১২ বৈশাখ ১৪২৪, মঙ্গলবার ২৫ এপ্রিল ২০১৭ , ৪:৩০ অপরাহ্ণ

২৫ হাজার টাকায় তরুণীকে বিক্রি!


গো নিউজ২৪
|
২৫ হাজার টাকায় তরুণীকে বিক্রি!

বিদেশ পাঠানোর নামে ২৫ হাজার টাকায় এক তরুণীকে বিক্রি করে দিয়েছে তারই এক নিকট আত্মীয়। হাতবদল করে চতুর্থ দফা বিক্রির সময় ওই তরুণীকে উদ্ধার করে বুড়িমারী স্থলবন্দর এলাকার ব্যবসায়ী ও জনতা। ভারতে পাচারের সময় উদ্ধার হওয়া ওই তরুণীর বাড়ি সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার দুবাগ ইউনিয়নের খাড়াভরা গ্রামে। বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 

পুলিশ জানায়, বিয়ানীবাজারের দুবাগ ইউনিয়নের খাড়াভরা এলাকায় ওই তরুণীকে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে বাড়ি থেকে নিয়ে যায় তাদের এক আত্মীয়। আর্থিক অভাব-অনটনের সুযোগে গত ১৩ই এপ্রিল জকিগঞ্জ উপজেলার পরচক গ্রামের মফিক আলীর পুত্র লায়েক (২৫) তরুণীকে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। এ সময় সে তার পাসপোর্টসহ বিদেশ পাঠানোর আনুষঙ্গিক কাজ সবকিছু সিলেট থেকে করতে হবে বলে জানায়। এজন্য তাকে বিমান টিকেটসহ ৬০ হাজার টাকা দিতে হবে বলেও জানায়। আত্মীয়তার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে লায়েক সিলেট শহরে তরুণীকে নিয়ে যায়। 

এরপর আগে থেকে জানিয়ে রাখা নারী পাচারকারী চক্রের কাছে তাকে ২৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেয়। সেখান  থেকে ঢাকা এবং পরে নীলফামারী জেলার নারী পাচারকারী চক্রের কাছে তাকে তৃতীয়বার বিক্রি করা হয়। সেখানকার সীমান্ত এলাকার বুড়িমারী স্থলবন্দরে তাকে নিয়ে গেলে চতুর্থ দফা বিক্রির সময় মেয়েটি বুঝতে পেরে চিৎকার শুরু করে। এ সময় স্থানীয় ব্যবসায়ী ও জনতা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করেন। পরে পুলিশের সহায়তায় ওই তরুণীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা নীলফামারীর উদ্দেশে রওয়ানা দেন। বর্তমানে ওই তরুণী তার পরিবারের সদস্যদের কাছে রয়েছে বলে জানান বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী। তিনি বলেন, এ ঘটনায় প্রাথমিকভাবে একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। তবে মেয়েকে নিয়ে আসার পরই মামলা দায়ের করা হবে।

গো নিউজ২৪/এএইচ