৯ ভাদ্র ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ২৪ আগস্ট ২০১৭ , ৪:৪৫ অপরাহ্ণ

সেই জুনায়েদ বদলে গেছেন


গো নিউজ২৪ আপডেট: ১৭ মার্চ ২০১৭ শুক্রবার
সেই জুনায়েদ বদলে গেছেন

মনে আছে জুনায়েদকে? কোন জুনায়েদ? ধানমন্ডি লেকে বন্ধুকে মারধর করা সেই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার নেপথ্য খলনায়ক জুনায়েদ। কিন্তু সেই জুনায়েদ আরে আগেরমতো নেই, একেবারে বদলে গেছেন। শুরু করেছেন পড়াশোনা, নিজেকে নিয়োজিত করেছেন সমাজসেবামূলক কাজে। জুনায়েদ এখন অনেক অনুতপ্ত। কেন অনুতপ্ত নিশ্চই সেই মারধরের জন্যই অনুতপ্ত? জুনায়েদ বলেন, 'আসলে আমি ওই মারধরের জন্য অনুতপ্ত যতটা নই তারচেয়েও বেশি অনুতপ্ত আমি মাদকাসক্ত ছিলাম। মাদক আমাকে বিপথে নিয়ে গেছে। যদি মাদক না নিতাম তাহলে এসব কিছুই হতো না কিংবা আজ আপনি আমাকে ফোনও দিতেন না। '

জুনায়েদের সাথে ফোনে কথা বলার সময়ে কিছু বাচ্চার কণ্ঠ শোনা গেল। মনে হচ্ছে তারা পড়ছে। ঘটনা কি জানতেই জুনায়েদ হেসে জানালেন তারা বস্তিবাসীর কিচ্ছু বাচ্চার পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছেন। যাত্রাবাড়ী এলাকায়  একটি অস্থায়ী স্কুল খোলা হয়েছে, সেই স্কুল জুনায়েদসহ ৪জন ক্লাস নেন। স্কুলের নাম আলোর পরশ। শুধু বাচ্চাদের পড়াশোনাই নয়, আরো অন্যান্য সমাজসেবামূলক কাজ করেন জুনায়েদরা।  

জুনায়েদ বলেন, 'আসলে ভুল তো হয়ের গেছে। সঙ্গদোষেই আমি খারাপ পথে চলে গিয়েছি। মাঝখানে আমার লাইফের ওপর দিয়ে ঝড় গেছে। এখন আমি বুঝতে পারছি আসলে আমি পূর্বে কি করেছি। এখন সঠিক পথে থেকে মানুষের জন্য কিছু করবো এটাই আমার প্রতিজ্ঞা। '

কী করতেন জুনায়েদ? জুনায়েদ ছিলেন বখে যাওয়া মাদকাসাক্ত কিশোর। যার কারণেই বান্ধবীকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করার জেরে দুই বন্ধুর মধ্যে মারধরের ঘটনা ঘটে। জুনায়েদ জানালেন স্কুল পাশ করে ইন্টারে আর নিয়মিত হতে পারেন নি। জুনায়েদ বলেন, আসলে আমি কখনো পড়ালেখায় খারাপ ছিলাম না। কিন্তু থেকে কি যে হয়ে গেল। আমি কীভাবে অন্ধকারে চলে গেলাম বুঝতেই পারিনি। তবে এখন আমি পড়াশোনা শুরু করেছি। একটা ডিপ্লোমা কোর্স করছি, এরপরেই ভার্সিটিতে ভর্তি হবো।

গত বছরের ১৩ মার্চ ধানমণ্ডির লেকের পাড়ে একটি মারধরের ঘটনা ঘটে, যা ভিডিও করা হয় এবং তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করা হয়। ১০ মিনিটের ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, এক কিশোরীকে কেন্দ্র করে নুরুল্লাহ নামের এক যুবককে মারধর করছেন জুনায়েদ। এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে ভিডিওটি। পরে নুরুল্লাহর মামলায় জুনায়েদকে গ্রেপ্তার করা হয়। বর্তমানে তিনি জামিনে রয়েছেন।