ঢাকা বুধবার, ১৫ আগস্ট, ২০১৮, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫
Beta Version
Sharp AC

বন্দি খালেদা, মুক্ত খালেদার চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী!


গো নিউজ২৪ | নিউজ ডেস্ক: প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮, ০৮:৪৫ পিএম
বন্দি খালেদা, মুক্ত খালেদার চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী!
Sharp AC

ঢাকা : বেগম জিয়া কারা অন্তরীণ হবার পর থেকেই বিএনপিতে নির্বাচন প্রশ্নে দুই মত তৈরি হয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসনের কারাজীবন যত দীর্ঘায়িত হচ্ছে, তত এই মতদ্বৈততা প্রকাশ্য রূপ নিতে শুরু করেছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন, বেগম জিয়ার কারাবাস দীর্ঘ হলে এই মতবিরোধই ভাঙ্গনের রূপ দিতে পারে।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করছে, বিএনপি নির্দলীয় বা সহায়ক সরকারের অবস্থান থেকে সরে এসেছে। প্রতিকূল রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণেই তাদের অবস্থান পরিবর্তন করতে হয়েছে। বিএনপি এখন বলছে, বেগম জিয়ার মুক্তি ছাড়া তাঁরা জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না। 

বিএনপির একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তাদের বর্তমান অবস্থা হলো, বেগম খালেদা জিয়া যদি জামিনেও মুক্ত হন এবং তিনি যদি নির্বাচনে অংশগ্রহণের অযোগ্য না হন তাহলে তাঁরা (বিএনপি) নির্বাচনে অংশ নেবে। কিন্তু বাস্তবতা হলো, মুক্ত খালেদা জিয়ার নির্বাচনী মাঠে থাকার সম্ভাবনা ক্রমশ: ফিকে হয়ে আসছে। 

একটি মামলায় দণ্ডিত হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। আরও ৩৩ টি মামলার খড়গ মাথায় নিয়ে আছেন তিনি। এরমধ্যে জিয়া চ্যারিটেবল দুর্নীতি মামলা শেষ পর্যায়ে। আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি থেকে এই মামলার যুক্তিতর্ক শুরু হবে। বড় পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলার শুনানির তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি। গ্যাটকো দুর্নীতি মামলার শুনানি ৪ মার্চ। নাইকো দূর্নীতি মামলার শুনানি ১১ মার্চ। এই সব মামলাই সরকার দ্রুত নিস্পত্তি করার উদ্যোগ নিয়েছে। এজন্যই মামলাগুলো আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত বিশেষ আদালতে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। 

সরকার একাধিক মামলা নির্বাচনের আগেই যদি শেষ করে ফেলে তাহলে ‘মুক্ত বেগম জিয়া’কে পাওয়া এক দু:সাধ্য ব্যাপার হবে। এই বাস্তবতায় বিএনপিতে ভিন্নমত জোরালো হচ্ছে।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, লে. জে. মাহাবুবুর রহমান, এমনকি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই ভিন্নমতের প্রবক্তা। তাঁদের মতে, বেগম জিয়াকে যখন সরকার জেলে নিতে পেরেছে, তখন এত সহজে ছাড়বে না। 

তারা মনে করছেন, নির্বাচন থেকে বিএনপিকে দূরে রাখতেই সরকার এই কৌশল নিয়েছে। কাজেই, বেগম জিয়া জেলে থাকলে নির্বাচনে যাবো না, এরকম মত সরকারের ‘নীল নকশা’ কে বাস্তবায়নেই সহায়তা করবে। এই নেতাদের ধারণা, আবার একটি ‘প্রহসনের’ নির্বাচন করে আওয়ামী লীগ বিএনপির কফিনে শেষ পেরেক ঠুকবে। তখন জেলেই বেগম জিয়ার রাজনৈতিক জীবনের যবনিকা পাত ঘটবে। এজন্য তারা মনে করছেন, বেগম জিয়ার মুক্তি, বিএনপির অস্তিত্ব রক্ষা, সর্বোপরি নেতা-কর্মীদের বাঁচাতে নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই। আন্দোলনের অংশ হিসেবে নির্বাচন কর্মীদের মধ্যে উদ্দীপনা সৃষ্টি করবে। বিএনপির নির্বাচনপন্থী একজন নেতা বলেছেন,‘ বন্দি খালেদা জিয়া, মুক্ত খালেদা জিয়ার চেয়ে অনেক শক্তিশালী হবেন। তার মুক্তির ম্যান্ডেট হবে ব্যালট।’

বিএনপিতে এই মত ক্রমশ প্রবল হচ্ছে। কিন্তু বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়াসহ তরুণ নেতৃত্ব, তাদের ভাষায় ‘এই আপোষকামীতা’র বিরুদ্ধে। শুধু বিরুদ্ধেই নয়, তাদের সতর্ক করা হয়েছে, যদি এরকম নির্বাচানের ‘ষড়যন্ত্র’কেউ করে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মূলত: তারেকের ভয়েই নির্বাচন নিয়ে নিয়ে প্রবীণ নেতারা কথাবার্তা কম বলছে। কিন্তু দিন যতই যাচ্ছে ততই কর্মীদের দম বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া সম্ভাব্য প্রার্থীরাও জানাচ্ছেন ‘মাঠের খবর ভালো।’ এরকম পরিস্থিতিতে লন্ডন থেকে তারেকের মোবাইল হুমকি দলের বন্ধনকে কতটা অটুট রাখবে সেটাই দেখার বিষয়।

গো নিউজ২৪/আই

সংবাদপত্রের পাতা থেকে বিভাগের আরো খবর
টিভিতে দেখাবে না লা লীগার ৩৮০টি ম্যাচ

টিভিতে দেখাবে না লা লীগার ৩৮০টি ম্যাচ

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে কী বার্তা পেল সরকার? 

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে কী বার্তা পেল সরকার? 

ঢাকায় শিক্ষার্থীদের আন্দোলন আরব বসন্তের প্রতিচ্ছবি: অঞ্জন

ঢাকায় শিক্ষার্থীদের আন্দোলন আরব বসন্তের প্রতিচ্ছবি: অঞ্জন

ছেলেকে হত্যার পর মরদেহ নিয়ে থানায় মা    

ছেলেকে হত্যার পর মরদেহ নিয়ে থানায় মা    

বিয়ের কেনাকাটা করতে গিয়ে হবু বরের মর্মান্তিক মৃত্যু    

বিয়ের কেনাকাটা করতে গিয়ে হবু বরের মর্মান্তিক মৃত্যু    

৩ বছরের শিশুকে শিক্ষিকার বেধড়ক মারধর, অত:পর...   

৩ বছরের শিশুকে শিক্ষিকার বেধড়ক মারধর, অত:পর...   

Best Electronics AC mela