৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ , ২:১৫ অপরাহ্ণ

সাভারে আত্মসমর্পণকারী ৪ জঙ্গি সারোয়ার-তামিম গ্রুপের সদস্য


গো নিউজ২৪ | উপজেলা প্রতিনিধি, সাভার আপডেট: ১৬ জুলাই ২০১৭ রবিবার
সাভারে আত্মসমর্পণকারী ৪ জঙ্গি সারোয়ার-তামিম গ্রুপের সদস্য

রাজধানীর অদূরে সাভারের আশুলিয়ার পাথালিয়া ইউনিয়নের চৌরাবালি এলাকায় জঙ্গি অভিযানের সমাপ্ত ঘোষণা করেছে র‌্যাব। ঘটনাস্থল থেকে ৪ জঙ্গি আত্মসমর্পন করেছে। তারা গুলশানের হোলি আর্টিসান বেকারিতে হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী নব্য জেএমবি সারওয়ার-তামিম গ্রুপের সদস্য।

চার জঙ্গি হলেন- মোজাম্মেল হক, রাশেদুন্নবী, ইরফানুল ইসলাম ও আলমগীর হোসেন। তাদের মধ্যে দলনেতা হলেন মোজাম্মেল হক। তাদের সবার বয়স আনুমানিক ২০ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে। 

রোববার বেলা আড়াইটার দিকে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, আটক চার জঙ্গি গুলশানের হোলি আর্টিসান বেকারিতে হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী নব্য জেএমবির তামিম গ্রুপের সদস্য। ওই এলাকায় তাদের নাশকতার পরিকল্পনা ছিল।

মুফতি মাহমুদ খান বলেন, জঙ্গিরা বের হয়ে আসার পর বাড়িটিতে বেশ কিছু শক্তিশালী বিস্ফোরকের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। সেগুলো পর্যায়ক্রমে নিষ্ক্রিয় করার কাজ করবে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল।

অভিযান শেষে আনুষ্ঠানিক বক্তব্যে মুফতি মাহমুদ বলেন, মোজাম্মেল হক, রাশেদুন নবী, আলমগীর হোসেন, ইরফানুল হক নামের গ্রেপ্তারকৃত চার যুবক নিজেদের পোশাককর্মী পরিচয় দিয়ে এক মাস আগে বাড়িটি ভাড়া নেন। ভাড়া নেওয়ার সময় তারা বাড়িওয়ালাকে কোনো কাগজপত্র দেননি। জঙ্গি সারওয়ার-তামিম গ্রুপের সদস্য ছিলেন গ্রেপ্তারকৃতরা। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঢাকার র‌্যাবের কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জীবিত গ্রেপ্তার করায় তাদের কাছ থেকে অনেক বিষয়ে তথ্য পাওয়া যাবে বলে আশা করছেন তিনি।

এদিকে বেলা ২টা ৫০ মিনিটে জঙ্গিদের অবস্থান করা বাড়িতে বোমা নিষ্ক্রিয়করণের প্রথম বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া যায়। এরপর থেকে থেমে থেমে মোট তিনটি বোমা নিষ্ক্রিয় করা হয়।

প্রসঙ্গত, শনিবার দিবাগত রাত ১টা থেকে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে আশুলিয়ার নয়ারহাট চৌরাবালি এলাকায় ইব্রাহিম নারমরের মালিকানাধীন ওই একতলা বাড়িটি ঘিরে রাখে র‌্যাব।

গো নিউজ/এমবি