৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭ , ১২:৩২ পূর্বাহ্ণ

বিশ্বের বৃহৎ ঈদ জামাতগুলো


গো নিউজ২৪ | ইসলাম ডেস্ক আপডেট: ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ শনিবার
বিশ্বের বৃহৎ ঈদ জামাতগুলো

ঢাকা: গোটা বিশ্বে ১৮০ কোটি মুসলমানের কাছে সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উত্সব ‘ঈদ’। বছর ঘুরে ঈদ আসে দু’বার। ঈদে উত্সবের আমেজ ঠিক যতটা থাকে ঠিক সেই পরিমাণে পরিলক্ষিত হয় ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ধর্মীয় অনুভূতির বহিঃপ্রকাশ ও স্রষ্টার প্রতি গভীর ভালোবাসা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মসজিদ কিংবা বিশাল মাঠে  সকালেই অনুষ্ঠিত হয় ঈদের নামাজ। বর্তমানে মুসলিম বিশ্বে চলছে পবিত্র রমজান মাস। আর কিছুদিন পরই বিশ্বব্যাপী পালিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর। চলুন জেনে নেওয়া যাক, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কোথায় কেমন ঈদের জামাত আয়োজিত হয়। লিখেছেন

সৌদি আরব
সৌদি আরবের সবচেয়ে বড় ঈদ জামাতটি অনুষ্ঠিত হয় গ্র্যান্ড মস্ক ইন মক্কা নামে পরিচিত কাবা শরিফে। এখানেই সবচেয়ে বড় ঈদ জামাতের আয়োজন করা হয় সরকারিভাবে। তবে অন্যান্য মসজিদেও ঈদের জামাতের আয়োজন করা হয়ে থাকে।

ইউরোপ
ইউরোপের বড় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় বার্মিংহামে। গত বছর সেখানে প্রায় ৭০ হাজার মুসল্লি একসঙ্গে ঈদের নামাজ আদায় করেন। বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন কমিউনিটির, বিভিন্ন কালচারের ৭০ হাজার মুসল্লি একসঙ্গে ঈদের নামাজ আদায়ের পর সেখানেই তারা তাদের ছুটির দিনটি কাটান বন্ধুবান্ধব ও প্রিয়জনের সঙ্গে। বলা হয়ে থাকে, এর আগে কখনো এত বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়নি।

জেরুজালেম
জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদে সব সময় অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে সবচেয়ে বড় ঈদ জামাতটি। হাজারখানেকের বেশি মুসল্লি এখানে ঈদর নামাজ আদায় করতে সমবেত হয়ে থাকেন।

বাংলাদেশ
উপমহাদেশের সর্ববৃহৎ ও ঐতিহ্যবাহী ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহে। প্রতিবছর এখানে ঈদের নামাজ আদায় করতে মুসলিম বিশ্বের লাখো মানুষ একত্রিত হয়ে থাকেন। সারা বিশ্বের শান্তি, সমৃদ্ধি, সম্প্রীতি ও আল্লাহর রহমতের আশায় এখানে লাখো মুসলমান আল্লাহর দরবারের তাদের মিনতি তুলে ধরেন। নামাজের পর মুসল্লিরা তাদের অতীতের ভুলভ্রান্তি মার জন্য আল্লাহর দরবারে হাত তুলে মোনাজাত করেন। লাখো মানুষের সমন্বিত মোনাজাতে পুরো শহরে তখন এক পবিত্র পরিবেশের সৃষ্টি হয়। গোটা শহরে তখন লাখো কণ্ঠে উচ্চারিত হয় মহান আল্লাহর নাম। যুগ যুগ ধরে লাখো মানুষের সমাগমে এভাবে পালিত হয়ে আসছে শোলাকিয়া ঈদগাহের সর্ববৃহৎ জামাত।

মরক্কো
মরক্কোর হাসান-২ মসজিদে সে দেশের সবচেয়ে বড় ঈদ জামাতের আয়োজন করা হয়। মসজিদটি মরক্কোর ক্যাসাব্লাঙ্কায় অবস্থিত। এ মসজিদে একসঙ্গে প্রায় ২০ হাজার মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারেন। এ মসজিদের আরেকটি বিখ্যাত দিক হলো এর মিনারটি। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মিনারটি এ মসজিদের।

ওমান
ওমানের মাস্কটে সে দেশের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাতের আয়োজন করা হয়। সবচেয়ে বড় এ ঈদ জামাতটি অনুষ্ঠিত হয় মাস্কটের সুলতান কাবুস মসজিদে। বলা হয়ে থাকে, সুলতান কাবুস মসজিদ হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মসজিদগুলোর একটি। ওমানের দর্শনীয় জায়গাগুলোরও একটি এ মসজিদ। ১৯৯২ সালে এ মসজিদ তৈরি করা শুরু হয় এবং ছয় বছর সময় লাগে এ মসজিদটি তৈরি করতে। এতে প্রায় ২০ হাজার মানুষ একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে পারেন।

আবুধাবি
আবুধাবির শেখ জায়েদ মসজিদে আয়োজন করা হয় সবচেয়ে বড় ঈদ জামাতের। প্রতিবছর আরব আমিরাতে অবস্থিত এ মসজিদে হাজার হাজার মানুষ ঈদের নামাজ একসঙ্গে আদায় করে থাকেন। সরকারিভাবে এই জামাতের আয়োজন করা হয়ে থাকে। খুব জাঁকজমকের মধ্য দিয়ে সাজানো হয় পুরো শহরকে ঈদ উপল।ে বলা হয়ে থাকে, প্রায় ৪০ হাজার মানুষ একসঙ্গে এখানে ঈদের নামাজ আদায় করেন। আরব আমিরাতের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত এটিই।

মিসর
ক্যারিওর আল আজহার মসজিদে সেখানকার সবচেয়ে বড় ঈদ জামাতের আয়োজন করা হয়। হাজারখানেকের মতো মানুষ এখানে সমবেত হয়ে থাকেন ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য। ধারণা করা হয়, ৯৭০ খ্রিস্টাব্দে এই মসজিদ তৈরির কাজ শুরু হয়েছিল। সূত্র: আজহারুল ইসলাম অভি।

গোনিউজ২৪/পিআর