ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮, ৩ মাঘ ১৪২৪
Beta Version

বাজারেও ধর্মঘটের প্রভাব পড়েছে


গো নিউজ২৪ | গো নিউজ ডেস্ক প্রকাশিত: মার্চ ১, ২০১৭, ০১:২৯ পিএম আপডেট: মার্চ ১, ২০১৭, ০১:৩১ পিএম
বাজারেও ধর্মঘটের প্রভাব পড়েছে

ফাইল ছবি

বাসচালকের যাবজ্জীবন ও মৃত্যুদণ্ডাদেশের প্রতিবাদে পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা দেশব্যাপী পরিবহন ধর্মঘটের নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে বাজারে।  

বুধবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে ধর্মঘটের দুই দিন পার না হতেই বেশ কয়েকটি পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। সবচেয়ে বেশি দাম বেড়েছে শাক-সবজির মতো পঁচনশীল দ্রব্যগুলোর।  

ব্যবসায়ীরা জানান, পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘটে রাজধানীতে দূর থেকে মাছ, মুরুগি বা সবজি আসছে না। আশপাশের এলাকা থেকে সীমিত মাছ ও সবজি আসছে। ফলে সরবরাহ কম থাকায় দাম বেড়েছে। এমনকি বাড়তি দাম দিয়েও কোন কোন খুচরা ব্যবসায়ী পণ্য সংগ্রহ করতে পারেননি। তবে পেঁয়াজ, তেল ও আলুর দাম স্বাভাবিক রয়েছে। 

মঙ্গলবার প্রতিকেজি তেলাপিয়া মাছ বিকি হয়েছে ১১০ থেকে ১২০ টাকা কেজি দরে। আজ তা বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে। এক কেজির ওপরে রুই মাছ বিক্রি হচ্ছে ২৮০ টাকা থেকে ৩০০ টাকা কেজি দরে। যা মঙ্গলবার বিক্রি হয়েছিল ২২০ থেকে ২৫০ টাকা দরে। ছোট রুই-মৃগেল (নলা মাছ) বিক্রি হচ্ছে ১৬০ থেকে ১৮০ টাকা কেজি দরে, যা মঙ্গলবার বিক্রি হয়েছে ১৩০ থেকে ১৪০ টাকা কেজি দরে।
 


প্রতিকেজি শিম বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা কেজি দরে, যা মঙ্গলবার ছিল ২০ থেকে ২৫ টাকা। মঙ্গলবার যে লাউ ২৫ থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে তা বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা পিচ। ২০ থেকে ২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া টমেটার দাম বেড়ে হয়েছে ৩০ থেকে ৪৫ টাকা। ১৫ টাকায় বিক্রি হওয়া ডাটার আটি বিক্রি করা হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকায়। ৩০ টাকার করলা বিক্রি হচ্ছে ৪৫ থেকে ৫০ টাকা কেজি দরে।

ব্রয়লার মুরগি বিক্রেতারা জানান, গতকাল বয়লার মুরগি বিক্রি হয়েছে ১২৫ থেকে ১৩০ টাকা কেজি দরে আর লাল কক ১৫০ থেকে ১৫৫ টাকায়। আজ একদিনের ব্যবধানে বয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৪৫ থেকে ১৫৫ টাকা এবং কক মুরগি ১৭০ থেকে ১৮০ টাকা কেজি দরে।

দাম এতো বাড়ার কারণ জানতে চাইলে রামপুরা বউ বাজারের ব্যবসায়ী শফিক বলেন, ধর্মঘটের কারণে আড়তে মুরগি আসছে না। ফলে আমাদের মুরগি বেশি দামে কিনে আনতে হচ্ছে, তাই বিক্রিও করতে হচ্ছে বেশি দামে।

এদিকে বয়লার মুরগির সংকটে বেড়ে গেছে গরু ও খাসির মাংসের দামও। যাত্রাবাড়ী-সায়দাবাদ অঞ্চলে প্রতিকেজি গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৪৯০ থেকে ৫০০ টাকায়। খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে ৬৮০ থেকে ৭০০ টাকায়। মঙ্গলবার গরুর মাংস বিক্রি হয়েছিল ৪৬০ থেকে ৪৮০ টাকায়। আর খাসির মাংস ৬৫০ টাকা থেকে ৬৭০ টাকায়।

গো নিউজ ২৪/এমজে

অর্থনীতি বিভাগের আরো খবর
রাষ্ট্রায়ত্ত ৮ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল

রাষ্ট্রায়ত্ত ৮ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল

ফারমার্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান হচ্ছেন চৌধুরী নাফিজ সারাফাত

ফারমার্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান হচ্ছেন চৌধুরী নাফিজ সারাফাত

কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হলো বেস্ট ইলেক্ট্রনিক্সের বাৎসরিক কনফারেন্স

কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হলো বেস্ট ইলেক্ট্রনিক্সের বাৎসরিক কনফারেন্স

আবারো অর্থমন্ত্রীর মুখে ‘রাবিশ’

আবারো অর্থমন্ত্রীর মুখে ‘রাবিশ’

নারীরা এখানে নায়িকা নয়, নায়কের ভূমিকায়

নারীরা এখানে নায়িকা নয়, নায়কের ভূমিকায়

ব্যাংকিং খাতের অবস্থা বেশি নাজুক : সিপিডি

ব্যাংকিং খাতের অবস্থা বেশি নাজুক : সিপিডি

grameenphone