১ পৌষ ১৪২৪, শনিবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭ , ১:৫৪ পূর্বাহ্ণ

যেভাবে ছেলের লাশ দেখলেন আনিসুল হকের বাবা


গো নিউজ২৪ | স্টাফ করেসপন্ডেন্ট আপডেট: ০২ ডিসেম্বর ২০১৭ শনিবার
যেভাবে ছেলের লাশ দেখলেন আনিসুল হকের বাবা

ছেলে সেনাপ্রধান আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হকের বাসা থেকে সেনাবাহিনীর অ্যাম্বুলেন্সে করে শরীফুল হককে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সদ্য প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের বনানীর বাসায় আনা হয়েছিল। সেনানিবাস থেকে অ্যাম্বুলেন্সে এসে আনিসুল হকের লাশ দেখে যান তার বাবা নব্বই ঊর্ধ্ব শরীফুল হক। একদিন পরেও ছেলের মৃত্যুর কথা জানেন না আনিসুল হকের বাবা। বার্ধক্যের ভারে অসুস্থ শরীফুল হককে এই দুদিন বড় ছেলের মৃত্যুর কথা জানানো হয়নি।

পরে আনিসুল হকের ছোট ভাই সেনাপ্রধান আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক ভাইয়ের কফিনের সঙ্গে ছিলেন সব সময়। তার সেনানিবাসের বাসা থেকে সেনাবাহিনীর একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে বাবা শরীফুল হককে দুপুরে আনা হয়েছিল আনিসুলের বনানীর ওই বাসায়। কিছুক্ষণ ছেলের লাশের পাশে থেকে ওই অ্যাম্বুলেন্সে করেই আবার সেনানিবাসে ছেলের বাসায় ফিরে যান তিনি।

বনানীর এই বাসায় আনার পরই তাকে ছেলের মৃত্যুর কথা বলা হয় বলে আনিসুল হকের একান্ত সহকারী একেএম মিজানুর রহমান জানান।

তিনি বলেন, তিনি নিজেও অসুস্থ। কথাবার্তা বলতে পারেন না। ছেলের মৃত্যুর খবর সইতে পারবেন কি না সেই ভাবনা থেকে আগে তাকে এ খবর দেওয়া হয়নি। ছেলের লাশ দেখে শরীফুল হক কোনো কথা বলেননি জানিয়ে তিনি বলেন, কান্নাকাটিও করেন নাই। চুপচাপ চেয়ে চেয়ে দেখেছেন। উনার ফিলিংস আমরা বুঝতে পারি নাই। দেখার পর উনাকে নিয়ে আবার অ্যাম্বুলেন্সে করে সেনানিবাসের বাসায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আইসিইউ সুবিধা সম্পন্ন অ্যাম্বুলেন্স থেকে শরীফুল হককে হুইল চেয়ারে করে বাড়ির ভেতরে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় তার নাকে নল লাগানো ছিল।

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কবিরহাটের বাসিন্দা শরীফুল হক আনসার বাহিনীর কর্মকর্তা ছিলেন। তার অপর দুই ছেলে ইকবাল হক ও হেলাল হক যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী। ইকবাল চিকিৎসক এবং হেলাল যুক্তরাষ্ট্র নৌবাহিনীর ক্যাপ্টেন।

নাতির জন্ম উপলক্ষে গত ২৯ জুলাই আনিসুল হক সপরিবারে লন্ডন যাওয়ার পর তার এই বাসা থেকে শরীফুল হককে সেনানিবাসের ওই বাসায় নেওয়া হয়। এদিকে লন্ডনে অসুস্থ হয়ে প্রায় সাড়ে তিন মাস চিকিৎসাধীন থাকার পর বৃহস্পতিবার মারা যান আনিসুল হক।

লন্ডন থেকে শনিবার আনিসুল হকের মরদেহ আসার পর তার বনানীর বাসায় নেওয়া হয় কফিন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ মন্ত্রিসভার সদস্য, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাসহ আনিসুল হকের ঘনিষ্ঠজনরা ওই বাসায় গিয়ে তার কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

গোনিউজ২৪/কেআর