১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, বুধবার ২৪ মে ২০১৭ , ৭:৩৭ অপরাহ্ণ

সরকারি ৪ ব্যাংকের লোকসান বেড়েছে ৬৩৭ কোটি টাকা


গো নিউজ২৪ | গো নিউজ ডেস্ক আপডেট: ০৬ মার্চ ২০১৭ সোমবার
সরকারি ৪ ব্যাংকের লোকসান বেড়েছে ৬৩৭ কোটি টাকা

এক বছরে সরকারি চার ব্যাংকে নিট লোকসান হয়েছে ৯২৯ কোটি টাকা। এর আগের বছরের তুলনায় লোকসান বেড়েছে ৬৩৭ কোটি টাকা। যা অতীতে আর কখনও হয়নি। এর মধ্যে এককভাবে ৪২৪ কোটি টাকা লোকসান দিয়ে শীর্ষে আছে সোনালী ব্যাংক।

এর পরেই বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক এবং রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের অবস্থান। অথচ এসব ব্যাংকে আগের বছর নিট লোকসান ছিল মাত্র ২৯২ কোটি টাকা।

অন্যদিকে আগের বছর মুনাফা করলেও লোকসান দিয়েছে রূপালী ব্যাংক। তবে আলোচ্য সময়ে সার্বিকভাবে ব্যাংকিং খাতের নিট মুনাফা কিছুটা বেড়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠেছে এসেছে। 

এ বিষয়ে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অর্থ উপদেষ্টা ড. এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম রোববার যুগান্তরকে বলেন, সরকারি ব্যাংকের সবচেয়ে বড় সমস্যা খেলাপি ঋণ। বর্তমানে তা সীমার বাইরে চলে গেছে। এই ঋণ নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারলে সরকারি ব্যাংকের সংকট কাটানো যাবে না।

প্রাপ্ত তথ্যে দেখা গেছে, ২০১৬ সালে ব্যাংকগুলোর গ্রস পরিচালন মুনাফা হয়েছে ২১ হাজার ৫৬৭ কোটি টাকা। আগের বছর যা ছিল ২১ হাজার ৬৮৩ কোটি টাকা। এ হিসাবে এক বছরে মুনাফা কমেছে ১১৬ কোটি টাকা।

তবে আলোচ্য সময়ে অর্থাৎ ২০১৬ সালে নিট মুনাফা ৩৮৯ কোটি টাকা বেড়ে ৮ হাজার ৩০৭ কোটি টাকা হয়েছে। আগের বছর যা ছিল ৭ হাজার ৯১৮ কোটি টাকা।

মূলত প্রভিশন সংরক্ষণের প্রয়োজনীয়তা কমায় এমন হয়েছে। যদিও ২০১৫ সালে ব্যাংকগুলোকে ৭ হাজার ৬৯৩ কোটি টাকা প্রভিশন রাখার প্রয়োজন পড়েছিল।

গত বছর সংরক্ষণ করতে হয়েছে ৭ হাজার ২১০ কোটি টাকা। ২০১৬ সালে ব্যাংকগুলো সরকারকে ৬ হাজার ৫০ কোটি টাকা কর দিয়েছে। আগের বছর যা ছিল ৬ হাজার ৭২ কোটি টাকা।

অন্যদিকে ২০১৬ সালে সরকারি ৬ বাণিজ্যিক ব্যাংক ২ হাজার ১০ কোটি পরিচালন মুনাফা করেছে। কিন্তু তাদের নিট মুনাফা তো দূরের কথা, লোকসান হয়েছে ৫১১ কোটি টাকা। আগের বছর যা ছিল ১২৫ কোটি টাকা।

একক প্রতিষ্ঠান হিসেবে আগের বছর সরকারি মালিকানার বেসিক ব্যাংক লোকসানে থাকলেও এবারে নতুন করে লোকসানে পড়েছে রূপালী ব্যাংক। বেসিক ব্যাংক ২০১৫ সালে ২৩৮ কোটি টাকা নিট লোকসান দিলেও এবার আড়াই কোটি টাকা মুনাফা দেখিয়েছে।

সরকারি অন্য ব্যাংকগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকর নিট লোকসান বেড়ে ৩৮৮ কোটি টাকা হয়েছে। আর রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের লোকসান ৯ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ৩০ কোটি টাকা হয়েছে।

সবচেয়ে বড় সোনালী ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ৮১৮ কোটি টাকা হলেও নিট হিসাবে লোকসান হয়েছে ৪২৪ কোটি টাকা। অগ্রণী ব্যাংক ৫৮৯ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করে নিট মুনাফা হয়েছে ৬০ কোটি টাকা।

গো নিউজ ২৪

অর্থনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত