ঢাকা শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

বাবার পরে মা, এবার সেই ইউপিতে মেয়ে চেয়ারম্যান


গো নিউজ২৪ | দেশজুড়ে প্রকাশিত: নভেম্বর ২৯, ২০২১, ০৯:১৪ এএম
বাবার পরে মা, এবার সেই ইউপিতে মেয়ে চেয়ারম্যান

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাজিমাত করেছেন জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী সাফিয়া পারভীন। রোববার (২৮ নভেম্বর) তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩৬৩ ভোট বেশি পেয়ে জয়লাভ করেন তিনি।

ইউনিয়নটিতে বিএনপির স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে রবিউল্লাহ্ বাহার ও নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়েন শ্যামলী রানী অধিকারী।

কালীগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান, ইউনিয়নটিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী পেয়েছেন ৩৮৫ ভোট, লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী ৭ হাজার ২৩৮ ভোট ও ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী পেয়েছেন ৬ হাজার ৮৭৫ ভোট। বেসরকারিভাবে লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর থেকে ৩৬৩ ভোট বেশি পেয়ে জয়লাভ করেছেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী। 

কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন সাফিয়া পারভীনের বাবা জাতীয় পার্টির নেতা মোশাররফ হোসেন। ২০১৮ সালে ৮ সেপ্টেম্বর রাত ১১টার দিকে কৃষ্ণনগর বাজারে যুবলীগ কার্যালয়ের সামনে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এরপর ১৫ সেপ্টেম্বর হত্যাকারী যুবলীগ নেতা আব্দুল জলিল গাইনকে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে গ্রামবাসী।

২০১৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি ইউনিয়নটির উপ-নির্বাচনে লাঙ্গল প্রতীকে জয়লাভ করেন নিহত মোশাররফ হোসেনের স্ত্রী আকলিমা খাতুন লাকী। এবার জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে দাঁড়িয়ে জয়ী হলেন মোশাররফ হোসেনের মেয়ে সাফিয়া পারভীন

দেশজুড়ে বিভাগের আরো খবর
ভোট না দেয়ায় সালিশ বসিয়ে মাওলানাকে নির্যাতন, ২ লাখ জরিমানা

ভোট না দেয়ায় সালিশ বসিয়ে মাওলানাকে নির্যাতন, ২ লাখ জরিমানা

সড়কে একসঙ্গে ৪ ভাই নিহত

সড়কে একসঙ্গে ৪ ভাই নিহত

নামাজরত মাকে কুপিয়ে হত্যা করল ছেলে

নামাজরত মাকে কুপিয়ে হত্যা করল ছেলে

নামাজরত মাকে কুপিয়ে হত্যা করল ছেলে

নামাজরত মাকে কুপিয়ে হত্যা করল ছেলে

গাজীপুরে তুলার গুদামে ভয়াবহ আগুন

গাজীপুরে তুলার গুদামে ভয়াবহ আগুন

সিরাজগঞ্জে যুবদল নেতাকে গুলি করে হত্যা

সিরাজগঞ্জে যুবদল নেতাকে গুলি করে হত্যা