ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৪ মাঘ ১৪২৫

হাত-পা নেই, তবুও পিছপা হয়নি শাফিয়া   


গো নিউজ২৪ | নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৫, ২০১৮, ০৯:০৫ এএম
হাত-পা নেই, তবুও পিছপা হয়নি শাফিয়া   

সিলেট: জন্ম থেকেই শাফিয়ার হাত-পা নেই। তারপরও এবারের জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় হাতের কনুই দিয়ে লিখে জিপিএ ৪.২৯ পেয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে সবাইকে। শারীরিক প্রতিবন্ধকতা তাকে দমাতে পারেনি। লেখাপড়া শেষ করে সর্বোচ্চ ডিগ্রি নিয়ে শিক্ষক হতে চায় শাফিয়া। শিক্ষক হয়ে বদলাতে চায় সমাজের মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি।

শাফিয়ার বাবা মো. আজমল হোসেন চাকরি করেন সিলেট নগরীর কুষ্ঠ হাসপাতালে। তার মা হোসনেআরা খাতুন চাকরি করেন ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। তারা দুজনেই পেশায় নার্স। সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার গঙ্গাজরে তাদের গ্রামের বাড়ি। তারা থাকেন সিলেট নগরীর শামীমাবাদ এলাকায়। ২০০৪ সালে তাদের কোলজুড়ে জন্ম নেয় শিশু শাফিয়া। তখন থেকেই হাত নেই, পা-ও নেই তার। শিশুর এমন অবস্থা দেখেও দমে যাননি আজমল ও হোসনেআরা দম্পতি। তারা তাকে সাধারণ মানুষের মতো বেঁচে ওঠার স্বপ্ন দেখান। মা-বাবার সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে পিছপা হয়নি শাফিয়া।  

নগরের রাধারাণী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সে জিপিএ ৪.৮৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছিল। এরপর পিডিবি উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয় তাকে। সেখানে ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণিতে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখে সে এবার জেএসসি পরীক্ষায় পেল ৪.২৯।

শফিয়া জানায়, নিজের ইচ্ছাশক্তিই মানুষকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করে। সে নিজে নিজেই অনেক কাজ করে। বই খুলতে পারে, দুই হাতের কনুই দিয়ে লিখতে পারে।

গো নিউজ২৪/এমআর

 

 

শিক্ষা বিভাগের আরো খবর
১০৬–এ ফোন, তাৎক্ষণিক ভিকারুননিসায় দুদকের অভিযান 

১০৬–এ ফোন, তাৎক্ষণিক ভিকারুননিসায় দুদকের অভিযান 

অতিরিক্ত বইয়ের বোঝা কমাতেই মাত্র একটি বই

অতিরিক্ত বইয়ের বোঝা কমাতেই মাত্র একটি বই

শিক্ষামন্ত্রীর হুঁশিয়ারি 

শিক্ষামন্ত্রীর হুঁশিয়ারি 

প্রক্টরের পাহারায় ঢাবিতে ছাত্রদল 

প্রক্টরের পাহারায় ঢাবিতে ছাত্রদল 

ডাকসু নির্বাচন: ছাত্রসংগঠনগুলোর সঙ্গে বসেছে ঢাবি প্রশাসন 

ডাকসু নির্বাচন: ছাত্রসংগঠনগুলোর সঙ্গে বসেছে ঢাবি প্রশাসন 

বিকেলে স্নাতকে (সম্মান) প্রফেশনাল ভর্তির মেধা তালিকা প্রকাশ

বিকেলে স্নাতকে (সম্মান) প্রফেশনাল ভর্তির মেধা তালিকা প্রকাশ