২৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, সোমবার ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ , ১১:২৯ পূর্বাহ্ণ

সোনালি মুরগি দেশি বলে চালিয়ে দিচ্ছেন বিক্রেতারা


গো নিউজ২৪ | স্টাফ করেসপন্ডেট, যশোর  আপডেট: ০৬ আগস্ট ২০১৭ রবিবার
সোনালি মুরগি দেশি বলে চালিয়ে দিচ্ছেন বিক্রেতারা

যশোর: দেশি মুরগি বলে সোনালি মুরগি বিক্রি করার ঘটনা হরহামেশেই চলছে যশোরে। তবে কথায় বলে, চোরের দশ দিন; আর গেরস্তের একদিন। দেশি মুরগি বিক্রির নামে প্রতিনিয়ত প্রতারণা করে আসা এক বিক্রেতা এবার ধরা খেয়েছে। শুধু এখানেই শেষ নয়, ভ্রাম্যমাণ আদালত সেখানে অভিযান চালিয়ে রীতিমতো জরিমানা আদায় করেছেন। রোববার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে যশোর শহরের বড়বাজারে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমানের দেয়া তথ্য মতে, যশোর শহরের বড়বাজারের আব্দুর রহিম ক্রেতা সাধারণকে ধোকা দিয়ে দেশি মুরগির কথা বলে সোনালি মুরগি বিক্রি করেন। যেখানে দেশি মুরগির দাম ৩৮০ টাকা। সেখানে সোনালি মুরগির দাম ২২০ টাকা। এ হিসেবে দোকানদার প্রতি কেজিতে ১৬০ টাকা বেশি অবৈধভাবে আয় করে থাকেন। 

বিচারক জানান, রোববার এক ক্রেতা আব্দুর রহিমের দোকান থেকে দুটি দেশি মুরগি ক্রয় করেন। কিন্তু তার সন্দেহ হলে তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালতকে জানান। এরপর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা, ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাকে সঙ্গে নিয়ে সেখানে অভিযান চালানো হয়। প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা তপনেশ্বর রায় মুরগি দুটিকে সোনালি মুরগি বলে নিশ্চিত করেন। তখন বিক্রেতাও দোষ স্বীকার করেন।

এ ঘটনায় দোষী আব্দুর রহিমকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪৫ ধারায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে তাৎক্ষণিকভাবে আদায় করা হয়।

অভিযানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর যশোরের সহকারী পরিচালক সোহেল শেখ, পেশকার বদিউজ্জামান ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

গোনিউজ২৪/পিআর