১৫ আষাঢ় ১৪২৪, বৃহস্পতিবার ২৯ জুন ২০১৭ , ৮:০৯ অপরাহ্ণ

মুফতি হান্নানের সাথে দেখা করে যা বললেন তার স্বজনরা


গো নিউজ২৪ আপডেট: ১২ এপ্রিল ২০১৭ বুধবার
মুফতি হান্নানের সাথে দেখা করে যা বললেন তার স্বজনরা

সিলেটে সাবেক ব্র্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত হরকাতুল জিহাদের (হুজি) শীর্ষ নেতা মুফতি আবদুল হান্নানের সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যরা দেখা করেছেন। 

তার বড় ভাই আলি উজ্জামান মুন্সী বলেন, যা কিছু হয়েছে আল্লাহর হুকুমেই হয়েছে। এ সময় মুফতি হান্নানের বড় মেয়ে নিশি খানম মিডিয়ার সামনে প্রতিক্রিয়ায় জানান, তার বাবাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। হান্নানের সাথে জীবনের শেষ দেখা করে কারাগার থেকে বের হয়ে মিডিয়ার সামনে এসব কথা বলেন তার আত্মীয় স্বজনরা। সাক্ষাতের পর কারাগার থেকে বের হয়ে আসেন সবাই। মুফতি আব্দুল হান্নানের সঙ্গে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রায় ৪০ মিনিট সাক্ষা‍ৎ শেষে একটি রিক্সা ভ্যানে চেপে কারাগার থেকে বের হয়েছেন তার পরিবারের চার সদস্য।

বুধবার ভোর ৬টার দিকে কাশিমপুর কারাগারে পৌঁছানোর পর মুফতি হান্নানের স্ত্রী জাকিয়া পারভীন, দুই মেয়ে নিশাত ও নাজনীন এবং বড় ভাই আলী উজ্জামান সকাল ৭টা ১০ মিনিটে তার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পান। তখন থেকে তারা প্রায় ৭টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত হান্নানের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর বেরিয়ে আসেন। কাশিমপুর কারাগারের ডেপুটি জেলার মনির হোসেন বিষয়টি জানিয়েছেন। মুফতি হান্নানের সঙ্গে দেখা করতে তার স্বজনদের বলা হয়। সাবেক ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলার দায়ে ফাঁসি কার্যকরের অপেক্ষায় থাকা মুফতি হান্নান ও আরেক জঙ্গি শরীফ শাহেদুল আলম বিপুলকে রাখা হয়েছে কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের কনডেম সেলে। সেখানেই তাদের সঙ্গে দেখা করতে স্বজনদের ডাকা হয়েছে।

মঙ্গলবার কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মিজানুর রহমান বলেছিলেন, ফাঁসি কার্যকরের আগের সব ধরনের আইনি প্রক্রিয়া যেহেতু শেষ হয়ে গেছে, সেহেতু দুই আসামির পরিবারের সদস্যদের খবর দিয়েছি। যদি তারা চান, তবে কারাগারে এসে আসামিদের সঙ্গে দেখা করে যেতে পারেন। ফাঁসি কার্যকরের সব প্রস্তুতি থাকলেও বিধান অনুসারে এটি আসামিদের সঙ্গে স্বজনদের শেষ সাক্ষাৎ কিনা, তা বলতে রাজি হননি এই কারা কর্মকর্তা।

গো নিউজ২৪/এএইচ

আইন-আদালত বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত