৬ ভাদ্র ১৪২৪, সোমবার ২১ আগস্ট ২০১৭ , ১১:৫২ অপরাহ্ণ

মহিলা আ.লীগের সংবাদ সম্মেলন শনিবার


গো নিউজ২৪ | গো নিউজ ডেস্ক আপডেট: ০২ মার্চ ২০১৭ বৃহস্পতিবার
মহিলা আ.লীগের সংবাদ সম্মেলন শনিবার

ঢাকা: প্রায় ১৪ বছর পর শনিবার (৪ মার্চ) অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন মহিলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন। আর সম্মেলনে সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হতে যাচ্ছেন যথাক্রমে- সাফিয়া বেগম এবং মাহমুদা বেগম। সাফিয়া বেগম বর্তমানে সংগঠনটির সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। আর মাহমুদা বেগম সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।

শনিবার সকাল ১১টায় রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন।

ইতোমধ্যে সম্মেলন সফলভাবে সম্পন্ন করতে সব প্রস্তুতি শেষ করেছে সংগঠনটি। প্রায় ১৪ বছর পর হতে যাওয়া এ সম্মেলনে নবীন প্রবীণের সমন্বয় ঘটবে বলে আশা করছেন নেতাকর্মীরা।

জানা গেছে, সর্বশেষ ২০০৩ সালের ১২ জুলাই মহিলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলনে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ওই সম্মেলনে আশরাফুন্নেসা মোশাররফ সভাপতি এবং পিনু খান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও আর সম্মেলন করতে পারেনি সংগঠনটি। নেতৃত্বের পরিবর্তন না আসায় সাংগঠনিক কার্যক্রমও ঝিমিয়ে পড়েছিল। মূল দল আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকায় মাঠের রাজনীতিতেও তাদের খুব একটা দেখা মেলেনি।

এ বিষয়ে মহিলা আওয়ামী লীগের এক নেত্রী বলেন, “১৪ বছর ধরে ওনারাই নেতা। তাহলে কিভাবে অন্যরা সংগঠন করতে উৎসাহ পাবেন। নেতৃত্বের পরিবর্তন না আসায় সংগঠন ঝিমিয়ে পড়েছে। সাংগঠনিক কার্যক্রমে স্বকীয়তা হারিয়ে ফেলছে মহিলা আওয়ামী লীগ। তবে এ সম্মেলনের মাধ্যমে সংগঠনের স্বার্থে নতুন নেতৃত্ব আসবে বলে আশা করছি।”

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, সংগঠনের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদে পুনর্নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই ক্ষীণ। এর কারণ হিসেবে তারা বর্তমান সভাপতির বার্ধক্যজনিত কারণ বলে মনে করছেন। বার্ধক্যজনিত কারণে সভাপতি সাংগঠনিক কার্যক্রমে সক্রিয় থাকতে পারছেন না। অপরদিকে, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে সমালোচিত হওয়ায় সেখানেও নতুন মুখ দেখা যেতে পারে।

এদিকে, সম্মেলনের সার্বিক বিষয় নিয়ে শুক্রবার আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিদক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে আয়োজন করা হয়। এসময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, “এ বছরের মধ্যে আমরা আমাদের অসমাপ্ত সহযোগী সংগঠনের সম্মেলন এবং দলের নিম্ন পর্যায়ের যেসব কমিটি এখনও পূর্ণাঙ্গ হয়নি সেগুলো সমাপ্ত করবো।” মহিলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের মাধ্যমে নেতৃত্বে নবীন-প্রবীণের সমন্বয় হবে বলেও জানান তিনি।

সম্মেলনে প্রস্তুতির বিষয়ে মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পিনু খান বলেন, “আমরা সম্মেলন প্রস্তুতির সব কার্যক্রম সম্পন্ন করেছি। সারা দেশ থেকে প্রায় ছয় হাজার নেতাকর্মী সম্মেলনে আসবেন। কিন্তু কেআইবিতে জায়গা সংকুলান না হওয়ার সম্ভাবনায় আমরা অর্ধেককে হয়তো ভেতরে প্রবেশ করতে দিতে পারবো।”

গোনিউজ২৪/এম