২৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩, শনিবার ১০ ডিসেম্বর ২০১৬ , ৯:০১ পূর্বাহ্ণ

কুমিল্লার ৬ পৌরসভায় বইছে নির্বাচনী আমেজ


গো নিউজ২৪ আপডেট: ২৮ নভেম্বর ২০১৫ শনিবার
কুমিল্লার ৬ পৌরসভায় বইছে নির্বাচনী আমেজ

কুমিল্লার ৮টি পৌরসভার মধ্যে নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী সারা দেশের মতো ৩০ ডিসেম্বর ৬টি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মামলার জটিলতায় নাঙ্গলকোট পৌরসভার নির্বাচন ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। এদিকে তফসিল ঘোষণার পর থেকেই নির্বাচনী উত্তাপ ছড়াতে শুরু করেছে ওই ৬টি পৌরসভা এলাকায়।

পৌরসভাগুলো হলো- চান্দিনা, লাকসাম, দাউদকান্দি, বরুড়া, চৌদ্দগ্রাম ও হোমনা। এর মধ্যে লাকসাম ও চৌদ্দগ্রাম প্রথম শ্রেণির পৌরসভা। ওই ৬ পৌরসভার ৬টি মেয়র, ৫৪টি সাধারণ কাউন্সিলর, ১৮টি মহিলা কাউন্সিলরসহ মোট ৭৮ পদে লড়াই করবে। পাশাপাশি স্বতন্ত্র প্রার্থীর সংখ্যাও রয়েছে সমানভাবে।

প্রতিটি পৌরসভায় সম্ভাব্য মেয়র পদে দলীয় সমর্থন পেতে চান ক্ষমতাসীন দলের একাধিক নেতা। তারা নির্বাচনের মাঠে সক্রিয়। কয়েকটিতে বিএনপির একাধিক প্রার্থী থাকলেও তাদের শরিক দল জামায়াত ইসলামী এখনো নিরব। এদিকে জাতীয় পার্টি ৬টি পৌরসভার প্রতিটিতেই নিজস্ব প্রার্থী দেবে বলে জানা গেছে।

লাকসাম: মেয়র পদে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন চান লাকসাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি তাবারক উল্ল্যাহ কায়েস, লাকসাম উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম হিরা, লাকসাম উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক প্রফেসর আবুল খায়ের, আওয়ামী লীগ নেতা হাজি আবুল কাশেম।

বিএনপির পক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন পৌর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বাবু সুভাষ বণিক ও সাধারণ সম্পাদক এসএম তাজুল ইসলাম খোকন।

একটি সূত্র জানায়, নিখোঁজ হওয়া লাকসাম পৌর বিএনপি নেতা হুমায়ুন কবির পারভেজের স্ত্রী শাহানাজ আক্তার মেয়র পদে প্রার্থী হতে পারেন। লাকসাম পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও ভাইয়া গ্রুপের চেয়ারম্যান মফিজুর রহমানও প্রার্থী হতে পারেন। লাকসাম পৌরসভার আয়তন ১৯ দশমিক ৪২ বর্গকিলোমিটার। লোকসংখ্যা ১ লক্ষ ৫ হাজার ১৩৫ জন। ভোটার ৩৯ হাজার ১৩১ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ১৯ হাজার ১৮১ জন ও মহিলা ১৯ হাজার ৯৪২ জন।

চৌদ্দগ্রাম: প্রথম শ্রেণীর চৌদ্দগ্রাম পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চান বর্তমান মেয়র মিজানুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন পাটোয়ারী, উপজেলা যুবলীগের সদস্য মাহবুবুল হক মোল্লা বাবলু ও ইমাম হোসেন পাটোয়ারী।

এ নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াত জোট কেন্দ্রীয়ভাবে কোনো সিদ্ধান্ত না জানালেও তৃণমূলের নেতাকর্মীরা মেয়র ও কাউন্সিলর পদ প্রার্থী হিসেবে এলাকায় প্রকাশ্যে এবং গোপনে তাদের প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। ইতোমধ্যে আত্মগোপনে থেকেও দলীয় প্রতীক ধানের শীষের ছবিসংবলিত স্টিকার দিয়ে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন পৌর বিএনপির সভাপতি জিএম রাব্বানী নয়ন বাঙালি। তার বিরুদ্ধে চৌদ্দগ্রামে কোনো মামলা না থাকলেও ঢাকায় কয়েকটি মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি জিএম তাহের পলাশিও মেয়র পদে লড়তে চান। দলীয়ভাবে জামায়াতের নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ না থাকলেও উপজেলা জামায়াতের আমির সাহাব উদ্দিন মেয়র পদে প্রার্থী হবেন বলে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া জাতীয় পার্টির (এরশাদ) উপজেলা সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলমের নামও মেয়র প্রার্থীর তালিকায় শোনা যাচ্ছে।

চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার আয়তন ১৮ দশকি ৩৩ বর্গ কিলোমিটার। জনসংখ্যা ৪৩ হাজার ৬২৯ জন। ৯টি ওয়ার্ডের এ পৌরসভায় মোট ভোটার ২৪ হাজার ৩০৫ জন।

চান্দিনা: চান্দিনা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ থেকে লড়তে চান পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মফিজুল ইসলাম কমিশনার, সহ-সভাপতি মো. আবদুল জলিল কমিশনার, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা মো. আবু তাহের ভূইয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী গোলাম দস্তগীর পাপন, পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. জয়নাল আবেদীন কাউন্সিলর।

এদিকে রহমান ফুড অ্যান্ড কনজুমার প্রোডাক্টসের স্বত্বাধিকারী মো. রফিকুল ইসলামও মেয়র পদে সম্ভাব্যপ্রার্থী বলে জানা গেছে। এছাড়া সদ্য আওয়ামী লীগে যোগদান করা আবদুল মান্নান সরকার মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। মেয়র পদে বিএনপির হয়ে লড়তে চান বর্তমান মেয়র ও পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহ্ মোহাম্মদ আলমগীর খান, পৌর বিএনপির কোষাধ্যক্ষ মো. আবদুল কাদের সরকার। চান্দিনা পৌরসভার আয়তন ১৪ দশমিক ২ বর্গকিলোমিটার।

দাউদকান্দি: দাউদকান্দি পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চান সম্প্রতি আওয়ামী লীগে যোগদানকারী বর্তমান মেয়র আব্দুস সাত্তার, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মিয়া ও পৌর যুবলীগের সভাপতি শাহজাহান খন্দকার।

দাউদকান্দি পৌরসভার আয়তন ১২ দশমিক ১৭ বর্গকিলোমিটার। মোট ভোটার ১৪ হাজার ৮২৭ জন।

হোমনা: হোমনা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন চান বর্তমান মেয়র হারুন মিয়া, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাবুল, যুবলীগ নেতা খোরশেদ আলম, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন সরকার ও যুবলীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক মো. মোবারক হোসেন।

বিএনপি থেকে মনোনয়ন চান উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি আলমগীর সরকার, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সানাউল্লাহ সরকার, উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মো. সাইফুল ইসলাম রাজা, জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. হানিফ মিয়া, পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম ও পৌর বিএনপির সহসভাপতি নূরুল ইসলাম ভুট্টো ও সাবেক সরকারি কর্মকর্তা আবদুল লতিফ।

জাতীয় পার্টি থেকে লড়তে চান উপজেলা সভাপতি ইসমাইল হোসেন সিরাজী ও সাধারণ সম্পাদক মো. মনিরুল ইসলাম। হোমনা পৌরসভার আয়তন ১১ দশমিক ৭১ বর্গকিলোমিটার। মোট ভোটার সংখ্যা এখন ২১ হাজার ২৮৬।

বরুড়া: বরুড়া পৌরসভার মেয়র পদে বিএনপি থেকে লড়তে চান বর্তমান মেয়র ও উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন পাটোয়ারী, কৃষক দলের পৌর কমিটির আহ্বায়ক মীর মোবারক হোসেন এবং আওয়ামী লীগ থেকে লড়তে চান সাবেক পৌর মেয়র বাহাদুরুজ্জামান, এছাড়া বরুড়া সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি আবদুল মান্নান, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ডক্টরস কমিউনিটি হসপিটালের পরিচালক নাছির উদ্দিন লিংকন, বরুড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বকতার হোসেন, আমির হোসেন, সাবেক কাউন্সিলর কাজী নজরুল ইসলাম। জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন চান পৌর কমিটির সভাপতি মাস্টার আবদুল বারী, উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রকি আহম্মদ স্বপন, পৌর যুব সংহতির নেতা সোহেল মাহমুদ।

বরুড়া পৌরসভার আয়তন ২৪ দশমিক ১৩ বর্গকিলোমিটার। মোট ভোটার ২৬ হাজার ৬২৫ জন।

জাআ