২ পৌষ ১৪২৪, রবিবার ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ , ৬:২১ পূর্বাহ্ণ

রাজধানীতে গাড়ি ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ ৫ মামলা


গো নিউজ২৪ আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার
রাজধানীতে গাড়ি ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ ৫ মামলা

রাজধানীর শাহবাগ ও রমনা থানা এলাকায় গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও ওই মামলায় গ্রেফতার দিকেয়ে বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের ২৪ নেতাকর্মীকে আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বুধবার (০৬ ডিসেম্বর) আসামিদের জামিন আবেদন নাকচ করে এ আদেশ দেন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত।

মঙ্গলবার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আদালতে হাজিরা দিয়ে ফেরার সময় শাহবাগ ও রমনা থানাধীন এলাকায় গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দুই থানায় ২৪ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশি কাজে বাধা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় দুই থানায় পৃথক পাঁচটি মামলা দায়ের করে পুলিশ। উভয় থানার মামলায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা হাবীব-উন-নবী খানসহ দেড় শতাধিক নেতা-কর্মীকে আসামি করা হয়েছে।

এদিকে, রমনা ও শাহবাগ থানায় করা বিস্ফোরক আইনে পৃথক দুই মামলায় গ্রেফতার ২৪ জনকে আদালতে হাজির করে ১০ দিন করে ২০ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে পুলিশ। আদালত ১০ ডিসেম্বর রিমান্ড আবেদনের ওপর শুনানির দিন ধার্য করেন। আদালত সূত্রে জানা গেছে, রমনা থানার মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে ১৮ জনকে এবং শাহবাগ থানার মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে ৬ জনকে।

রমনা থানার মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে যাওয়া আসামিরা হলেন, ভাটারা যুবদলের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি ইমদাদুল হক, যুবদল নেতা ইউসুফ হোসেন বাবু, সাইফুল ইসলাম কবীর, মইনুল ইসলাম, চান মিয়া, মনোয়ার হোসেন, ইরফান হোসেন সানি, নাসির উদ্দিন মিলন, মো. কামাল, মো. আবু তাহের, রবিউল আওয়াল, গোলাম রহমান সজল, মো. আলামিন, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা মো. সিয়ামুল হক, মো. হাসান খান, সুমন হক, মো. টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান উজ্জ্বল এবং নারায়ণগঞ্জ ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. রফিকুল ইসলাম।

শাহবাগ থানার মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে যাওয়া আসামিরা হলেন, বিএনপির ক্রীড়া সম্পাদক আমিনুল হক, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রাসেল, লক্ষ্মীপুর জেলার স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা নুর নবী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এস এম হলের ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক তালুকদার অমিত হাসান ,ছাত্রদল নেতা মো. সোহেল রানা ও মো. নাসির উদ্দিন।

এ বিষয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার(ডিসি) মারুফ হোসেন সরদার বলেন, রমনা ও শাহবাগ থানা এলাকায় গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ২৪ জনকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এই ঘটনায় দুই থানায় মোট পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গোনিউজ২৪/কেআর