৮ আশ্বিন ১৪২৪, শনিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ , ১:২৩ অপরাহ্ণ

মরুভূমিতে ভারতের গোপন যুদ্ধ-মহড়া


গো নিউজ২৪ | আন্তর্জাতিক ডেস্ক আপডেট: ১৭ মে ২০১৭ বুধবার
মরুভূমিতে ভারতের গোপন যুদ্ধ-মহড়া

কাশ্মির সীমান্তে তুমুল উত্তেজনার মধ্যেই মরুভূমিতে যুদ্ধের গোপন মহড়া শেষ করেছে ভারত। সেনা সূত্রের বরাত দিয়ে কলকাতাভিত্তিক আনন্দবাজার পত্রিকা এই খবর জানিয়েছে।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবর অনুযায়ী, রাজস্থানের থর মরুভূমিতে ১০ এপ্রিল যুদ্ধ-মহড়া শুরু হয়েছিল। তা শেষ হয়েছে সোমবার। সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র আনন্দবাজার পত্রিকাকে বলেছেন, ‘বর্তমানে যে-লড়াইয়ের পরিবেশ রয়েছে, তার ভিত্তিতে এটা বলাই যায় যে, ওই গোপন মহড়ায় আমাদের জওয়ানেরা চমৎকার ভাবে পাশ করেছে।’

সেনাসূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে,  ‘থর সন্ধি’ নামে এই যুদ্ধ-মহড়ার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল সেনাবাহিনীর সাউথ-ওয়েস্টার্ন কম্যান্ডের অধীন চেতক কোর-কে। সামরিক পরিভাষা এবং দায়িত্ব অনুসারে এই কোর ‘স্ট্রাইকিং কোর’(আক্রমণাত্মক যুদ্ধে পারদর্শী) হিসেবে পরিচিত। ২০ হাজার সেনাকে নিয়ে এই মহড়ায় হাজির ছিলেন কোরের কম্যান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল অশ্বিনী কুমার নিজে। মহড়া হয়েছে ট্যাঙ্ক, গোলন্দাজ, পদাতিক বাহিনীকে নিয়ে। এবং আকাশপথেও।

কাশ্মির নিয়ে চলমান উত্তেজনার মধ্যে ভারতের এমন পদক্ষেপকে ‘সাইকোলজিক্যাল ওয়ারফেয়ার’ হিসেবে দেখছে  সেনাসূত্র এবং সামরিক-বিশ্লেষকরা। তারা মনে করেন, লড়াই বা উত্তেজনা যখন তুঙ্গে, সেই সময়ে বিপক্ষের উপরে মনস্তাত্ত্বিক চাপ তৈরির জন্য এই ধরনের পদক্ষেপ দরকার। সামরিক বিশ্লেষক ও সেনাসূত্র আনন্দবাজার পত্রিকাকে বলেছেন, এই যে ‘স্ট্রাইকিং কোর’-এর ২০ হাজার সেনাকে নিয়ে সীমান্তে মহড়া দেওয়া হল, তার একটা প্রভাব পাকিস্তানের উপরে পড়বে। ফলে সীমান্তে হানার ক্ষেত্রে কিছুটা সংযত হতে পারে তারা। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্রেরা সাধারণ ভাবে এ-সব কথা সরাসরি বলেন না। তবে এবারের মহড়ার পরে তাঁরাও বলছেন, মরুভূমির প্রতিকূল পরিবেশ, আবহাওয়া ও পরিস্থিতিতে জওয়ানেরা কতটা লড়াকু হতে পারেন সেটাই দেখে নেওয়া হল।
গো নিউজ২৪/এআর