৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭ , ১১:৫১ পূর্বাহ্ণ

হিন্দুবাড়িতে অগ্নিসংযোগে বিচার বিভাগীয় তদন্ত চায় জাপা


গো নিউজ২৪ | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রংপুর আপডেট: ১৩ নভেম্বর ২০১৭ সোমবার
হিন্দুবাড়িতে অগ্নিসংযোগে বিচার বিভাগীয় তদন্ত চায় জাপা

রংপুর: জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার রংপুরে হিন্দু বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুরের ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। তিনি সোমবার ঠাকুরপাড়া গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থ হিন্দুদের ঘরবাড়ি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। এসময় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ প্রত্যেক পরিবারকে ১০ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন তিনি।

জাপা মহাসচিবের পর ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেছেন ভারতীয় সহকারি হাইকমিশনার রাজশাহীর অভিজিৎ চট্টোপাধ্যায়। তবে তিনি সাংবাদিকদের সাথে কোন কথা বলেননি।

এদিকে রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি বলেন, ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে এমন নিন্দনীয় কাজ যারা করেছে, তা পরিকল্পিত। যাতে ভবিষ্যতে কেউ এ ধরনের কাজ করতে সাহস পায় না। এজন্য বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে দোষীদের কঠোর শাস্তি দিতে হবে।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় যেন কোন নিরপরাধ মানুষ হয়রানির শিকার না হয়, সেদিকে প্রশাসনকে দৃষ্টি দিতে হবে। ক্ষতিগ্রস্থদের আপনাদের ভয়ের কোন কারণ নেই। পাশে জাতীয় পার্টি রয়েছে। আমাদের পক্ষ থেকে যা যা করা প্রয়োজন আমরা তাই করব। 

জাপার মহাসচিব রুহুল আমিন হালাদার সোমবার বিমানযোগে ঢাকা থেকে সৈয়দপুরে আসেন। এরপর সড়কপথে রংপুরের পাগলাপীর সলেয়াশাহ ঠাকুরপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেন। এরপর রংপুর সার্কিট হাউসে চলে আসেন। এসময় তার সাথে জাপার কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, রংপুর মহানগর জাপার সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াছির, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা সভাপতি কাজী মশিয়ার রহমান, জাতীয় যুব সংহতির রংপুর জেলা সভাপতি আবদুর রাজ্জাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

ঠাকুরপাড়া এলাকায় হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা দু’টি মামলায় গেল তিন দিনে এ পর্যন্ত অনন্ত ১৫০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদের মধ্যে বেশির ভাগই জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মী বলে জানান  কোতয়ালি থানার ওসি(তদন্ত) আজিজুল ইসলাম। শুক্রবারের সংঘর্ষের ঘটনায় বিক্ষোভকারীদের মধ্যে আহত অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কয়েকজনকে সোমবার বিকেলে পুলিশ ভ্যানে করে নিয়ে যাওয়া হয়।

গো নিউজ২৪/এবি