ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮, ৩ মাঘ ১৪২৪
Beta Version

কার বেশি, ছেলেদের না মেয়েদের!


গো নিউজ২৪ | অনলাইন ডেস্ক প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৩০, ২০১৭, ০৬:১৬ পিএম আপডেট: জানুয়ারি ১, ২০১৮, ০৭:০৪ এএম
কার বেশি, ছেলেদের না মেয়েদের!

অবশেষে রহস্যের উদঘাটন। মহিলাদের মতো পুরুষদের চোখে সহজে জল আসে না। কিন্তু কেন? সেই উত্তর অবশেষে পাওয়া গেল। এক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, পুরুষ ও মহিলাদের মস্তিষ্কে কিছু পার্থক্য থাকে। যার জন্য পুরুষরা মহিলাদের মতো অনুভূতিহীন ও আবেগপ্রবণ হন না। 

কয়েকজন পুরুষের মধ্যে কোনও আবেগ বা অন্যের প্রতি শ্রদ্ধাও থাকে না। বিজ্ঞানের ভাষায়, এঁদের মধ্যে ক্যালাস-আনইমোশনাল ট্রেট রয়েছে। অর্থাৎ এঁদের মস্তিষ্কের গঠন অন্যদের থেকে ভিন্ন। 

সুইৎজারল্যান্ডের বাসেল ইউনিভার্সিটির গবেষকরা একটি পরীক্ষার মাধ্যমে এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন। পুরুষদের একটা বড় অংশের মধ্যে মহিলাদের মতো সহমর্মিতা থাকে না। অন্যের দুঃখে সহানুভূতিশীল হওয়ার ক্ষেত্রেও পুরুষদের থেকে মহিলারা এগিয়ে। বিবেকবোধেরও বিকাশ অনেক কম হয় পুরুষদের। পুরুষদের এই ধরনের প্রবণতাকে ক্যালস-আনইমোশনাল ট্রেট বলা হয়। 

বাড়ন্ত ছেলেদের মধ্যে তুলনামূলক ভাবে অ্যান্টেরিয়র ইনসুলা বা ধূষর কোষের সংখ্যা বেশি থাকে। মস্তিষ্কে এই ধূষর কোষের মাধ্যমেই অন্যের দুঃখে মানুষ সহানুভূতিশীল হয়। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পুরুষদের মস্তিষ্কে এই ধূষর কোষের সংখ্যা কমতে থাকে। মূলত মস্তিষ্কের গঠনই নির্ধারণ করে সেই মানুষটির আবেগ, অনুভূতি কেমন হবে।

গো নিউজ২১৪/এবি

লাইফস্টাইল বিভাগের আরো খবর
সম্পর্কে যাওয়ার আগে এই বিষয়গুলো ভেবে দেখুন

সম্পর্কে যাওয়ার আগে এই বিষয়গুলো ভেবে দেখুন

আপনার টুথপেস্ট কী দিয়ে তৈরি জানেন?

আপনার টুথপেস্ট কী দিয়ে তৈরি জানেন?

ওভেনে তৈরি ১০৪ রেসিপি নিয়ে লবী রহমানের বই

ওভেনে তৈরি ১০৪ রেসিপি নিয়ে লবী রহমানের বই

কেমন যাবে ২০১৮

কেমন যাবে ২০১৮

চুলে রং করলে হতে পারে ক্যান্সার

চুলে রং করলে হতে পারে ক্যান্সার

কার বেশি, ছেলেদের না মেয়েদের!

কার বেশি, ছেলেদের না মেয়েদের!

grameenphone