১০ শ্রাবণ ১৪২৪, মঙ্গলবার ২৫ জুলাই ২০১৭ , ৬:৪২ পূর্বাহ্ণ

বৈশাখে কেমন হবে আপনার শাড়ি !


গো নিউজ২৪ | ফারজানা আক্তার আপডেট: ০৯ এপ্রিল ২০১৭ রবিবার
বৈশাখে কেমন হবে আপনার শাড়ি !

এইতো কয়দিন আগেই গেলো বসন্তবরণের পালা , আবার  সামনে আসছে পহেলা  বৈশাখ। এই উৎসব বাঙ্গালির বিরাট এক উপলক্ষ আনন্দ করার, বাংলা বছরকে বরণ করে নেয়ার।  রমণীদের সব বাহানার মধ্যে  বিরাট এক বাহানা হলো সাজসজ্জায় বিশেষ রূপ ফুটিয়ে তোলা।  এরই মধ্যে বঙ্গললনাদের  কপালে চিন্তার ভাঁজ !

শাড়িখানা কেমন ঢঙের হবে, রঙের ক্ষেত্রে চেনা ধারায় বদল ঘটবে কিনা,  এই চিন্তায় চিন্তায় ললনাদের ঘুম সাড়া ! 

অনেকের হয়তো সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে গেছে, অনেকের আবার কিছুই ঠিক হয় নাই এখনো।  উৎসবের আমেজ রয়েছে কমবেশি সকলের মনেই। আর মাত্র কয়টা দিন, তারপরেই সেই মহেন্দ্রদিন ! 

বৈশাখী উৎসব মানেই কেবল লাল-সাদার ছড়াছড়ি নয়, পাড়ে লাল আর জমিনে সাদা রঙের শাড়ি নয় ! মেয়েরা এখন দিব্যি ইচ্ছে মতন সব রঙ বেছে নিচ্ছে পহেলা বৈশাখের উৎসবেও।  লাল-সাদা শাড়ির চল আছে ঠিকই তবে সেটাই ট্রেন্ড নয়।  এই বিশেষ দিনটায় লাল কিংবা সাদা রঙের ধারেকাছে না থাকাটা যে ধারার বাইরের কিছু, আজকাল তাও কেউ ভাবছে না। 

উৎসবমুখর আমেজ ফুটিয়ে তোলে, এমন সব রঙেই শাড়ি বেছে নেয়া যায়।  চলতে পারে চিরায়ত ঐতিয়্যের উল্টোধারাও, লালরঙা জমিনের পাড়ে সাদা নকশা থাকুক আপনার শাড়িতে।  টকটকে লাল  শাড়ির সাদা পাড়ে সোনালি জরিসুতার কাজ দারুণ মানাবে।  ঘন সাদা রঙের জামদানির আভিজাত্যেও সাজাতে পারেন নিজেকে সেদিন।  সাথে বৈপরীত্যের লাল ব্লাউজ বেশ লাগবে।  শাড়ি যখন জামদানি, ব্লাউজের কাপড়টাও হতে হবে তার সাথে মানানসই।  বেছে নিতে পারেন সুতি কাতান কাপড়ের ব্লাউজ, একরঙা ব্লাউজের হাতায় লেইস ফিতার খুব সাধারণ কাজ।  সেই সাথে বেণীতে ফুল জড়ানো মুগ্ধতায় আপনার সম্পূর্ণ সাজখানা অসাধারণ হয়ে যাবে। 

পুরো সাজপোশাকে রঙের ঝকমারি নেই, তবু স্নিগ্ধতায় ভরা সাজখানা ভারি জমকালো দেখাবে।   কোটা কাপড়ের শাড়িগুলি উত্তপ্ত বৈশাখী দিনের জন্য আদর্শ। একরঙা  কোটা শাড়িতে কয়েক পরত পাড় বসিয়ে নিয়ে আরামদায়ক শাড়ি বানিয়ে নিতে পারেন আপনার বর্ষবরণ উৎসবের জন্য। গরমে স্বস্তিও হলো, সাথে নিজের বানানো শাড়িও হলো। পাড়ে যে লেইসের ব্যবহার চলতে পারে,  তার সাথে রঙ মিলিয়ে তৈরি করুন ব্লাউজখানা।  পাড় খুব চওড়া হলে শাড়িটাই একটু জমকালো দেখাবে, তখন একরঙা ব্লাউজও ভালো লাগবে ।  আর পাড় চিকন রাখলে ব্লাউজ বানান নকশাদার কাপড়ে। 

যেমন শাড়িই বেছে নিন না কেনো, আনন্দের সাথে আরাম আর স্বস্তির খেয়ালটাও রাখুন।  উৎসব পালন যেনো বিরক্তি নিয়ে না আসে বৎসরের পয়লা দিনটায়।  আনন্দে আর শান্তিতে  কাটুক এমন উৎসবের দিনখানা।