৩০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭ , ৪:১৫ অপরাহ্ণ

রায় নিয়ে আইনগতভাবে মোকাবেলা করবো


গো নিউজ২৪ | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট আপডেট: ১০ আগস্ট ২০১৭ বৃহস্পতিবার
রায় নিয়ে আইনগতভাবে মোকাবেলা করবো

ঢাকা: বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের কাছ থেকে জাতীয় সংসদের হাতে দেয়া ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আইগতভাবে লড়াই করার কথা বলেছেন।

এ প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি, মাননীয় প্রধান বিচারপতির রায়ে আপত্তিকর ও অপ্রাসঙ্গিক বক্তব্য আছে, সেগুলো এক্সপাঞ্জ করার উদ্যোগ আমরা নেব।’

বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) সচিবালয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে আইনমন্ত্রী এসব কথা বলেন। ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের প্রেক্ষিতে সরকারের অবস্থান স্পষ্ট করতেই ওই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। 

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের প্রতি সরকার শ্রদ্ধাশীল তবে এ ব্যাপারে দ্বিমত রয়েছে বলে উল্লেখ করেন আইনমন্ত্রী। এ সময় মন্ত্রী বলেন, ‘ওই রায়ে আপিল বিভাগ যেসব যুক্তিতে ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করেছেন সেসব যুক্তি গ্রহণযোগ্য নয়।’

রায়ের বিষয়ে আইনগতভাবে লড়াই করার কথা জানিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্টের এ রায়ে আমরা সংক্ষুব্ধ। তাই আমরা চিন্তা-ভাবনা করছি এ রায়ের রিভিউ করা যায় কি না। এ রায়ের খুঁটিনাটি আমরা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। এরপর আমরা সিদ্ধান্ত নেব। বিষয়টি আমরা রাজনৈতিকভাবে নয়, বরং আইনগতভাবে মোকাবিলা করব।’

প্রসঙ্গত, বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের কাছ থেকে জাতীয় সংসদের সদস্যদের হাতে দিয়ে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী পাস হয় ২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর। যে বিধানটি ১৯৭২ সালের সংবিধানেও ছিল।

সংবিধানের এই সংশোধন মৌল কাঠামোতে পরিবর্তন ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ক্ষুণ্ণ করবে- এমন যুক্তিতে ওই সংশোধনীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে একই বছরের ৫ নভেম্বর হাইকোর্টে একটি রিট দায়ের করা হয়।

ওই রিটের ওপর প্রাথমিক শুনানি শেষে হাইকোর্ট ২০১৪ সালের ৯ নভেম্বর রুল জারি করেন। ২০১৬ সালের ১০ মার্চ মামলাটির চূড়ান্ত শুনানি শেষে ৫ মে রায় দেন আদালত। রায়ে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করা হয়।

চলতি বছরের ৩ জুলাই ওই রায় বহাল রাখেন আপিল বিভাগ। আপিল বিভাগের সেই পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয় পহেলা আগস্ট। সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পূর্ণাঙ্গ এই রায় প্রকাশের ৯ দিন পর এ বিষয়ে সরকারের অবস্থান তুলে ধরে প্রতিক্রিয়া জানালের আইনমন্ত্রী।

গোনিউজ/এন