৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, বুধবার ২২ নভেম্বর ২০১৭ , ৬:৫৫ অপরাহ্ণ

রমজানে ৭০০ জীবন বাঁচানোর আশায় এই চিকিৎসক


গো নিউজ২৪ | স্বাস্থ্য ডেস্ক আপডেট: ১৬ জুন ২০১৭ শুক্রবার
রমজানে ৭০০ জীবন বাঁচানোর আশায় এই চিকিৎসক

যাদের চিকিৎসা করানোর সামর্থ নেই তাদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে এসেছেন ডা. জাইনুল হামদুলে। তিনি মুম্বাইয়ের গ্লোবাল হাসপাতালের কার্ডিওথোরাসিক অ্যান্ড ভাসকুলার সার্জারির ডিরেক্টর। রমজান মাসে ফান্ড রেইজারের মাধ্যমে ৩ কোটি ৩৭ লক্ষ টাকা তুলে ৭শ রোগীকে সাহায্য করতে চান তিনি। 

এই টাকা দিয়ে তিনি ১০০টি বাইপাস সার্জারি, ১০০টি অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি এবং ৫০০টি অ্যাঞ্জিওগ্রাফি করবেন। ডা. হামদুলে বলেন, ‘বাজারের সেরা স্টেন্ট দিয়ে অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করতে খরচ হয় প্রায় ১ লাখ টাকা। বাইপাস করতে খরচ হয় ২ লাখের মতো। অ্যাঞ্জিওগ্রাফি করতে গড়ে খরচ হয় ১৫ হাজার টাকা। আমাদের ফাউন্ডেশনের সঙ্গে মিলাপ টাই আপ করেছে। এটা দেশের সবচেয়ে ক্রাউড ফান্ডিং সাইট। এই টাকার সমস্তটাই দারিদ্র্যসীমার নীচে বসবাসকারীদের চিকিৎসার জন্য ব্যয় করা হবে।’

হামদুলে হার্ট ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাইনুল জানান, ২০১০ সালে ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকে প্রতি বছর নিয়ম করে দেড় কোটি টাকা ফান্ড তোলা হয়। তবে রমজান মাসে বহু মানুষ যাকাতের মাধ্যমে নিজেদের রোজগারের একটা অংশ দান করেন। তাই এই এক মাসের মধ্যে তিন কোটি টাকার বেশি ফান্ড উঠবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন।

চিকিৎসার জন্য প্রথমে হামদুলে ফাউন্ডেশনে আসেন রোগীরা। সেখানে চিকিৎসকরা দেখে যদি মনে করেন তাদের অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি বা অ্যাঞ্জিওগ্রাফির প্রয়োজন রয়েছে তা হলে তাদের হাবিব হাসপাতালে পাঠানো হয়। যদি বাইপাসের প্রয়োজন হয় তখন গ্লোবাল হাসপাতালে পাঠানো হয়। প্রায় প্রত্যেক ক্ষেত্রেই রোগীরা হাসিমুখেই বাড়ি ফিরেছেন।

ডা. হামদুলে বলেন, ‘আমার মা বহু সামাজিক কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকতেন। তার স্মৃতির উদ্দেশ্যেই আমি এই ফাউন্ডেশন তৈরি করেছি। তিনি চাইতেন আমি গরিব মানুষের জন্য কিছু করি। এভাবে আমার সাধ্যমতো আমি তাদের সাহায্য করে সমাজকে কিছু ফিরিয়ে দিচ্ছি।’
গো নিউজ২৪/এআর