৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, সোমবার ২০ নভেম্বর ২০১৭ , ১:৪২ অপরাহ্ণ

এ কী লজ্জা শ্রীলঙ্কার!


গো নিউজ২৪ | স্পোর্টস ডেস্ক আপডেট: ২৩ অক্টোবর ২০১৭ সোমবার
এ কী লজ্জা শ্রীলঙ্কার!

আরব আমিরাতের শারজাহ স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের শেষটিতে মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলঙ্কা। ইতোমধ্যে সিরিজের প্রথম চারটিতে হেরেছে লঙ্কানরা।

রোববারের (২৩ অক্টোবর) ম্যাচটিতে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে বিপর্যয়ের মুখে পড়ে ১০৩ রান তুলতে সক্ষম হয়  শ্রীলঙ্কা।  জয় পেতে পাকিস্তানকে করতে ১০৪ রান।

ম্যাচটিতে শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যানদের ওপর ‘জমদূত’ হিসেবে বোলিং তাণ্ডব চালায় পাকিস্তানের হয়ে এক ম্যাচ আগে অভিষেক হওয়া উসমান খান। উপহার দেন ক্যারিয়ার সেরা বোলিং।  ৭ ওভার বোলিং করে ৩৫ রানের বিনিময়ে তুলে নেন ৫ উইকেট।  শ্রীলঙ্কাকে ধ্বংসস্তূপে পরিণত করেছেন মূলত উসমানই।  ইনিংসের প্রথম ওভারেই জোড়া আঘাত হানেন তিনি। আগের ম্যাচে অভিষেকে দ্বিতীয় বলেই তিনি উইকেট নিয়েছিলেন।

আজ প্রথম ওভারের শেষ দুই বলে নিয়েছেন ২ উইকেট। পঞ্চম বলে বোল্ড হয়েছেন সামারাবিক্রমা। পরের বলে সরফরাজ আহমেদের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন দিনেশ চান্দিমাল। দুজনই মেরেছেন ডাক!

তৃতীয় ওভারে উসমানের হ্যাটট্রিক বলটা চার হাঁকিয়েছিলেন উপুল থারাঙ্গা। তবে এক বল পরই শ্রীলঙ্কান অধিনায়ককে বোল্ড করেন উসমান। পঞ্চম বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেনব নিরোশান ডিকভেলা। তখন শ্রীলঙ্কার ৮ রানেই ৪ উইকেট নেই!

স্কোরটা ২০-এ যেতেই পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে ফেরেন সিরিবর্ধনেও। এবারও ঘাতক উসমান। পয়েন্টে ফখর জামানের হাতে সহজ ক্যাচ তুলে নেন সিরিবর্ধনে।

ম্যাচটিতে শ্রীলঙ্কার হয়ে সর্বোচ্চ স্কোর করেন পেরেরা।  ২৯ বলে তিনটি বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় ২৫ রান করেন তিনি।

মাত্র দ্বিতীয় ম্যাচেই ৫ উইকেট পেলেন উসমান। তাও মাত্র ২১ বলের মধ্যে! ২০০১ সালের পর ওয়ানডেতে তার চেয়ে কম বলে ৫ উইকেট নিতে পেরেছেন মাত্র দুজন। ২০০৩ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে চামিন্দা ভাস ১৬ বলে ও ২০১৩ সালে কানাডার বিপক্ষে ভান ডার গুগটেন ২০ বলে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন। 
গোনিউজ২৪/এআর