ঢাকা সোমবার, ২২ জুলাই, ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬

গরুতে ঘাস খেয়ে ফেলায় চাচাকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রকাশিত: জুন ১৫, ২০১৯, ১০:১২ পিএম
গরুতে ঘাস খেয়ে ফেলায় চাচাকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন

গরু ঘাস খাওয়ায় চাচাকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে ভাতিজার বিরুদ্ধে। শুক্রবার চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার পশ্চিম ধলই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনের শিকার চাচা মো. হাসেমকে (৬০) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার ভাতিজা মো. সজীব (২০) ও তার মা সেলিনা বেগমকে (৪৫) গ্রেফতার করা হয়েছে। আরেক ভাতিজা মো. সাগরকে (২২) খুঁজছে পুলিশ।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে মো. হাসেম তার গরুর জন্য মাঠ থেকে ঘাস কেটে আনেন। বাড়িতে এনে রাখার পর সেই ঘাস খেয়ে ফেলে তার ছোট ভাই মো. কাশেমের গরু। এ ঘটনায় রেগে যান হাসেম। পরে গালাগালি করলে ছোট ভাই কাশেমের দুই ছেলে সাগর ও সজীবের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় তার।

বৃহস্পতিবারের জের ধরে শুক্রবার সকালে সাগর ও সজীব তার অন্যান্য আত্মীয়-স্বজন হাসেমের হাত-পা বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করেন।

এ সময় স্থানীয় লোকজন হাসেমের চিৎকার শুনে এগিয়ে এলে নির্যাতনকারীরা পালিয়ে যান। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে হাসেমের অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য হাসেমকে চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়।

হাটাহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বেলাল উদ্দীন জাহাঙ্গীর জানান, খবর পেয়ে পুলিশ শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত মো. সজীব ও তার মা সেলিনা বেগমকে (৪৫) গ্রেফতার করে। তবে ঘটনার সঙ্গে জড়িত আরেক ভাতিজা মো. সাগর ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন।

গো নিউজ২৪/আই

দেশজুড়ে বিভাগের আরো খবর
ছেলেধরা সন্দেহে ৪ যুবককে গণপিটুনি, পিকআপে আগুন

ছেলেধরা সন্দেহে ৪ যুবককে গণপিটুনি, পিকআপে আগুন

২ ছাত্রীকে স্প্রে দিয়ে অজ্ঞান, এলাকায় তোলপাড়

২ ছাত্রীকে স্প্রে দিয়ে অজ্ঞান, এলাকায় তোলপাড়

পানি পড়া খেয়ে ২ জনের মৃত্যু, কবিরাজ আটক

পানি পড়া খেয়ে ২ জনের মৃত্যু, কবিরাজ আটক

ফ্রি চিপস খাওয়াতে গিয়ে গণপিটুনির শিকার ৩ যুবক

ফ্রি চিপস খাওয়াতে গিয়ে গণপিটুনির শিকার ৩ যুবক

মির্জাপুরের জরাজীর্ণ ভবনে ঝুঁকি নিয়ে পাঠদান

মির্জাপুরের জরাজীর্ণ ভবনে ঝুঁকি নিয়ে পাঠদান

স্ত্রী-সন্তানের রক্তাক্ত লাশ, আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বামী  

স্ত্রী-সন্তানের রক্তাক্ত লাশ, আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বামী