ঢাকা শনিবার, ২০ জানুয়ারি, ২০১৮, ৭ মাঘ ১৪২৪
Beta Version

স্ত্রী থাকতেও যৌনকর্মীকে শ্বশুরবাড়িতে এনে যুবকের কাণ্ড!


গো নিউজ২৪ | আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৩, ২০১৮, ০৮:৫৮ এএম আপডেট: জানুয়ারি ১৩, ২০১৮, ১০:১৩ এএম
স্ত্রী থাকতেও যৌনকর্মীকে শ্বশুরবাড়িতে এনে যুবকের কাণ্ড!

একাধিক বিয়ে করেছে। ঘরে চার ছেলে-মেয়েও রয়েছে। এরপরও যৌনকর্মীকে বিয়ের করার উদ্যোগ নিয়েছিল। এখানেই শেষ নয়। সেই নারীকে নিয়ে রাত্রিবাসের জন্য আবার সোজা পৌঁছে গিয়েছিলেন পুরনো শ্বশুরবাড়িতেই। কিছু শেষরক্ষা হল না। আর ফলও পেল হাতেনাতে। গণপ্রহার দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হল সফিকুল ইসলাম নামের ওই ব্যক্তিকে। ঘটনাটি ভারতের দেগঙ্গার।

জানা গিয়েছে, পেশায় গাড়ি চালক সফিকুল। দেগঙ্গার সোহায় শ্বেতপুর পঞ্চায়েতের খাঁপুর গ্রামের বাসিন্দা। ইতোমধ্যেই একাধিকবার বিয়ে করেছেন। স্ত্রীদের একজনের নাম ফাতিমা। যার অভিযোগ, স্বামী সংসারে টাকা তো দেয়ই না উলটো স্ত্রীদের মারধর করত। তাও এ অত্যাচার মেনে নিচ্ছিলেন তিনি। কেবলমাত্র সন্তানদের মুখ চেয়ে। কিন্তু সম্প্রতি মাটিয়ার এক যৌনকর্মীর সঙ্গে সম্পর্কে লিপ্ত হয় সফিকুল। তাকে বিয়েরও প্রস্তাব দেয়। ওই নারীকে নিয়ে আবার ফাতিমার বাপের বাড়িতেই ওঠে। প্রথমে মহিলাকে নিজের আত্মীয় বলে পরিচয় দেয় সফিকুল। কিন্তু দু’জনের ব্যবহার দেখে ফাতিমার বাপের বাড়ির লোকের সন্দেহ হয়। একটু জিজ্ঞাসাবাদ করতেই আসল সত্যি জানা যায়।

ফাতিমাকে খবর দেওয়া হয়। তিনি এসে গুণধর জামাইয়ের বাকি কীর্তিকলাপ ফাঁস করে দেন। প্রকাশ্যে বেঁধে বেধড়ক মারধর করা হয় সফিকুলকে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। সফিকুলকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রথমে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। পরে গ্রেপ্তার করা হয়। খুব শিগগিরিই আদালতে তোলা হবে অভিযুক্তকে। সেখানেই তার বিচরপর্ব শুরু হবে। 

তবে বিচার যাই হোক এমন স্বামীকে তিনি ফিরিয়ে নেবেন না বলেই জানিয়ে দিয়েছেন ফাতিমা। প্রয়োজনে নিজে খেটে ছেলেমেয়েদের মানুষ করবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন দেগঙ্গার গৃহবধূ।

গো নিউজ২৪/এবি

আন্তর্জাতিক বিভাগের আরো খবর
বিয়ের রাতে স্বামীর নির্মম অত্যাচারে নববধূ নিহত

বিয়ের রাতে স্বামীর নির্মম অত্যাচারে নববধূ নিহত

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় সরকারের কার্যক্রম বন্ধ

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় সরকারের কার্যক্রম বন্ধ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা নীতিতে বড় পরিবর্তন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা নীতিতে বড় পরিবর্তন

ছেলেকে হত্যা করে লাশ পুড়িয়ে দিলেন মা!

ছেলেকে হত্যা করে লাশ পুড়িয়ে দিলেন মা!

হোটেলে রাত্রিযাপনে জোড়া লাগল ভেঙে যাওয়া সংসার!

হোটেলে রাত্রিযাপনে জোড়া লাগল ভেঙে যাওয়া সংসার!

এবার ভারতে সমকামী বিয়ে

এবার ভারতে সমকামী বিয়ে

grameenphone