৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, বুধবার ২২ নভেম্বর ২০১৭ , ১০:১৮ অপরাহ্ণ

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ নিশ্চিত করেছে এশিয়ার যে দল গুলো


গো নিউজ২৪ | স্পোর্টস ডেস্ক: আপডেট: ১৫ নভেম্বর ২০১৭ বুধবার
২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ নিশ্চিত করেছে এশিয়ার যে দল গুলো

আর মাত্র ২১০ দিন পরই শুরু হবে ফুটবলের সবথেকে বড় যজ্ঞ ফিফা ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ। আগামী বছরের ১৪ জুন পর্দা উঠবে ফিফা বিশ্বকাপের ২১ তম আসর। বরাবরের মতো এবারে আসরেও থাকছে ৩২টি দল। যদিও এখন পর্যন্ত নিশ্চিত হয়েছে ৩০টি দল। 

এ ৩০ দলের মধ্যে এশিয়া অঞ্চলের দল থাকছে চারটি। দল গুলো হলো: 
১) ইরান
২) দক্ষিণ কোরিয়া
৩) সৌদি আরব
৪) জাপান

এশিয়া অঞ্চলের হয়ে খেলছে অস্ট্রেলিয়াও। হুন্ডুরাসের বিপক্ষে আজ প্লে-আপের ম্যাচ খেলবে দলটি। জিততে পারলে পাবে সরাসরি ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট। 

ইরান:
পঞ্চম বারের মতো ফিফার বিশ্ব আসরে খেলার সুযোগ পেয়েছে ইরান। সর্বপ্রথম ১৯৭৮ সালে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পায় দলটি। এরপর ১৯৯৮, ২০০৬, ২০১৪ ও সবেশষ ২০১৮ বিশ্বকাপেও খেলবে ইরান। ২০০৬ বিশ্বকাপের পর ২০১০ বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে পারেনি ইরান। প্রথম বারের মতো বিশ্ব আসরে টানা দ্বিতীয় বার খেলছে দলটি। তবে সব গুলো আসরেই বাদ পড়েছে প্রথম রাউন্ডে।

দক্ষিণ কোরিয়া: 
এশিয়া অঞ্চলের অন্যতম সেরা ফুটবল পরাশক্তি দক্ষিণ কোরিয়া। ১০ বারের মতো ফুটবলের বিশ্বকাপ মঞ্চে খেলবে দলটি। সর্বপ্রথম ১৯৫৪ সালে বিশ্বকাপ খেলে দক্ষিণ কোরিয়া। এরপর ১৯৮৬, ১৯৯০, ১৯৯৪, ১৯৯৮, ২০০২, ২০০৬, ২০১০ ও ২০১৪ বিশ্বকাপে একটানা খেলে যাচ্ছে দলটি। খেলবে ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপেও। ফিফা বিশ্বকাপে দক্ষিণ কোরিয়া সর্বোচ্চ অর্জন ২০০২ বিশ্বকাপে চতুর্থ স্থান অধিকার করা।

সৌদি আরব:
ফিফা বিশ্বকাপ মঞ্চে এটি সৌদি আরবের পঞ্চম অংশগ্রহন। ১৯৯৪ সালে সর্বপ্রথম বিশ্বকাপ খেলে সৌদি এরপর ১৯৯৮, ২০০২ ও সবশেষ ২০০৬ সালে খেলে।  প্রায় এগ যুগ বিরতির পর অর্থাৎ দুই বিশ্বকাপ বিরতির পর আবারও বিশ্বকাপ মঞ্চ মাতাবে দলটি। বিশ্ব আসরে সৌদি আরব প্রথমবারের মতো অংশ নিয়ে তামাক লাগিয়ে দিয়েছিল। সে আসরে শেষ ১৬তে খেলেছে দলটি।

জাপান:
এশিয়া অঞ্চলের ফুটবল পরাশক্তি দল গুলোর মধ্যে অন্যতম জাপান। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ দিয়ে ষষ্ঠ বারের মতো ফিফার বিশ্বকাপ মঞ্চ মাতাবে দলটি। এর আগে ১৯৯৮, ২০০২, ২০০৬, ২০১০ ও ২০১৪ বিশ্বকাপে টানা খেলেছে সূর্য উদয়ের দেশটি। জাপান শেষ ১৬তে খেলেছে দুইবার। সর্বপ্র্রথম ২০০২ সালে এবং সবশেষ ২০১০ সালে।

গো নিউজ২৪/এসএম