৮ কার্তিক ১৪২৪, মঙ্গলবার ২৪ অক্টোবর ২০১৭ , ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ

সৈকত কি ভেবেছিলেন এমন হবে?


গো নিউজ২৪ আপডেট: ১৯ মার্চ ২০১৭ রবিবার
সৈকত কি ভেবেছিলেন এমন হবে?

সব ক্রিকেটারের টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ম্যাচটা এমনিতেই স্মরণীয় হয়ে থাকে । অভিষেকে দারুণ নৈপুণ্য দেখিয়ে নজর কাড়ার ক্ষেত্রে আলাদাভাবেই সুনাম কুঁড়িয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। তবে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের মতো এমন বর্ণিল অভিষেক খুব কম জনের ভাগ্যেই জোটে। তরুণ এই ডানহাতি ক্রিকেটার হয়তো নিজেও ভাবেননি অভিষেক ম্যাচেই এত কিছু পেয়ে যাবেন। 

এমনিতেই সৈকতের অভিষেকটা বিশেষভাবে স্মরণীয় হয়ে থাকত বাংলাদেশের মাইলফলকগড়া ম্যাচটির জন্য। নিজ দেশের শততম টেস্টে অভিষেকের সৌভাগ্য আর কজনের হয়! সেটা আরো রঙিন হয়ে গেল বাংলাদেশের জয়ের কারণে। প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট জয়ের স্বাদটা বাংলাদেশ পেল নিজেদের শততম ম্যাচে। সেটাও আবার শ্রীলঙ্কারই মাটিতে।

দলের এই জয়ে দারুণ অবদান আছে সৈকতেরও। অভিষেকেই ৭৫ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে সবার মন জয় করে নিয়েছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। সপ্তম উইকেটে সৈকত আর সাকিবের ১৩১ রানের লড়াকু জুটিটাই এক অর্থে গড়ে দিয়েছিল বাংলাদেশের জয়ের ভিত। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ পেয়েছিল ১২৯ রানের লিড।

দ্বিতীয় ইনিংসেও ১৩ রান করেছিলেন সৈকত। দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়তে পারতেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। কিন্তু জয় থেকে মাত্র দুই রান দূরে থাকার সময় আউট হয়ে গেছেন তিনি। দুই ইনিংসে কয়েক ওভার বোলিংও করেছেন সৈকত। তবে সেখানে কোনো উইকেট পাননি।

সৈকতের আগে টেস্ট অভিষেকেই জয়ের স্বাদ পেয়েছেন বাংলাদেশের আর মাত্র চারজন ক্রিকেটার। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম জয়ের ম্যাচে অভিষেক হয়েছিল মাহমুদউল্লাহ ও রুবেল হোসেনের। ২০১২ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জয়ের ম্যাচে প্রথমবারের মতো সাদা পোশাকে মাঠে নেমেছিলেন জিয়াউর রহমান। আর ২০১৪ সালে ঘরের মাটিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট জয়ের ম্যাচে অভিষেক হয়েছিল জুবায়ের হোসেনের।