরা গণধর্ষণের পর হত্যা করে। এ ঘটনায় ১০ অক্টোবর আরতীর স্বামী উজ্জল মহন্ত বাদী হয়ে সাতজনকে আসামি করে আক্কেলপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

মামলায় দীর্ঘ শুনানির পর জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক সাত আসামিরই মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন। 

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি আইনজীবী ফিরোজা চৌধুরী। অন্যদিকে বাদীপক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোস্তাফিজুর রহমান ও রফিকুল ইসলামসহ পাঁচজন।

গো নিউজ২৪/আই

দেশজুড়ে বিভাগের আরো খবর
ঈদের দিনই সড়কে ঝরল ৯ বাইক আরোহীর প্রাণ

ঈদের দিনই সড়কে ঝরল ৯ বাইক আরোহীর প্রাণ

ঈদের নামাজে সেজদায় গিয়ে আর উঠলেন না ইমাম

ঈদের নামাজে সেজদায় গিয়ে আর উঠলেন না ইমাম

পানিতে দাঁড়িয়েই ঈদের নামাজ

পানিতে দাঁড়িয়েই ঈদের নামাজ

ভাইকে হাতুড়িপেটা করে বোনকে ধর্ষণ

ভাইকে হাতুড়িপেটা করে বোনকে ধর্ষণ

খতিব, ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের ঈদ উপহার দিল সিএমপি উত্তর বিভাগ

খতিব, ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের ঈদ উপহার দিল সিএমপি উত্তর বিভাগ

গোপনে আবাসিক হোটেলে কাপড়ের ব্যবসা

গোপনে আবাসিক হোটেলে কাপড়ের ব্যবসা